বুধবার, এপ্রিল ২১, ২০২১
৩ গুণ পারিশ্রমিক বাড়িয়েছেন সাঈফ আলি খান
১১নভেম্বর,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সময়টা গত কয়েক বছর ধরে বেশ ভালো যাচ্ছে। সিনেমা কিংবা অনলাইনে ওয়েব সিরিজ, সবখানেই সাইফ আলি খানের জয়জয়কার। তার কাজগুলো লুফে নিচ্ছেন দর্শক। নায়ক এবং খলনায়ক, সব রকম চরিত্রেই বলিউডের নবাবের প্রতি মুগ্ধ দর্শক। নিজেকে বদলে ফেলেছেন অনেকটাই। বাণিজ্যিক ধারার চিরচেনা সাইফ নিজেকে আগের অভিনয় ধারা থেকে বের করে নিয়ে এসেছেন। তার সর্বশেষ কিছু সিনেমা- কলাকান্দি, জওয়ানি জাওয়ানমন এবং- সেক্রেড গেমসর মতো ওয়েব সিরিজগুলো দর্শক প্রশংসা পেয়েছে। ভারতের একটি শীর্ষ দৈনিক তাদের খবরে প্রকাশ করে, চাহিদার কথা মাথায় রেখেই বর্তমানে সিনেমার জন্য নিজের পারিশ্রমিক প্রায় ৩ গুণ বাড়িয়ে দিয়েছেন সাইফ। আগে সিনেমা প্রতি ৩-৪ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিতেন। কিন্তু এখন থেকে সাইফ প্রতিটি সিনেমার জন্য নিবেন ১২-১৩ কোটি রুপি। শুধু তাই নয়, পরিচালক যদি সিনেমাটি ওটিটি প্লাটফর্মের জন্য নির্মাণ করে থাকেন তবে পারিশ্রমিক আরও বাড়িয়ে নেবেন তিনি। প্রসঙ্গত, সাইফ বর্তমানে ভূত পুলিশ- সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। সিনেমাটিতে তার সঙ্গে অভিনয় করবেন জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ, অর্জুন কাপুর ও ইয়ামি গৌতম। এরপর- ওম রাউতের আদিপুরুষ সিনেমায় রাবণ চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি।
আরো সচেতন হতে হবে: পূর্ণিমা
১০নভেম্বর,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনার প্রথম কয়েক মাস ঘরবন্দি জীবন কাটিয়েছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা দিলারা হানিফ পূর্ণিমা। করোনা ভাইরাসের কারণে সে সময়ে মিডিয়ায় কোনো কাজেই অংশ নেননি। তবে এর মাঝেই করোনা আক্রান্ত হন পূর্ণিমা। আক্রান্ত হবার পরই চলে যান কোয়ারেন্টিনে। করোনা জয় করে ইতিমধ্যে কাজেও ফিরেছেন তিনি। অংশ নিয়েছেন নইম ইমতিয়াজ নেয়ামূলের জ্যাম শীর্ষক সিনেমায়। এখানে তার নায়ক ফেরদৌস। পূর্ণিমা বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে অনেক দিন কাজ করিনি। তবে এবার কাজ শুরু করলাম। যতটুকু সচেতন থেকে কাজ করা যায় করছি। তারপরও ভয় ভয় লাগে। জ্যাম- ছবির গল্প ও তাতে আমার চরিত্র চমৎকার। খুব সুন্দর একটি ছবি পেতে যাচ্ছেন দর্শক। তাহলে কি নিয়মিত কাজ করবেন এখন? এ নায়িকা বলেন, আমি করোনার আগেও একেবারে নিয়মিত কাজ করিনি। আর এখন তো প্রশ্নই উঠে না। খুব বেছে কাজ করবো। সচেতনতা এবং নিরাপত্তাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ আমার কাছে। আর শীত চলে আসছে। করোনার সেকেন্ড ওয়েভ নাকি আসছে! তাই সবারই আরো সচেতন হতে হবে। কারণ নিজেকে এবং পরিবারকে নিরাপদে রাখাই সব থেকে জরুরি। সিনেমার এখনকার পরিস্থিতি নিয়ে পূর্ণিমা বলেন, চলচ্চিত্রের অবস্থা এমনিতেই তো ভালো ছিলো না। যদিও খুব ভালো ভালো সিনেমা হচ্ছে এখন। করোনার কারণে অবস্থা আরো খারাপ চলচ্চিত্রের। সব