সোমবার, অক্টোবর ১৮, ২০২১
এ বছরও জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা হচ্ছে না: শিক্ষামন্ত্রী
২৮সেপ্টেম্বর ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : করোনা মহামারির কারণে এ বছরও অষ্টম শ্রেণির জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) এবং জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শেরো বাংলা নগরে গণভবন সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বৃক্ষ রোপণ শেষে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, সামনে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষা। আমাদের কিন্তু সব প্রস্তুতি রয়েছে (জেএসসি নেবার)। এখন আর জেএসসি পরীক্ষা নেওয়ার আমাদের খুব একটা সুযোগ থাকছে বলে মনে হয় না। কিন্তু ক্লাস সমাপনী যে পরীক্ষা সেটা হবে। সেটা সব শ্রেণির মতো পঞ্চম শ্রেণির এবং অষ্টম শ্রেণিতেও হবে। তিনি বলেন, প্রত্যেক শ্রেণির মূল্যায়নগুলো হবে। আলাদা করে বোধ হয় এবার এই পরীক্ষার (জেএসসি-জেডিসি) সুযোগ থাকছে না। আমাদের প্রস্তুতি ছিল। কিন্তু পরীক্ষা নেওয়ার বোধ হয় সুযোগ নেই। করোনা মহামারির কারণে গতবছর জেএসসি-জেডিসি এবং প্রাথমিক সমাপনীর বদলে শ্রেণিকক্ষে মূল্যায়ন করে শিক্ষার্থীদের পরবর্তী শ্রেণিতে তুলে দেওয়া হয়। নিউজ একাত্তর/বিল্পব
এসএসসি পরীক্ষা শুরু ১৪ নভেম্বর, এইচএসসি ২ ডিসেম্বর
২৭সেপ্টেম্বর ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান এবং এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার সময়সূচি চূড়ান্ত করে তা প্রকাশ করেছে সরকার। আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে এসএসসি এবং ২ ডিসেম্বর থেকে এইচএসসি পরীক্ষার সূচি চূড়ান্ত করে সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। এসএসসি পরীক্ষার তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ২৩ নভেম্বর। এসএসসিতে ১৪ নভেম্বর সকালে পদার্থ বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়), ১৫ নভেম্বর সকালে বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা এবং বিকেলে হিসাব বিজ্ঞান, ১৬ নভেম্বর রসায়ন (তত্ত্বীয়), ১৮ নভেম্বর শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া (তত্ত্বীয়), ২১ নভেম্বর সকালে ভূগোল ও পরিবেশ এবং বিকেলে ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং ২২ নভেম্বর উচ্চতর গণিত (তত্ত্বীয়) জীব বিজ্ঞান (তত্ত্বীয়), ২৩ নভেম্বর সকালে পৌরনীতি ও নাগরিকতা এবং অর্থনীতি, বিকেলে ব্যবসায় উদ্যোগ বিষয়ের পরীক্ষা হবে। সকালের পরীক্ষা ১০টা থেকে সাড়ে ১১টা এবং বিকেলের পরীক্ষা বেলা ২টা থেকে সাড়ে ৩টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ মহামারির কারণে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে কক্ষে আসন গ্রহণ করতে হবে। ব্যবহারিক পরীক্ষার বিষয়ে বলা হয়, স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান নিজ নিজ পরীক্ষার্থীর ব্যবহারিক খাতার নম্বর দিয়ে ২৮ নভেম্বরের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। অন্যদিকে, এইচএসসি পরীক্ষায় তত্ত্বীয় বিষয়ের পরীক্ষা ২ ডিসেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ৩০ ডিসেম্বর। আর ব্যবহারিক পরীক্ষার জন্য স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান নিজ নিজ পরীক্ষার্থীর ব্যবহারিক খাতার নম্বর দিয়ে ৩ জানুয়ারির মধ্যে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে সরবরাহ করবে। এরআগে উভয় পরীক্ষার রুটিন চূড়ান্ত করার জন্য আন্তঃশিক্ষা বোর্ড থেকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। অপরদিকে, দাখিল পরীক্ষার সূচি এর আগে প্রকাশ করেছে মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড। আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের দাখিল পরীক্ষা শুরু হবে। প্রতি বছর ফেব্রুয়ারির শুরুতে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়। কিন্তু করোনার কারণে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে আবশ্যিক বিষয় বাদ দিয়ে তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে এসএসসির পরীক্ষা নেওয়া হবে। করোনা মহামারির কারণে গতবছর এইচএইসসি পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। গতবছর এসএসসি এবং জেএসসির ফল থেকে গড় করে এইচএসসির ফল প্রকাশ করা হয়েছিল। এবার মহামারির প্রকোপ কমে যাওয়ায় এইচএসসিতে শুধু নৈর্বাচনিক বিষয়ের পরীক্ষা হবে। নিউজ একাত্তর/ভুঁইয়া
এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা পেছানো হবে না
২৫সেপ্টেম্বর ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : মহামারি করোনা সংক্রমণ নিয়ে এমন কোনো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি, যে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হবে। সংক্রমণের ঘটনাগুলোতে স্কুলের সবার পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রশাসন পরিস্থিতি মনিটরিং করছে। আগেও বলেছি, আবারও বলছি। পরিস্থিতি খারাপ হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হবে। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে বঙ্গবন্ধু বাপু ডিজিটাল এক্সিবিশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পর সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর দেশে বড় ধরনের কোনো অঘটন ঘটেনি। সব দিক বিবেচনা করে তাই চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা নভেম্বর মাসে ও এইচএসসি পরীক্ষা ডিসেম্বরে আয়োজন করা হবে। এসব পরীক্ষার সময় পেছানো হবে না। ডা. দীপু মনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর থেকে নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ক্লাসে এসে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে শোনা গেছে। বিষয়টি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় পর্যবেক্ষণ করছে। তারা সেসব স্থানে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছেন। নিউজ একাত্তর/ভুঁইয়া
শেখ হাসিনা ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন
১৯সেপ্টেম্বর ২০২১, নিজেস্ব সংবাদদাতা , নিউজ একাত্তর : নতুন আরেকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। শেখ হাসিনা ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি নামে কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার বাঁশগাড়ী গ্রামে এ বিশ্ববিদ্যালয় অস্থায়ীভাবে স্থাপন ও পরিচালনার সাময়িক অনুমোদন দিয়ে আদেশ জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোক্তা ও প্রতিষ্ঠাতা ডা. এইচবিএম ইকবালকে বিশ্ববিদ্যালয়টি পরিচালনার সাময়িক অনুমতি দিয়ে সম্প্রতি চিঠি পাঠিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ। নতুন এ বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে দেশে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা দাঁড়াল ১০৮টি। ডা. এইচবিএম ইকবাল একজন ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ। তিনি আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য। বর্তমানে বেসরকারি প্রিমিয়ার ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ডা. এইচ বি এম ইকবাল। নিউজ একাত্তর/বিল্পব
এইচএসসির ফরম পূরণের সময় ফের বাড়লো
১৫সেপ্টেম্বর ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণের সময় বাড়ানো হয়েছে। ২০২১ সালের শিক্ষার্থীদের ফরম পূরণের জন্য প্রতিষ্ঠান থেকে এসএমএস পাঠানোর সময় নির্ধারণ করা হয়েছে ১৬ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর। এসএমএস পাওয়ার পর শিক্ষার্থীদের ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত ফি পরিশোধের সময় দেওয়া হয়েছে। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণের জন্য প্রতিষ্ঠান থেকে এসএমএস পাঠানোর সময় ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ২২ সেপ্টেম্বর করা হয়েছে। এসএমএস পাওয়ার পর শিক্ষার্থীদের ফি পরিশোধের সময় ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত। কোনও শিক্ষার্থী নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ফরম পূরণে ব্যর্থ হলে এর দায়ভার সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধানকেই বহন করতে হবে। এর আগে আরও দুই দফা সময় বাড়ানো হয়েছিল। গত ৩১ জুলাই এক বিজ্ঞপ্তিতে ১২ আগস্ট থেকে ২৫ আগস্টের মধ্যে প্রতিষ্ঠানের অনলাইনে পরীক্ষার্থী নির্বাচন সম্পন্ন করার নির্দেশনা দেওয়া হয়। পরীক্ষার্থীকে ৩০ আগস্টের মধ্যে পরীক্ষার ফি দিতে বলা হয়েছিল। এরপর গত ২৫ আগস্ট এক নির্দেশনায় ফরম পূরণের সময় বাড়িয়ে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত করা হয়। আর এসএমএস পাওয়ার পর শিক্ষার্থীদের ৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফি পরিশোধের সময় বাড়ানো হয়েছিল। নিউজ একাত্তর/বিল্পব
থাকছে না পিইসি-জেএসসি পরীক্ষা, এসএসসিতে থাকছে না বিভাগ
১৩সেপ্টেম্বর ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : সেকেন্ডারি স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষার আগের কোনও পাবলিক পরীক্ষা থাকছে না। দশম শ্রেণি পর্যন্ত বিজ্ঞান, মানবিক ও বাণিজ্য বিভাগ থাকছে না। ২০২৩ সাল থেকেই এটা কার্যকার হবে। জাতীয় শিক্ষাক্রম রূপরেখা উপস্থাপন শীর্ষক প্রেস কনফারেন্সে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ের সম্মেলন কক্ষে একথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মণি। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম প্রমুখ। শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, নতুন শিক্ষাক্রমের রূপরেখায় নবম-দশম শ্রেণিতে বিজ্ঞান, মানবিক, বাণিজ্য বিভাগ থাকবে না। সবাইকে একই বিষয় পড়তে হবে। তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত কোনও বার্ষিক পরীক্ষা থাকছে না। শিক্ষামন্ত্রী জানান, পরিমার্জিত শিক্ষাক্রমের পাইলটিং চলবে ২০২২ সালে। আর শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন শুরু হবে ২০২৩ সাল থেকে। ২০২৫ সালের মধ্যে পর্যায়ক্রমে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাক্রম বাস্তায়ন করা হবে। প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষাব্যবস্থায় বড় ধরনের সংস্কার আসছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, নবম ও দশম শ্রেণিতে মানবিক, বিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা নামে বিভাগ তুলে দেওয়া হচ্ছে। একটি সমন্বিত পাঠ্যক্রম থাকবে এই পর্যায়ে। দশম শ্রেণি পর্যন্ত ১০টি বিষয় ঠিক করা হয়েছে। সেগুলোই সবাই পড়বে। একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে গিয়ে ঐচ্ছিক বিষয়গুলো পড়বে শিক্ষার্থীরা। অর্থাৎ বিজ্ঞান, মানবিক, বাণিজ্যে বিভাজন হবে উচ্চ মাধ্যমিক থেকে। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দক্ষতা অর্জনের বিভিন্ন কৌশল এই পরিমার্জিত কারিকুলামে বলা আছে। শিখন সময় প্রাথমিকে কতটা, মাধ্যমিকে কতটা হবে তা বলা আছে। আমরা সামষ্টিক মূল্যায়নের পাশাপাশি ধারাবাহিক মূল্যায়নের ওপর গুরুত্ব দিয়েছি। শিক্ষাক্রমে অন্তর্ভুক্তিমূলক যে বিষয়টি এনেছি, সেখানে ফ্লেক্সিবিলিটি নিয়ে আসা হয়েছে। শারীরিক, মানসিক, সুবিধাবঞ্চিত, প্রান্তিক শিক্ষার্থী সবাইকে নিয়ে আসার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন সম্পর্কে দীপু মণি বলেন, ২০২৩ সালে পরিমার্জিত নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন শুরু করতে পারবো। ২০২৩ সালে প্রাথমিকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে এটি চালু হবে এবং মাধ্যমিকের ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে করবো। ২০২৪ সালে প্রাথমিকের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণি এবং অষ্টম ও নবম শ্রেণি। ২০২৫ সালে পঞ্চম শ্রেণি ও মাধ্যমিকের দশম শ্রেণিতে বাস্তবায়ন করবো। নিউজ একাত্তর/বিল্পব
দেড় বছর পর কাল খুলছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
