হবিগঞ্জের বিউটি ধর্ষণ-হত্যা মামলার প্রধান আসামি বাবুল গ্রেপ্তার
হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে ধর্ষণের পর হত্যা করে কিশোরীর মরদেহ হাওরে ফেলে দেয়া বাবুল মিয়া অবশেষে গ্রেফতার হয়েছেন। র‌্যাব-৯ সিলেটের একটি টিম তাকে সিলেট জেলার বিয়ানিবাজার এলাকা থেকে শুক্রবার গভীর রাতে গ্রেফতার করে। শনিবার দুপুরে তাকে নিয়ে সিলেট র‌্যাব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের কথা রয়েছে। বিষয়টি র‌্যাবের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। জানা গেছে, বিউটি আক্তার (১৬) নামে ওই কিশোরীকে গণধর্ষণের পর হত্যা করা হয়। ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে উপজেলার ব্রাহ্মণডুরা ইউপির মহিলা সদস্য কলম চান বিবির ছেলে বাবুলের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার পর অভিযান চালিয়ে কলম চান বিবিকে শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রিজ এবং বাবুলের বন্ধু ইসমাইল মিয়াকে অলিপুর থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে ঘটনার মূল আসামি বাবুল শুরু থেকেই পলাতক ছিল। মামলার বিবরণে বাদী উল্লেখ করেন, স্থানীয় মোজাহের উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বিউটি আক্তারকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতো বাবুল মিয়া। এক পর্যায়ে তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে তা প্রত্যাখ্যান করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে গত ২১ জানুয়ারি বাবুল তাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে। এ বিষয়ে গত ৪ মার্চ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে একটি মামলা করা হয়। নির্যাতিত কিশোরীর বাবার ভাষ্য, এ ঘটনার পর বিউটিকে লাখাই উপজেলার গুনিপুর গ্রামে তার নানার বাড়িতে রেখে আসেন। ১৬ মার্চ রাত ১২টার দিকে টয়লেটে গিয়ে আর ঘরে ফিরেনি বিউটি। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তাকে পাওয়া যায়নি। পরদিন ১৭ মার্চ গুনিপুর থেকে প্রায় ৪ কিলোমিটার দূরে হাওরে তার মরদেহ পাওয়া যায়। তার শরীরের একাধিক স্থানে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পায় পুলিশ। এ ঘটনায় ১৮ মার্চ কিশোরীর বাবা সায়েদ আলী বাদী হয়ে একই গ্রামের বাবুল মিয়া (৩২) ও তার মা ইউপি সদস্য কলম চান বিবিকে (৪৫) আসামি করে শায়েস্তাগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা করেন। এরপর অভিযান চালিয়ে কলম চান বিবিকে শায়েস্তাগঞ্জ নতুন ব্রিজ এবং বাবুলের বন্ধু ইসমাইল মিয়াকে অলিপুর থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। হাওরে কিশোরীর মরদেহ পড়ে থাকার ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ার পর দেশজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। এরপর থেকেই বেরিয়ে আসতে শুরু করে চাঞ্চল্যকর সব তথ্য।
আজও তীব্র যানজটের আকার ধারণ করে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে
শুক্রবার দিনভর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার ৪২ কিলোমিটার এলাকা ও মেঘনা সেতু থেকে কাচপুর পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটের পর শনিবারও মহাসড়কের অবস্থা অভিন্ন। জানা যায়, শুক্রবার রাতে যানজট কিছুটা কমে এলেও শনিবার ভোর থেকে আবার তীব্র আকার ধারণ করে। দাউদকান্দির টোলপ্লাজা থেকে যানজট গৌরিপুর স্টেশন ছাড়িয়ে যায়। যানজটের আটকা পড়ে যাত্রী ছাড়াও পণ্যবাহী যানবাহন, রোগীবাহী অ্যাম্বুলেন্স ও ভিআইপিদের সীমাহীন দুর্ভোগে পড়তে হচ্ছে। যাত্রী ও চালকদের অভিযোগ, মেঘনা ও দাউদকান্দি সেতুতে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ এবং দাউদকান্দির টোলপ্লাজা এলাকায় ওজন নিয়ন্ত্রণ স্কেলে সংশ্লিষ্টদের অবৈধ বাণিজ্য এবং শনিবারও সরকারি ছুটির দিন হওয়ায় অতিরিক্ত গাড়ির চাপ ও বেপরোয়া গতিতে এলোমেলো গাড়ি চলাচলের কারণে যাত্রীরা ফোর লেনের