বুধবার, নভেম্বর ২১, ২০১৮
প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ দলের স্কোয়াড
ক্রীড়া ডেস্ক: আগামী বৃহস্পতিবার থেকে চট্টগ্রামে প্রথম টেস্ট দিয়ে শুরু হচ্ছে ঘরের মাটিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে টাইগারদের পূর্ণাঙ্গ সিরিজ। মূল লড়াইয়ের আগে চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে সফরকারীদের বিপক্ষে দুইদিনের (১৮ ও ১৯ নভেম্বর) প্রস্তুতি ম্যাচ শেষ হয়েছে ড্রয়ের মাধ্যমে। এরই মধ্যে সাকিব আল হাসানকে অধিনায়ক করে প্রথম টেস্টেরর জন্য বাংলাদেশ দলের স্কোয়াড ঘোষণা করা হয়েছে। বিসিবি: সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ মিঠুন, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, আরিফুল হক, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোস্তাফিজুর রহমান, তাইজুল ইসলাম, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, নাঈম হাসান ও সাদমান ইসলাম।
কী করবেন রুনি? খেলোয়াড়ি জীবন শেষে
ক্রীড়া ডেস্ক: আনুষ্ঠানিকভাবে আন্তর্জাতিক ফুটবলকে গুডবাই বলে দিয়েছেন বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার ওয়েনি রুনি। অবশ্য তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় জানিয়েছিলেন ২০১৭ সালে। কিন্তু গত ১৫ নভেম্বর ওয়েনি রুনিকে বিশেষভাবে সম্মান জানিয়ে বিদায়ী সংবর্ধনা দেয় ইংল্যান্ড। যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে এক প্রীতি ম্যাচ খেলার মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে অবসরে যান রুনি। এই ম্যাচে ইংল্যান্ড জয় পায় ৩-০ গোলে। কিন্তু রুনি গোল করতে পারেননি। এই ম্যাচে গোল করতে না পারলে কী হবে? রুনি তো ইংল্যান্ডের ফুটবল ইতিহাসে সর্বকালের সেরা গোলদাতা। ইংল্যান্ডের এই সাবেক অধিনায়ক ১২০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ৫৩টি গোল করেছেন। সাবেক এই ইংলিশ ফরোয়ার্ড আউটফিল্ড প্লেয়ার হিসাবে ইংল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ম্যাচ খেলেছেন। আর সবমিলিয়ে দ্বিতীয়। ইংল্যান্ডের হয়ে যিনি সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলেছেন তিনি হচ্ছেন পিটার শিলটন। তবে তিনি ছিলেন গোলরক্ষক। ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে ১২৫টি ম্যাচ খেলেছেন তিনি। গোল করার দিক থেকে ওয়েনি রুনির পরে আছেন ববি চার্লটন। ১০৬ ম্যাচ খেলে তিনি করেন ৪৯ গোল। ৪৮ গোল করে গ্যারি লিনেকার আছেন চতুর্থ অবস্থানে। রুনি শুধু ইংল্যান্ডেরই সর্বকালের সেরা গোলদাতা নন। তিনি ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডেরও সর্বকালের সেরা গোলদাতা। এই ক্লাবের হয়ে তিনি গোল করেছেন ২৫৩টি। এখানেও রুনির নিচে আছেন ববি চার্লটন। তার গোল সংখ্যা ২৪৯। ২৩৭ গোল করে তৃতীয় অবস্থানে আছেন ডেনিস ল। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে ঝলমলে ক্যারিয়ার রুনির। মাইকেল ক্যারিকের পাশাপাশি রুনি একমাত্র ইংলিশ ফুটবলার হিসাবে প্রিমিয়ার লিগ, এফএ কাপ, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, লিগ কাপ, উয়েফা ইউরোপা লিগ ও ফিফা ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপ জিতেছেন। ২০০৯-১০ মৌসুমে পিএফএ প্লেয়ার্স প্লেয়ার অব দ্য ইয়ার ও এফডব্লিউএ ফুটবরার অব দ্য ইয়ার নির্বাচিত হয়েছিলেন। ওয়েনি রুনির আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শেষ হলেও ক্লাব ফুটবলে তিনি খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন। খেলছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব ডিসি ইউনাইটেডের হয়ে। রুনি পুরোপুরিভাবে যখন বুট জোড়া তুলে রাখবেন তখন কী করবেন? কোচিংয়ে যুক্ত হবেন না টিভি পন্ডিত হিসাবে কাজ করবেন? তবে রুনি জানিয়ে রেখেছেন, তিনি পুরোপুরিভাবে খেলোয়াড়ি জীবন শেষ করার পর ক্যারিয়ার হিসাবে কোচিংকেই বেছে নিবেন। রুনি বলেছেন, হ্যাঁ, কোচিংয়ের প্রতিই আমার ঝোঁক আছে। অবসরের পর কোচ হিসাবেই ক্যারিয়ার শুরু করতে চায়। আমি এখন যুক্তরাষ্ট্রে খেলছি। অবশ্যই আমাকে খেলোয়াড়ি জীবন শেষ করতে হবে। আশা করি, আমি ইংল্যান্ডে ফিরে আসার আগে তাদের (ডিসি ইউনাইটেড) পরিপূর্ণ করতে পারব। সেই সাথে আমি নিজেকে এমন একটা অবস্থানে নিয়ে যেতে পারব যেখানে প্রস্তাব পেলে আমি গ্রহণ করতে পারব অথবা না করে দিতে পারব। টিভি পন্ডিত হিসাবে কাজ করার সম্ভাবনার কথাও একেবারে উড়িয়ে দেননি ৩৩ বছর বয়সী রুনি। তিনি বলেছেন,যদি কোচিংয়ে ক্যারিয়ার গড়তে না পারি তাহলে অবশ্য টেলিভিশনে কাজ করার সুযোগ থাকবে। কিন্তু আমার প্রথম পছন্দ কোচিং অথবা ম্যানেজমেন্ট। একেবারে ছোটবেলা থেকেই ফুটবলের সঙ্গে জড়িত ওয়েনি রুনি। তার বয়স যখন মাত্র ৯ বছর তখন তিনি ইংলিশ ক্লাব এভারটনের ইয়ুথ টিমে যোগ দেন। ২০০২ সালে তার এভারটন সিনিয়র টিমে অভিষেক হয়। ২০০৩ সালে আন্তর্জাতিক ফুটবলে অভিষেক হয়েছিল তার। এই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরেছিল ইংল্যান্ড। রুনির যেদিন ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে অভিষেক হয়েছিল তখন তিনি ছিলেন সবচেয়ে কম বয়সে আন্তর্জাতিক ফুটবলে অভিষেক হওয়া ইংলিশ ফুটবলার। কিন্তু পরবর্তীতে এই রেকর্ড ভেঙেছে। রুনিকে টপকে এই রেকর্ড এখন থিও ওয়ালকটের দখলে। রুনি আছেন দ্বিতীয় অবস্থানে। ইংল্যান্ডের হয়ে সবচেয়ে কম বয়সে গোল করার রেকর্ড এখনো ওয়েনি রুনির দখলে। ১৭ বছর ৩১৭ দিন বয়সে গোল করে এই রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি। এই তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন মাইকেল ওয়েন। তিনি গোল করেছিলেন ১৮ বছর ১৬৪ দিন বয়সে। ১৮ বছর ২০৯ দিন বয়সে গোল করে তৃতীয় অবস্থানে আছেন মার্কাশ রাশফোর্ড। ইংল্যান্ডের হয়ে ওয়েনি রুনির ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স ভালো। আবার ক্লাব ফুটবলেও তিনি আলো ছড়িয়েছেন। ক্লাবের হয়ে তিনি অনেক শিরোপা জিতেছেন। তবে ইংল্যান্ডকে বড় কোনো শিরোপা জেতাতে পারেননি তিনি। তার সময় বড় কোনো ইভেন্টে সর্বোচ্চ কোয়ার্টার ফাইনালের উপরে খেলতে পারেন ইংল্যান্ড। তার সময়ে সর্বশেষ ২০১২ সালে ইউরো কাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিল ইংলিশরা। এ বিষয়ে ওয়েনি রুনি বলেছেন, ইংল্যান্ডের হয়ে আমি যখন খেলেছি তখন সব উজাড় করে দিয়েছি। দলের সফলতার জন্য আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। কিন্তু কখনো কখনো সর্বোচ্চটুকু দেয়াও যথেষ্ট নয়।
বিমান দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেলো নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেট দল