স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আসলে অবস্থা ঠিক তেমন হবে না। আর সব স্বাভাবিক কবে হবে সেটা অনিশ্চিত। এ নায়িকা যোগ করে বলেন, যেদিন থেকে সাধারণ ছুটি শুরু হয়েছিল তারপর আমি কোথাও যাইনি। বেরই হইনি। আর কাজ তো দূরের কথা। কিন্তু কতদিন আর বন্দি হয়ে থাকা যায়। তবে অবশ্যই সচেতন হয়ে কাজ করতে হবে। এর বিকল্প নেই। শত্রু ঘায়েল ছবিতে শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করলেও জাকির হোসেন রাজুর এ জীবন তোমার আমার ছবির মধ্য দিয়ে নায়িকা পূর্ণিমার যাত্রা শুরু হয়। ১৯৯৭ সালের এ ছবিতে তার নায়ক ছিলেন রিয়াজ। এরপর মনের মাঝে তুমি, হৃদয়ের কথা, প্রেমের নাম বেদনা, আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা, শাস্তি, শুভা, মেঘের পরে মেঘ, স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ সহ অনেক সিনেমায় অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করেন পূর্ণিমা। কাজি হায়াৎ পরিচালিত ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না ছবির জন্য ২০১০ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পান তিনি।
এবার তারিন ও বাঁধনকে নিয়ে নতুন সিনেমায় চঞ্চল
০৮নভেম্বর,রবিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। দুর্দান্ত গানও করেন তিনি। তবে সিনেমায় চঞ্চলকে বলা হয়- লাকি অ্যাক্টর। দীর্ঘদিনের ক্যারিয়ারে কাজ করেছেন হাতে গোনা অল্প কয়টি সিনেমায়। তবে সেগুলোর সবই দর্শকের কাছে সমাদৃত হয়েছে। সেইসঙ্গে মনপুরা, টেলিভিশন, আয়নাবাজি সিনেমাগুলোতে চঞ্চল ব্যবসায়িকভাবেও নিজেকে সফল অভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। সেই ধারাবাহিকতায় আরও একটি চলচ্চিত্রে যোগ দিলেন তিনি। এর নাম- ডার্করুম। চঞ্চলের বন্ধু নির্মাতা গোলাম সোহরাব দোদুল এটি পরিচালনা করছেন। নাটকের জনপ্রিয় পরিচালক দোদুলের সিনেমায় আত্মপ্রকাশ হয়েছে গেল বছর- সাপলুডু সিনেমা দিয়ে। কথা ছিলো সেই ছবিতেই চঞ্চল অভিনয় করবেন। তবে শিডিউলজনিত জটিলতায় তা আর হয়নি। অবশেষে দুই বন্ধু এক হয়ে ডার্করুম-এ কাজ করতে যাচ্ছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দোদুল। তবে সিনেমাটি মুক্তি পাবে কোনো একটি ওয়েব প্লাটফর্মে। আরও চমক হলো এই সিনেমায় চঞ্চলের সঙ্গে অভিনয় করবেন নন্দিত অভিনেত্রী তারিন জাহান ও লাক্স তারকা আজমেরী হক বাঁধন। রোববার (৮ নভেম্বর) সকালে এই তথ্য জানিয়ে গোলাম সোহরাব দোদুল বলেন, বেশকিছু দিন আগে ওয়েব ফিল্মটির শুটিং শেষ করেছি। প্যারাসাইকোলজি থ্রিলার গল্প নিয়ে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। বেশ দারুণ অভিনয় করেছেন চঞ্চল, তারিন ও বাঁধন। আমি প্রত্যাশা করছি দর্শক ডার্করুম উপভোগ করবেন। তিনি জানান, এ সিনেমায় ভিন্ন ভিন্ন চারটি চরিত্রে অভিনয় করবেন চঞ্চল চৌধুরী। চমক ও নতুনত্ব থাকবে তারিন-বাঁধনের চরিত্রগুলোতেও। খুব শিগগিরই ছবিটির ট্রেলার প্রকাশ হবে। আর এবারের শীতেই আসছে ডিসেম্বরে সিনেম্যাটিক অ্যাপে মুক্তি পাবে ওয়েব ফিল্মটি। প্রসঙ্গত, ডার্করুম ছাড়াও সম্প্রতি দোদুল ছক শিরোনামে একটি ৯০ মিনিটের একটি ওয়েব ফিল্ম নিমার্ণ করছেন। সেখানে জুটি হিসেবে দেখা যাবে অভিনেতা তাহসান খান ও অর্চিতা স্পর্শিয়াকে।