১১সেপ্টেম্বর ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : কাল ১২ সেপ্টেম্বর থেকে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিকক্ষে পাঠদানের মধ্য দিয়ে বহু কাঙ্খিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলছে। মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনায় এনে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে প্রায় আঠারো মাস কয়েক দফায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা হয়। প্রাক-প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা স্বশরীরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার ঘোষণা এখনো না আসলেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার ঘোষণা আসতেই শিক্ষক-শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। এদিকে চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি সমমানের শিক্ষার্থীদের মাঝেও এসেছে উৎকন্ঠাহীন আনন্দ। চলতি বছরের শুরুতে নানা নির্দেশনার মধ্য দিয়ে এসএসসি বা সমমানের এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষা নেয়ার কয়েক দফা সিদ্ধান্ত হলেও তা সম্পন্ন করা সম্ভব হয়নি কভিড-১৯ এর প্রাদূভার্বের কারণে। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ ছাড়া শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণের কথা জানান। গত ৫ সেপ্টেম্বর সচিবালয়ের মন্ত্রী পরিষদ সম্মেলন কক্ষে ডা.দীপু মনির সভাপতিত্বে আয়োজিত এক বৈঠকে কাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভাশেষে জানানো হয়, চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি এবং পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসতে হবে। অন্যদিকে, প্রথম শ্রেণী থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সপ্তাহে একদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসার নির্দেশনা রয়েছে। চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং ২০২২ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা প্রতিদিন শ্রেণিকক্ষে আসবে। এছাড়া পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরাও রোজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসবে। অন্যদিকে, প্রথম থেকে চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা সপ্তাহে একদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসতে হবে জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রী। শিক্ষা মন্ত্রী বলেছেন, চলতি বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস ইতোমধ্যেই প্রস্তুত করা হয়েছে। তারা প্রতিদিন ক্লাস করলে পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নেয়া হয়ে যাবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকলে জেএসসি, জেডিসি, পিইসি পরীক্ষাসহ বার্ষিক পরীক্ষাও সম্পন্ন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। নির্দেশনার ক্ষেত্রে তিনি জানান, শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা ও স্বাস্থ্যের দিকে লক্ষ্য রাখতে শ্রেণি কক্ষে শিক্ষক এবং প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্টরা প্রতিদিন তাদের পর্যবেক্ষণ করবেন। এ জন্য একটি সার্ভিলেন্স টিম কাজ করবে। আগামী ৯ সেপ্টেম্বরের আগে তৃণমূল বা মাঠ পর্যায়ের প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান শুরু করার আগে তা সম্পূর্ণ তৈরি আছে কি-না তা মনিটরিং করা সম্পন্ন হবে। কোন প্রতিষ্ঠানে কভিড-১৯ সংক্রামণের ঝুঁকি থাকলে স্থানীয় পর্যায়ে তার অবস্থান বিবেচনায় তা বন্ধ করার ঘোষণাও থাকবে বলে উল্লেখ করেন তিনি। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার শুরুতে কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মনিটরিং করা হবে। আগত শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সামাজিক দূরত্ব মেনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সারিবদ্ধভাবে প্রবেশ করার নির্দেশনা রয়েছে। কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আপাতত কোন অ্যাসেম্বলী হবে না। কিন্তু শিক্ষার্থীদের মানসিক ও শারীরিক সুস্থ্যতার কথা চিন্তা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাদের খেলাধূলা বা ফিজিক্যাল অ্যাকটিভিটিজ চলবে। প্রাথমিক পর্যায়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দৈনিক চার থেকে পাঁচ ঘন্টা ক্লাস নেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে এর সময়সীমা বাড়তে পারে। এছাড়া প্রতিদিন প্রত্যেকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে চেকলিষ্ট পূরণ করে অনলাইনের মাধ্যমে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে হবে। করোনাভাইরাস সংক্রামণের হার শতকরা ৫ শতাংশের নিচে নামলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার কথা থাকলেও জুলাই মাসের সংক্রামণ ৭০ শতাংশ কমেছে উল্লেখ করে শিক্ষা মন্ত্রী শ্রেণি কক্ষে পাঠদান শুরুর ঘোষণা দেন। এদিকে, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) এবং প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর (ডিপিই) থেকে যথাযথ স্বাস্থবিধি অনুসরণ করে পাঠদান কর্মসূচি কঠোরভাবে মনিটরিংসহ নানা সচেতনতামূলক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। দীর্ঘদিন পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা ও শ্রেণি কক্ষে পাঠদানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফিরিয়ে আনতে সারাদেশেই সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে চলছে জোর প্রস্তুতি। শিক্ষক-কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট কর্মচারীদের সমন্বয়ে কমিটি গঠন ও সমন্বয় সভা করে শিক্ষার্থীদের জন্য নানা কার্যক্রম নিচ্ছেন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান ফটকে স্যানিটাইজেশন করা, থার্মোমিটারে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে প্রতিষ্ঠানে কিউ মেনে সারি বদ্ধ ভাবে প্রবেশ, মাস্ক পরিধান নিশ্চিকরণ,শরীরের তাপমাত্রা চেক করাসহ বিভিন্ন নির্দেশনার পাশাপাশি তাদেরকে ‘জেড’ শেপে শ্রেণিকক্ষে আসন বিন্যাস উল্লেখযোগ্য। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শিক্ষার্থীদের করোনাকালীন সময়ের জন্য দিনভিত্তিক শ্রেণিবিন্যাস করা হলেও থাকছে না চেনা ডেইলী রুটিন। প্রতিদিন দুটো ক্লাস শেষে একটি শরীরচর্চা বা বিনোদন ক্লাস নেয়ার কথা রয়েছে। পর্যায়ক্রমে শ্রেণিতে পাঠদানের সময়সীমা বাড়ানো হবে। দীর্ঘদিন পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের আসা উপলক্ষে কোন কোন শিক্ষণা প্রতিষ্ঠানের মূল ফটকে বেলুন ও কৃত্রিম ফুল দিয়ে সজ্জিত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে অভিভাবকদের সঙ্গে যোগাযোগ করে কোন সময়ে কিভাবে শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানে যাবে তা নিয়েও নির্দেশনা দিয়ে সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষও। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার ঘোষণায় প্রতিষ্ঠানের শ্রেণিকক্ষ পরিস্কার করাসহ মোট উনিশ দফা নির্দেশনা দিয়েছে মাউশি। করোনাভাইরাস পরিস্থিতি বিবেচনায় জনস্বার্থ ও বিষয়ে চারটি প্রামাণ্য চিত্র প্রকাশ করেছে। এ ছাড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রেণি কার্যক্রম চালু করার বিষয়ে প্রতিষ্ঠানের প্রধান,শিক্ষক মন্ডলী,শিক্ষার্থী, কর্মচারী, পরিচালনা পর্ষদ-অভিভাবকদের জন্য নির্দেশনামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার বিষয়েও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজের সিনিয়র শিক্ষক শেখ আমিনুর রহমান জানান, সরকারি সব ধরনের নির্দেশনা অনুয়ায়ী কাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হচ্ছে। সব ধরনের স্বাস্থ্য সতর্কতা নেয়া হয়েছে। নানা সতর্কতামূলক ব্যবস্থার সঙ্গে তাদের সুবিধার্থে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দু’টো গেট দিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রবেশ ও বের হওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীদের বিষয়ে বরাবরই নিয়মানুবর্তিতাকে গুরুত্ব দেয়া হয়ে থাকে। মাসে কয়েক দফায় সমন্বয় সভা হয়ে থাকে,তবে করোনাকালীন সময়ে এটি আরো জোরদার করা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের প্রতিষ্ঠানে আরো আনা নেয়ার বিষয়ে আরো স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এদিকে মাউশি অভিভাবকদের জন্য আট দফা নির্দেশনা দিয়েছেন। এছাড়া কোন কোন প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠান খোলার কয়েকদিন শোভন পোষাক পরিধান করে শ্রেণিকক্ষে আসতে পারবে। তবে উক্ত সময়ের মধ্যে শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত ইউনিফর্ম বানাতে হবে। নিউজ একাত্তর/বিল্পব