ক্রীড়া ডেস্ক: ভাগ্যক্রমেই বিমান দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেছে নিউজিল্যান্ডের প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট দল। স্থানীয় জনপ্রিয় সংবাদপত্র নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড জানায়, ক্রাইস্টচার্চের হাগলি ওভালে ক্যান্টাবুরি ক্রিকেট ক্লাবকে ৪ উইকেটে হারিয়ে অকল্যান্ড এসেসের বিপক্ষে খেলতে যাওয়ার পথে বজ্রপাতের শিকার হয় ওটাগো ভোল্টসের খেলোয়াড় বহনকারী বিমানটি। এসময় বেশ কয়েকবার কেঁপে উঠে বিমান। তবে ভাগ্য গুনেই কোনো ক্ষতি হয়নি বিমানের। বিমানে থাকা দলটির অধিনায়ক, এই ঘটনাকে জীবনের সবচেয়ে বাজে অভিজ্ঞতা বলে জানিয়েছেন। বলেন, আমাদের এই ফ্লাইটটা রোমহর্ষক ছিলো। ডানেডিন আসা পর্যন্ত খুব একটা স্বস্তি ছিল না আমাদের। আমার জীবনের সবচেয়ে বাজে ও ভয়াবহ অভিজ্ঞতা। এয়ার নিউজিল্যান্ডের মুখপাত্র হ্যানাহ সেয়ার্ল অবশ্য এটিকে স্বাভাবিক ঘটনা উল্লেখ করে বলেন, ‘বিমানে বজ্রপাতের আঘাত নতুন কিছু নয়। এসবের কথা মাথায় রেখেই এয়ারক্রাফটগুলো প্রস্তুত করা হয়। এর আগে ব্রাজিলের ফুটবল ক্লাব শাপেকোয়েন্সের সেই দুঃসহ স্মৃতি থেকে এখনও বের হতে পারেনি ক্রীড়া প্রেমিরা। ২০১৬ সালের ২৯শে নভেম্বরে ভয়াবহ এক বিমান দুর্ঘটনায় ব্রাজিলের এই ক্লাবের ১৯ খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাসহ ৭১ জন নিহত হন। সেই শোকে হয়তো আরও নাম যুক্ত হয়ে যেত। কিন্তু ভাগ্যক্রমেই বেঁচে গেছে নিউজিল্যান্ডের এই ক্রিকেট দলটি।
ভিডিও গেম খেলাকে হারাম বললেন ইরাকি আলেমরা
অনলাইন ডেস্ক: একটি জনপ্রিয় ভিডিও গেমকে উদ্দেশ্য করে বিষয়টিকে হারাম ঘোষণা করে আনুষ্ঠানিক ফতোয়া জারি করেছে ইরাকের কুর্দিস্তান কেন্দ্রিয় শরিয়াহ কাউন্সিল। ভিডিওগেম খেললে সময় নষ্ট হয়, আর সময় নষ্ট করা ইসলামে হারাম- এমন যুক্তিতে তারা ভিডিও গেম খেলার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন। খবর আলবাওয়াবার। কুর্দিস্তান শরিয়াহ কাউন্সিলের ইমাম ইরফান রাশিদ বলেন, মোবাইল ফোনে এভাবে ভিডিও গেম খেললে চোখের ক্ষতি হয়। এটি শরীরেরও ক্ষতি করে। কিন্তু আমাদের নবী হযরত মোহাম্মদ (স.) বলেছেন শরীরের কিছু হক আছে। আমাদেরকে তা আদায় করতে হবে। আমাদের অবশ্যই শরীরের যত্ন নিতে হবে। তবে কুর্দিস্তানের অনেক উদার আলেম এ ফতোয়ার সঙ্গে একমত নন। কুর্দি ইমাম মালা সামান সাঙ্গাউয়ি বলেন,শুধু এই ভিডিওগেমের ওপর ফতোয়া দেয়া বাকি ছিল। এখন এটিকেও হারাম ঘোষণা করা হলো। অনেক বিষয়কে হারাম ঘোষণা করায় এদেশের তরুণরা বিভ্রান্ত হচ্ছে। বলা হলো ফ্রেঞ্চকাট দাড়ি রাখা হারাম। দাঁড়ি ও চুলের স্টাইল করা হারাম। তরুণদেরকে তাদের নিজেদের মতো চলতে দিন।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের দাপট প্রস্তুতি ম্যাচে
ক্রীড়া ডেস্ক: দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে আর তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলতে বাংলাদেশ সফরে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টেস্ট ম্যাচের মধ্যদিয়ে শুরু হবে তাদের সিরিজ। আগামী ২২ নভেম্বর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ম্যাচ শুরু হবে। তার আগে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে নিজেদের ঝালিয়ে নিতে দুই দিনের একটি প্রস্তুতি ম্যাচে নেমেছিল ক্যারিবীয়ানরা। চট্টগ্রামের এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা সফরকারীরা দিন শেষে ৮৬.