উচ্ছ্বসিত শার্লিন ফারজানা
০৭নভেম্বর,শনিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শার্লিন ফারজানা ২০০৮ সালে ইউ গট দ্য লুক সুন্দরী প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন। এরপর বেশকিছু বিজ্ঞাপনে কাজ করে আলোচনায় আসেন তিনি। দীর্ঘদিন কাজ করেছেন নাটকে। সম্প্রতি এই অভিনেত্রীর- ঊনপঞ্চাশ বাতাস সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে। করোনকালীন এই সময়েও তার অভিনীত এই সিনেমাটি দর্শকমহলে ভালোই সাড়া পাচ্ছে। এখন অবধি কয়েকটি হলে চলছে সিনেমাটি। দশর্কদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া পেয়ে বেশ খুশি শার্লিন। কথায় কথায় তিনি জানান, ঊনপঞ্চাশ বাতাস এবার অস্ট্রেলিয়ার কুইন্স অঙ্গরাজ্যের রাজধানী ব্রিসবেনে ২৮শে নভেম্বর মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এটাই ঊনপঞ্চাশ বাতাসর দেশের বাইরে প্রথম মুক্তি পাওয়া। অস্ট্রেলিয়ায় ছবিটি মুক্তির আয়োজন করেছে বাংলাদেশ কালচার ইন ব্রিসবেন। এ ছাড়া দেশে খুলনার লিবার্টি হল আর কক্সবাজার স্কাই মুভি থিয়েটারে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। আর এ মুহূর্তে ঊনপঞ্চাশ বাতাস চলছে স্টার সিনেপ্লেক্স বসুন্ধরা, সীমান্ত সম্ভার, মহাখালী এসকেএস সেন্টার, যমুনা ব্লকবাস্টার, নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ এবং চট্টগ্রামের সিলভারস্ক্রিনে। সবমিলিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত শার্লিন। বলেন, খুবই ভালো লাগছে ঊনপঞ্চাশ বাতাস এবার দেশের বাইরেও মুক্তি পাচ্ছে। সেখানেও সুবাতাস বইবে। অস্ট্রেলিয়ায় যারা প্রবাসী আছেন তারা এই সিনেমাটি দেখবে আশা করছি। ঊনপঞ্চাশ বাতাস ছবিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন শার্লিন ফারজানা ও ইমতিয়াজ বর্ষণ। শুটিংয়ের শুরু থেকেই আলোচনায় রয়েছে এ ছবি। এটি ছোট পর্দার নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের প্রথম সিনেমা। ২৩শে অক্টোবর মুক্তি পেয়েছে ছবিটি।
শনিবার থেকে নতুন ধারাবাহিক নাটক- ফরেন ভিলেজ
০৬নভেম্বর,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বরজাহান হোসেনের রচনায় ফরিদুল হাসানের পরিচালনায় নির্মিত হয়েছে নতুন ধারাবাহিক নাটক- ফরেন ভিলেজ। শনিবার (০৭ নভেম্বর) থেকে টেলিভিশনের পর্দায় নাটকটি প্রচার হতে যাচ্ছে। তারকাবহুল নাটকটিতে অভিনয় করেছেন মীর সাব্বির, নাদিয়া আহমেদ, চিত্রনায়িকা অরুণা বিশ্বাস, আলভী, ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর, দিলারা জামান, আরফান আহমেদ, সাজু খাদেম, ডা. এজাজ, জামিল হোসাইন, প্রাণ রায়, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, পূর্ণিমা বৃষ্টি, ফারজানা রিক্তা, আইরিন আফরোজ প্রমুখ। নাটকটির প্রসঙ্গে নির্মাতা জানান, প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রাম উজানপুরের মেয়েরা বিদেশে চাকরি করেন। স্বামীরা তাদের টাকায় দাম্ভিকতা দেখায় এবং সংসারের কাজ করেন। হাস্যরসে ভরপুর ব্যতিক্রমী জমজমাট গল্প নিয়ে নাটকের গল্প এগিয়ে যাবে। নতুন ধারাবাহিক নাটক ফরেন ভিলেজ শনিবার থেকে বাংলাভিশন টেলিভিশনে প্রচার শুরু হচ্ছে। প্রতি সপ্তাহে শনি ও রোববার রাত ০৯টা ৪৫মিনিটে এটি প্রচার হবে।