তেমন সুফল পাচ্ছেন না। তারা বলেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম ফোর লেন সড়কের যানবাহনের গতি ডাবল লেনের মেঘনা গোমতী ব্রিজে গিয়ে যানজটে থেমে যাচ্ছে। তাই শনিবার ভোর থেকে মহাসড়কের গোমতী ও মেঘনা সেতু কেন্দ্রিক শুরু হওয়া যানজট ক্রমেই তীব্র আকার ধারণ করছে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে হাইওয়ে পুলিশের দাউদকান্দি থানা পুলিশের ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, শুক্র ও শনিবার ছুটির দিন হওয়ায় যানবাহনের চাপ এমনিতেই বেশি। এছাড়াও দাউদকান্দি ও মেঘনা সেতুতে যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ এবং টোলপ্লাজায় ওজন নিয়ন্ত্রণ স্কেলে ধীরগতির কারণে কিছু যানজট আছে। তবে যানজট নিয়ন্ত্রণে হাইওয়ে পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে।
বগুড়ায় পাসপোর্ট কার্যালয়ের কর্মকর্তাকে কুপিয়ে জখম
বগুড়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সাজাহান কবিরকে (৩৭) দিনে দুপুরে কুপিয়ে আহত করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে দুইটার দিকে বগুড়া শহরের কইগাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির অদূরে বন বিভাগের সামনে দুর্বৃত্তরা অতর্কিত তাঁর ওপর হামলা চালায়। খানদার এলাকার কার্যালয় থেকে ব্যাটারিচালিত রিকশায় চড়ে জাহাঙ্গীরাবাদ ক্যান্টনমেন্ট বাসস্ট্যান্ডের দিকে যাচ্ছিলেন তিনি। পথচারীরা তাঁকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক নির্মলেন্দু চৌধুরী বলেন, তার মাথা, হাত ও পায়ে কোপ লেগেছে। তিনটা জখম গুরুতর। অস্ত্রোপচার চলছে। ঘটনার পর পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা ও জেলা প্রশাসক মোহম্মদ নূরে আলম সিদ্দিকী হাসপাতালে যান। পুলিশ সুপার জানান, হামলাকারীদের সম্পর্কে তথ্য পাওয়া গেছে। তাঁরা পাঁচ-ছয়জন ছিলেন। তাদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ মাঠে নেমেছে। পাসপোর্ট কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, এর আগে স্থানীয় যুবলীগের এক নেতা পাসপোর্টের তদবির নিয়ে আসলে তা রাখেননি সাজাহান। তারাই ক্ষুব্ধ হয়ে হামলা চালিয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।
মাদকাসক্ত ছেলের হাতে পিতা খুন যশোরের ঝিকরগাছায়
যশোরের ঝিকরগাছায় বাবার আলী ওরফে কাঠু (৭৫) নামে এক কৃষককে কুপিয়ে হত্যা করেছে তার মাদকাসক্ত ছেলে আনারুল ইসলাম (৩৫)। পুলিশ ঘাতক ছেলে আনারুল ইসলামকে আটক করেছে। বুধবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালি মাঠুয়াপাড়া গ্রামে নিহতের নিজের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। নিহত কাঠু গদখালি মাঠয়াপাড়া গ্রামের মৃত শ্যাম মড়োল আলীর ছেলে। স্থানীয় গদখালির ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম জানান, বাবর আলী পেষায় একজন কৃষক ছিলেন। তার ছেলে আনারুল ইসলাম একজন মাদক সেবি। মাদক সেবনের কারনে তাকে তিনবার করে জেলহাজতে দেওয়া হয়েছে। জেল থেকে ছাড়া পেয়ে মাদকের নেশা ছাড়তে পারেনি। বুধবার দিবগত রাতে আনারুল সে তার বাবা কাঠুর কাছে নেশার টাকা চায়। টাকা দিতে অপারগতা প্রাকাশ করলে আনারুল বিচুলি কাটা বঠি দিয়ে সে তার বাবার ঘাড়ের ডান পাশে কোপ মারে। এসময় তিনি গরুতর রক্তাক্ত জখম হন। পরিবারের লোকজন ওই রাতেই কাঠুকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে আনতে গেলে বানিয়ালি গ্রামে তার মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ লাশ নিয়ে ঝিকরগাছা থানায় নিয়ে যায়। ঝিকরগাছা থানার ওসি আবু সালেহ মোহাম্মদ মাসুদ করিম বলেন, মাদকাসক্ত ছেলেকে নেশার টাকা না দেওয়ায় বাবার আলী নামে এক কৃষককে কুপি হত্যা করেছে তার ছেলে আনরুল। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতল মর্গে পাঠিয়েছে। বাবাকে কুপিয়ে হত্যাকারী মাদকাসক্ত ছেলে আনারুলকে আটক করা হয়েছে৷
যমুনা নদীর পাথর্শী মোরাদাবাদে অবৈধ বালু উত্তোলন চলছে !