৩ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ৩০৩ রান। দলীয় ১১ রানের মাথায় শফিউল ইসলাম বোল্ড করেন দলপতি ক্রেইগ ব্রাথওয়েইটকে (৬)। আরেক ওপেনার কাইরন পাওয়েল ১৪২ বলে ৬টি চার আর একটি ছক্কায় ৭২ রান করে ফজলে মাহমুদের বলে উইকেটের পেছনে থাকা জাকির হাসানের গ্লাভসবন্দি হন। তিন নম্বরে নামা শাই হোপ ১১২ বলে ১০টি চার আর তিনটি ছক্কায় ৮৮ রান করে রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন। সুনীল অ্যামব্রিস ১৭ রান করে তরুণ নাঈম হাসানের বলে বোল্ড হন। রোস্টন চেজকে (৩৫) বিদায় করেন রুবেল হোসেন। ২৪ রান করা শিমরন হেটমেয়ারকে ফেরান নাঈম হাসান। ব্যক্তিগত ২৪ রান করে সৌম্য সরকারের বলে জাকির হাসানের তালুবন্দি হন শেন ডরউইচ। রেমন রিফার ১৪ এবং কেমো পল ১৮ রানে অপরাজিত থাকেন। বাংলাদেশের হয়ে নাঈম হাসান দুটি উইকেট পান। একটি করে উইকেট পান শফিউল, রুবেল, ফজলে মাহমুদ এবং সৌম্য সরকার। বিসিবি একাদশের অধিনায়ক টাইগার পেসার রুবেল হোসেন। এছাড়া, দলে আছেন সৌম্য সরকার, জাকির হাসান, মিজানুর রহমান, ফজলে মাহমুদ, এবাদত হোসেন, রিশাদ হোসেন, নাজমুল হোসেন শান্ত, নাঈম হাসান, রবিউল হক এবং শফিউল ইসলাম।
এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসির) সভাপতি হলেন পাপন
ক্রীড়া ডেস্ক: এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) সভাপতির দায়িত্ব পেলেন বিসিবি বস নাজমুল হাসান পাপন। আগামী দুই বছর তিনি এই দায়িত্ব পালন করবেন। শনিবার পাকিস্তানের লাহোরে এসিসির বার্ষিক সভায় নাজমুল হাসানকে আনুষ্ঠানিকভাবে সংস্থাটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়। তিনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) প্রধান এহসান মনির স্থলাভিষিক্ত হলেন। এসিসির সভায় আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন এবং অন্যান্য শীর্ষ কর্মকর্তারা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক আমিনুল ইসলাম বুলবুল। এর আগে দুই বাংলাদেশি এ দায়িত্ব (এসিসির সভাপতি) পালন করেছিলেন। ২০০২ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত আলী আসগর লবি এবং ২০১০ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত সংস্থাটির প্রধান ছিলেন আ হ ম মোস্তফা কামাল। এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের যাত্রা শুরু হয়েছিল ১৯৮৩ সালে। সেবার এসিসির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন প্রয়াত ভারতীয় রাজনীতিক নরেন্দ্র কুমার সালভ। মূলত দক্ষিণ এশিয়ার ক্রিকেটের শীর্ষ চার দেশ যথাক্রমে ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশ থেকেই এসিসির প্রেসিডেন্ট পদের জন্য নির্বাচিত করা হয়ে থাকে। এসিসি প্রতি দুই বছর অন্তর অন্তর আয়োজন করে এশিয়া কাপ ক্রিকেট। এখন পর্যন্ত মোট ১৪বার এশিয়া কাপ আয়োজন করেছে তারা।
ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের জন্য বাংলাদেশ টেস্ট দল ঘোষণা,ফিরলেন সাকিব-সৌম্য,নেই তামিম
অনলাইন ডেস্ক: জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ শেষ হলেও খুব বেশি দিন বিশ্রামের সময় পাচ্ছেন না ক্রিকেটাররা। আর ক’দিন বাদে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের লড়াইয়ে নেমে পড়তে হচ্ছে তাদের। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে এই সিরিজের জন্য বাংলাদেশ টেস্ট দল ঘোষণা করা হয়েছে। চোট কাটিয়ে এই দলে ফিরেছেন বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। শনিবার দুপুরে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ১৩ সদস্যের দল ঘোষণা করে। সাকিব ছাড়াও দলে ফিরেছেন সৌম্য সরকার। দলে ডাক পেয়েছেন টেস্ট অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা অফ স্পিনার নাঈম হাসানও। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বাংলাদেশের খেলা সবশেষ সিরিজের দল থেকে বাদ পড়েছেন লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, নাজমুল ইসলাম অপু, আবু জায়েদ রাহী ও শফিউল ইসলাম। সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের আগে পুরোনো আঙুলের চোট নিয়ে দেশে ফিরে আসেন সাকিব। তাকে ভর্তি হতে হয় হাসপাতালে। পরে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে যেতে হয় অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নেও। পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় থাকায় জিম্বাবুয়ে সিরিজে তিনি খেলতে পারেননি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে তার দলে ফেরাটা বাংলাদেশের জন্য বড় স্বস্তিই। এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচেই কবজিতে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে ছিটকে পড়েছিলেন তামিম ইকবাল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্ট দিয়ে ফেরার অপেক্ষায় ছিলেন তিনিও। কিন্তু কদিন আগে অনুশীলনের সময় আবার চোট পেয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার। তার মাঠে ফেরাটাও তাই দীর্ঘায়িত হলো। জাতীয় ক্রিকেট লিগে দারুণ পারফরম্যান্সের পুরস্কার হিসেবে টেস্ট দলে ফিরলেন সৌম্য। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান জাতীয় লিগে খুলনার হয়ে পাঁচ ম্যাচে এক সেঞ্চুরি ও চার ফিফটিতে করেন তৃতীয় সর্বোচ্চ ৪৭১ রান। টেস্টে লিটনের জায়গায় ওপেন করতে পারেন তিনি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুই টেস্টে মাত্র ৪৭ রান করায় বাদ পড়েছেন লিটন। তরুণ নাঈম হাসানও জাতীয় লিগের ভালো পারফরম্যান্সের পুরস্কার পেলেন। ১৭ বছর বয়সি এই অফ স্পিনার চট্টগ্রামের হয়ে এবারের জাতীয় লিগের সর্বোচ্চ ২৮ উইকেট নেন, পাঁচ ম্যাচে। ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেন দুবার, ম্যাচে দশ উইকেট একবার। গত জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট দলে ডাকাও হয়েছিল তাকে। তবে সেবার খেলার সুযোগ হয়নি তার। প্রথম টেস্টে খেলেছিলেন শান্ত, আবু জায়েদ ও অপু। তেমন ভালো করতে না পারায় দ্বিতীয় টেস্টের একাদশ থেকে বাদ পড়েন তারা। এবার তারা দলেই জায়গা পেলেন না। শফিউল কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ না পেয়েই দলের বাইরে চলে গেলেন। আগামী ২২ নভেম্বর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হবে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। প্রথম টেস্টের বাংলাদেশ দল : সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস, মোহাম্মদ মিথুন, মুমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম, আরিফুল হক, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, তাইজুল ইসলাম, খালেদ আহমেদ, নাঈম হাসান।
মেক্সিকোর বিপক্ষে সহজ জয় পেল আর্জেন্টিনা
অনলাইন ডেস্ক: রাশিয়া বিশ্বকাপের পর থেকে আর্জেন্টিনা হয়ে কোনো ম্যাচ খেলেননি লিওনেল মেসি। আর তাকে ছাড়াই নিজেদের সেরা খেলাটা খেলতে বেগ পেতে হচ্ছে না দুইবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। মেক্সিকোকে ২-০ গোলে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। শনিবার (১৭ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টায় এস্তাদিয়ো মারিও আলবার্তো কেম্পেসে অনুষ্ঠিত প্রীতি ম্যাচে জয় পেতে কোনো অসুবিধা হয়নি লাতিন পরাশক্তিদের। মেক্সিকোর বিপক্ষে দুই আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচের প্রথমটিতে