প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলতে পারে ১২ সেপ্টেম্বর : শিক্ষামন্ত্রী
৩সেপ্টেম্বর ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : শিক্ষা মন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি বলেছেন, দেশের সকল প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ১২ সেপ্টেম্বর খুলতে পারে । আজ চাঁদপুরে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা জানান। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে শিগগিরই। কারণ, বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট ও একাডেমিক কাউন্সিল সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন। সকল উপাচার্য শিক্ষার্থীদের প্রথম ডোজের টিকা দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে আনার প্রস্তাব করেছিলেন। তবে তারা যদি চান তাহলে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারেন। শিক্ষা মন্ত্রী আরো বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে, প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার পরও শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মনিটরিং করতে হবে। এই সংক্রান্ত বাধ্যতামূলক দৈনিক একটি প্রতিবেদন পাঠাতে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশনা দেয়া হবে। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর এ সংক্রান্ত আন্তঃমন্ত্রণালয়ের এক সভায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে। তিনি আরো বলেন, ইতোমধ্যে অধিকাংশ ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও কর্মচারীদের টিকা দান সম্পন্ন হয়েছে। মন্ত্রী জানান, প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা বারো বছরের উপর বয়সের শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার বিষয়ে ঘোষণা দিয়েছেন। এর আগে তিনি আঠারো বছর বয়সের শিক্ষার্থীদের টিকা গ্রহণের বিষয়েও বলেছেন বলে উল্লেখ করেন। নিউজ একাত্তর/বিল্পব
২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ৫ম সপ্তাহের আ্যসাইনমেন্ট প্রদান
২৪আগষ্ট ২০২১, শিক্ষা ডেস্ক , নিউজ একাত্তর : ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ৫ম সপ্তাহের আ্যসাইনমেন্ট দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর ( মাউশি)। আজ মাউশির পরিচালক প্রফেসর মো. শাহেদুল খবির চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে এই কার্যক্রম আজ থেকে শুরু হচ্ছে । নির্দেশনায় আরো বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনা অনুসারে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য পুনর্বিন্যাসকৃত পাঠ্যসূচির আলোকে এই আ্যসাইনমেন্ট দেয়া হয়েছে। আ্যসাইনমেন্টের মধ্যে ৫ ম সপ্তাহের জন্য গুচ্ছ -২ এর জীববিজ্ঞান,উচ্চতর গণিত, সমাজবিজ্ঞান, সমাজকর্ম, ভূগোল, ফিন্যান্স ব্যাংকিং ও বিমা , উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপণন, আরবি, গৃহ ব্যবস্থাপনা এবং পারিবারিক জীবন ও গুচ্ছ -৩ এর রসায়ন, অর্থনীতি, পৌরনীতি ও সুশাসন, যুক্তি বিদ্যা, হিসাববিজ্ঞান, খাদ্য ও পুষ্টি, উচ্চাঙ্গ সংগীত বিষয়ের ১৬ আ্যসাইনমেন্ট অঞ্চলের পরিচালক বরাবর পাঠানো হয়েছে। এতে ২০২১ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য আ্যসাইমেন্ট জমা ও গ্রহণের ক্ষেত্রে কোভিড-১৯এর সংক্রামণ রোধে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত বিধিনিষেধ যথাযথ অনুসরণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। নিউজ একাত্তর/বিপ্লব

শিক্ষা পাতার আরো খবর