জামালপুরের ইসলামপুরের পাথর্শী ইউনিয়নের মোরাদাবাদ এলাকার কতিপয় প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন যাবত যমুনা নদী থেকে বুলগেট মেশিনে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছেন। এতে যমুুনা নদী ভাঙ্গনের হুমকির মুখে পড়েছে নতুন নতুন এলাকাসহ সরকারের ৪৬৮কোটি টাকা ব্যয়ে সদ্য নির্মিত যমুনার তীর সংরক্ষণ বাঁধ। সরেজমিন ঘুরে জানাগেছে, ইসলামপুরের পাথর্শী ইউনিয়নের মোরাদাবাদ থেকে কুলকান্দি পাইলিং ঘাট পর্যন্ত এলাকায় যমুনার বামতীর ঘেঁষে ১৫ ফুট উচু একটি বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ র্নির্মাণ চলছে। ওই বাঁধ নির্মাণের জন্য এবং বিভিন্ন এলাকায় বালু বিক্রির উদ্দেশ্যে স্থানীয় প্রভাবশালীরা যমুনার বুকে জেগে উঠা হরিণধরা ও শশারিয়া নামক দুটি নতুন চরের পাশ থেকে বুলগেট মেশিনে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছেন। স্থানীয়রা জানান, যমুনার বুকে কয়েক বছর আগে জেগে উঠেছিল পাথর্শী ইউনিয়নের হরিণধরা ও শশারিয়া বাড়ি নামক দুটি বিশাল আকারের নতুন চর। ওই চর দুটি জেগে উঠার পর থেকে সেখানে ফসল ফলিয়ে জীবন ধারণ করছিলেন পাথর্শী ও কুলকান্দি ইউনিয়নের প্রায় পাঁচ হাজার পরিবার। কিন্তু চাষীদের বিধি বাম। দীর্ঘদিন যাবত স্থানীয় প্রভাবশালীরা বুলগেট মেশিনে অবৈধ ভাবে নতুন চর দুটির তিন দিক থেকে বালি উত্তোলন অব্যাহত রেখেছেন। ওই অবৈধ বালু উত্তোলনের কারণে সম্প্রতি হরিণধরা ও শশারিয়া বাড়ি নামক নতুন চর দুটির প্রায় তিন হাজার একর জমি ফসলসহ যমুনা নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। স্থানীয় কৃষকদের অভিযোগ, স্থানীয় প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ী জাহিদুল ইসলাম, সাহেব আলী, আব্দুল মান্নান, ফকির আলী খান, বেলাল মিয়া, নয়ানী শেখ, সুমন শেখ, ধন মিয়া, গেল্লা শেখ, বাহাদুর মাষ্টার, শাপলা রহমান, সামছুল হক, সুমন মন্ডল ও আতিকুর রহমান সরকার গংরা যমুনা নদী থেকে ৪টি বুলগেট মেশিনে প্রতিদিন ৫০ হাজার থেকে ৬০ হাজার সেপ্টি বালু অবৈধভাবে উত্তোলন করছেন। তারা ওই বালু মোরাদাবাদ নৌঘাট ও দক্ষিণ শ্বশারিয়াবাড়ি স্কুল মাঠের পাশে জমিয়ে সেখান থেকে ট্রাক ও ভটটভটি যোগে বিভিন্ন এলাকার মানুষের কাছে বিক্রি করে লাখ লাখ টাকা অবৈধভাবে রোজগার করছেন। ওই অবৈধ বালু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট সদস্যরা বালু বিক্রি করে ব্যপক লাভবান হলেও যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলনের বিরুপ প্রভাবে যমুনার বুকে জেগে উঠা নতুনচর সমুহ নদীগর্ভে দেবে যাচ্ছে এবং নদী ভাঙ্গনের হুমকির মুখে পড়েছে যমুনার বামতীর সংরক্ষণ বাঁধ। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কৃষকরা জানান, তারা বালু উত্তোলন বন্ধের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট লিখিত অভিযোগ করেও কোন সমাধান পাননি। উল্টো বালু উত্তোলন বন্ধের অভিযোগ করায় বালু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট সদস্যদের হাতে নিরীহ কৃষকরা লাঞ্ছিত হয়েছে। পাথর্শী ইউনিয়নের বালু ব্যবসায়ীরা নিরীহ কৃষকদের মারধোর করাসহ কয়েক দফা প্রান নাশের হুমকিও প্রদান করেছে। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা অভিযোগে আরও জানান, পাথর্শী ইউনিয়নে যমুনা নদী থেকে দীঘদিন যাবত বাঁধাহীনভাবে বালু উত্তোলন অব্যাহত রয়েছে। আর যমুনা থেকে বালু উত্তোলন অব্যাহত থাকার বিরুপ প্রভাবে সম্প্রতি হরিণধরা ও শশারিয়া বাড়ি নামক চর দুটি ইতিমধ্যেই যমুনা গর্ভে বিলীন হয়েছে। অপরদিকে যমুনা নদী ভাঙ্গনের হুমকির মুখে পড়েছে ইসলামপুরে ৪৬৮ কোটি টাকা ব্যয়ে সদ্য নির্মিত যমুনার বামতীর সংরক্ষণ বাঁধ। এব্যাপারে পাথর্শী ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আলম বাবুল বলেন, যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলন বন্ধ করতে উপজেলা প্রশাসনসহ উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগ দেওয়া হয়েছে কিন্তু এখন পর্যন্ত প্রশাসন কোন প্রদক্ষেপ গ্রহন করেননি। ইসলামপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান জানান, তিনি এ ব্যাপারে শিগ্রই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। অভিযোগ উঠেছে, কুলকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সনেট, পাথর্শী ইউপি সদস্য জাহিদুল ইসলাম এবং স্থানীয় প্রভাবশালী বালু ব্যবসায়ী আতিকুর রহমান সরকার ও সুমন মন্ডল গংরা এলাকায় বালু উত্তোলনের জন্য দুইটি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে। ওই বালু উত্তোলন সিন্ডিকেট সদস্যরাই মোটা অঙ্কের বিশেষ সমঝোতায় স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে প্রতিদিন গভীর রাত পর্যন্ত হাজার হাজার সেপ্টি বালি উত্তোলন পূর্বক বিক্রি করছে। তবে কুলকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান জিয়াউর রহমান সনেট যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলনকারী সিন্ডিকেটের সাথে কোন ভাবেই সংশ্লিষ্ট নয় বলে দাবী করেছেন। পাথর্শী ইউপি চেয়ারম্যান ইফতেখার আলম বাবুল আরও জানান, যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলন বন্ধের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং থানা পুলিশকে তিনি কয়েক দফা অনুরোধ করেও বালু উত্তোলন বন্ধ করতে পারেননি। এদিকে বালু উত্তোলন বন্ধ করতে না পারায় সম্প্রতি পাথর্শী ইউনিয়নের হরিণধরা ও শশারিয়া বাড়ি নামক দুটি চর যমুনা গর্ভে বিলীন হয়েছে এবং যমুনার বামতীর সংরক্ষণ বাঁধ নদী ভাঙ্গনের হুমকির মুখে পড়েছে। এছাড়াও বালু উত্তোলন করে শশারিয়া বাড়ী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে স্তুপ করায় ক্লাস চলাকালীন সময় বালুর ট্রাক আসা-যাওয়ার ফলে স্কুলের ক্লাসের পরিবেশ বিঘ্ন ঘটছে।
একলাখ ইয়াবাসহ চট্টগ্রামে দুই ভাই গ্রেফতার
নগরীর পাহাড়তলী থানার একে খাঁন এলাকা থেকে ১ লাখ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী দুই ভাইকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ এর একটি দল। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মো. মোবারক (৩৬) ও মো. সালমান (২৩)। এসময় তাদের কাছ থেকে মাদক বিক্রির ২৫ হাজার টাকা এবং ৭০ হাজার টাকার টাকার চেক উদ্ধার হয়। মঙ্গলবার পাহাড়তলী থানার একে খান এলাকার বিদ্যুৎ অফিসের সামনে মধ্যরাতে এ অভিযান চালানো হয়। র‌্যাবের সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মিমতানুর রহমান জানান, রাতে ব্যাগে করে ইয়াবা নিয়ে ঢাকা যাওয়ার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে অভিযান পরিচালনা করে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় তল্লাশি চালিয়ে তাদের কাছ থেকে ১ লাখ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের তাৎক্ষনিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায় ইয়াবা কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে নিয়ে ঢাকা যাচ্ছিল। উদ্ধারকৃত ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ৫ কোটি টাকা বলে জানান র‌্যাবের এ কর্মকর্তা।
প্রতারক নুরুল আবছার আনছারী গ্রেফতার!!!!
জামায়াত নেতা নুরুল আবছার আনছারীকে মঙ্গলবার দুপুর দুইটায় নগরীর চাঁদগাও থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছে। প্রতারক নুরুল আবছার আনছারীর বিরুদ্ধে ৫টি মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন আদালত। জামায়াত নেতা আনছারীর বিরুদ্ধে চট্টগ্রামের বিভিন্ন থানায় প্রায় ২১টি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানায়। এরমধ্যে জামায়াত নেতা নুরুল আবছার আনছারীর বিরুদ্ধে প্রতারনা, অর্থ আত্মসাৎ,নারী ঘটিত ঘটনাসহ বিভিন্ন ধরণের মামলা রয়েছে। পুলিশের তথ্যমতে নুরুল আবছার আনছারী কখনো আইনজীবী, কখনো সাংবাদিক,কখনো চিকিৎসক,কখনো মানবাধিকার কর্মী বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পরিচয়ে প্রতারণার কৌশল হিসেবে নিতেন বলে পুলিশ জানায়। পুলিশের তথ্যমতে নুরুল আবছার আনছারী একাধিক বিয়েও করেছে। নুরুল আবছার আনছারীর গ্রামের বাড়ি বাঁশখালী উপজেলার চাপাছড়ি এলাকার মর্তুজা আলী মুন্সির পুত্র। চাঁন্দগাও থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল বশর জানান, প্রতারক আনছারীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। তারা কোন ব্যবসা নেই মানুষের সাথে প্রতারণা করা তার এক মাত্র ব্যবসা। পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে তাকে ধরার চেষ্ঠা চালিয়ে আসছিল। অবশেষে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন এ প্রতারক। তাকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা গেলে আরো কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্য বেরিয়ে আসবে বলে তিনি জানান।
অটো চালককে ছুরিকাঘাতে হত্যা নারায়ণগঞ্জে
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে রাব্বি মিয়া নামে এক অটোরিকশাচালক খুন হয়েছেন। সোমবার দিনগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে ফতুল্লার কাশিপুর আদম বাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রাব্বি মিয়া (১৮) ওই এলাকার নাসির হোসেনের ছেলে। ফতুল্লা মডেল থানার এসআই শাফিউল আলম জানান, রাত সাড়ে ১২টায় বাড়ির কাছে অটোরিকশাচালক রাব্বি মিয়াকে অজ্ঞাত দুই যুবক পিঠে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। এসময় আশপাশের লোকজন রাব্বি মিয়াকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। লাশ ময়না তদন্তের জন্য ওই হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে আরও খোজখবর নেয়া হচ্ছে এবং অজ্ঞাত দুই যুবককে শনাক্তের চেষ্টা চলছে বলে জানান এসআই।