গোল পেয়েছেন রামিরো ফিউনেস মোরি আর দ্বিতীয়টি এসেছে প্রতিপক্ষের উপহার হিসেবে। মানে মেক্সিকোর আইজ্যাক ব্রিজুয়েলা নিজেদের জালে বল জড়িয়ে দিয়েছেন। মেসি-আগুয়েরোদের অবর্তমানে জুভেন্টাসের তারকা পাওলো দিবালা ও ইন্টার মিলানের অধিনায়ক মাওরো ইকার্দির জন্য বড় সুযোগ ছিল নিজেদের প্রমাণ করার। দিবালা লিওনেল স্কালোনির দলে শুরু থেকেই নামলেও একাদশে ঠাই হয়নি ইকার্দির। বরং শুরুর একাদশে নয় নম্বর খেলোয়াড় হিসেবে নামেন আরেক ইন্টার তারকা লাওতারো মার্তিনেজ। ম্যাচের প্রথম গোলে দারুণ ভূমিকা রাখেন পাওলো দিবালা। তার ফ্রিক-কিক থেকেই হেড করে ম্যাচের ৪৪ মিনিটে মেক্সিকোর গোলরক্ষক গুয়ের্মো ওচোয়াকে পরাস্ত করেন ভিলারিয়ালের ডিফেন্ডার রামিরো মোরি। ম্যাচের দ্বিতীয় গোলটি আসে ম্যাচের ৮৩ মিনিটে। ডিফেন্স থেকে বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে দেন ব্রিজুয়েলা। স্কালোনির অধীনে এই নিয়ে ৫ ম্যাচে তৃতীয় জয়ের দেখাল পেলো আর্জেন্টিনা।
জিম্বাবুয়েকে ২১৮ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজ ১-১ সমতায় বাংলাদেশ
অনলাইন ডেস্ক: মেহেদী হাসান মিরাজের দারুণ বোলিংয়ে ঢাকা টেস্টে জিম্বাবুয়েকে ২১৮ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে দুই ম্যাচের সিরিজ ১-১ সমতায় শেষ করেছে বাংলাদেশ। ৪৪৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করা জিম্বাবুয়ে পঞ্চম দিনের দ্বিতীয় সেশনের শুরুতে ২২৪ রান তুলে থামে। পেসার রেগিস চাকাভা ইনজুরিতে থাকায় ব্যাট হাতে নামতে পারেননি। ফলে সফরকারীরা ৯ উইকেট হারানোর পরই জয় নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের। বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুই উইকেটে ৭৬ রান সংগ্রহ করে চতুর্থ দিনের খেলা শেষ করেছিল জিম্বাবুয়ে। আজ পঞ্চম দিনে ৭ উইকেট প্রয়োজন ছিল বাংলাদেশের। প্রথম সেশনে মোস্তাফিজুর রহমান আর তাইজুল ইসলাম একটি করে উইকেট নেন। মোস্তাফিজ ফেরান শন উইলিয়ামসকে (১৩)। সিকান্দার রাজার (১২) উইকেটটি নেন তাইজুল। মধ্যাহ্ন বিরতির পর এক স্পেলেই জিম্বাবুয়েকে গুঁড়িয়ে দেন মিরাজ। পিটার মুর (১৩), ডোনাল্ড তিরিপানো (০) আর ব্র্যান্ডন মাভুতা (০) আর কাইল জারভিসকে (০) তুলে নিয়ে বাংলাদেশকে বড় জয় এনে দেন এই অফস্পিনার। ৫ উইকেট নিয়ে স্বাগতিকদের পক্ষে সফল বোলার তিনিই। এছাড়া তাইজুল নিয়েছেন ২ উইকেট। মুশফিকুর রহিমের অনবদ্য ডাবল সেঞ্চুরি আর মুমিনুল হকের সেঞ্চুরিতে ৭ উইকেটে ৫২২ রান তুলে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ। জবাবে ব্রেন্ডন টেলরের শতকের পরও ৩০৪ রানে অলআউট হয়ে ফলোঅনে পড়ে জিম্বাবুয়ে। তবে তাদের দ্বিতীয়বার ব্যাটিংয়ে না পাঠিয়ে লিটন-ইমরুলকে ব্যাট হাতে পাঠিয়ে দেন টাইগার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। নিজে তুলে নেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট সেঞ্চুরি। এরপর ৬ উইকেটে ২২৪ রান তুলে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করেন তিনি। সংক্ষিপ্ত স্কোর বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস: ৫২২/৭ ডি. জিম্বাবুয়ে প্রথম ইনিংস: ৩০৪ বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস: ২২৪/৬ ডি. জিম্বাবুয়ে দ্বিতীয় ইনিংস: ২২৪ (টেলর ১০৬*, ব্রায়ান চারি ৪৩, মাসাকাদজা ২৫, উইলিয়ামস ১৩; মেহেদী মিরাজ ৫/৩৮, তাইজুল ২/৯৩, মোস্তাফিজ ১/১৯) ফল: বাংলাদেশ ২১৮ রানে জয়ী সিরিজ: ১-১ সমতায় শেষ।

খেলাধূলা পাতার আরো খবর