করোনা আক্রান্ত অপূর্বর জন্য জরুরি প্লাজমা প্রয়োজন
০৫নভেম্বর,বৃহস্পতিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছোটপর্দার সুপারস্টার জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। রাজধানীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তার। গতকাল বুধবার (৪ নভেম্বর) থেকে খানিকটা উন্নতি হয়েছে তার শারীরিক অবস্থার। সেজন্য চিকিৎসকরা অপূর্বকে করোনার বিশেষ নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র থেকে সাধারণ কেবিনে রেখে চিকিৎসা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে দুশ্চিন্তা এখনো কাটেনি। এই অভিনেতার জ্বর এখনো কমছে না। অপূর্বর পরিবার সুত্রে জানা গেছে, জরুরি ভিত্তিতে অপূর্বর জন্য এ পজিটিভ প্লাজমার প্রযোজন। নাট্যনির্মাতা শিহাব শাহীন বেশ কয়েকবার ফেসবুকে পরিচিতদের অনুরোধ করেছেন, করোনাজয়ী কেউ থাকলে যেন অপূর্বর জন্য এগিয়ে আসেন। সেখানে তিনি জরুরি যোগাযোগ করতে 01707991331/01730611351 নাম্বারগুলোও শেয়ার করেছেন। আরও অনেকেই ফেসবুকে অপূর্বর জন্য প্লাজমা্ চেয়ে অনুরোধ করেছেন। তবে এখন পর্যন্ত প্লাজমা পাওয়া যায়নি বলে জানা গেছে। তাই অপূর্বর পরিবার প্লাজমার জন্য এ পজিটিভ গ্রুপের করোনাজয়ীদের কাছে অনুরোধ করেছেন। প্লাজমা দিতে আগ্রহীদের অবশ্যই ঢাকার মধ্যে হতে হবে। এর আগে গত ৩ নভেম্বর রাতে জিয়াউল ফারুক অপূর্বর শরীরের অবনতি ঘটলে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সঙ্গে সঙ্গে নেওয়া হয় আইসিইউতে। তারও একদিন আগে করোনা পজেটিভ ফল হাতে পান এই অভিনেতা। জ্বরে ভুগছিলেন তিনি গত পাঁচদিন ধরে। সূত্র: জাগো নিউজ
অন্যরকম অভিজ্ঞতায় পরীমনি
০৪নভেম্বর,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চলতি মাসের প্রথমদিন থেকে শুরু হয়েছে পরীমনি অভিনীত প্রীতিলতা চলচ্চিত্রের শুটিং। ঢাকার উত্তরার পর এখন এর শুটিং চলছে নিকেতন ও পুরান ঢাকার বিভিন্ন জায়গায়। ৬ই নভেম্বর পর্যন্ত টানা শুটিংয়ে পরী অংশ নিবেন এ ছবির। এ ছবিতে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের প্রথম বিপ্লবী নারী শহীদ প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার চরিত্রে অভিনয় করছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত এই নায়িকা। পরীমনি বলেন, অনেক দিন পর শুটিং করছি। প্রীতিলতার- টিমটা চমৎকার। শুটিং করতে খুব ভালো লাগছে। তারুণ্যনির্ভর একটা টিম। আমার তো এখনই যুদ্ধ যুদ্ধ ফিল হচ্ছে। প্রীতিলতা- হওয়াটা কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়ও বটে। কারণ এটি ঐতিহাসিক একটি চরিত্র। তাই বেশ ভালো প্রস্তুতি নিতে হয়েছে। আর এই প্রস্তুতিতে সিনেমার পুরো টিমের শতভাগ সহায়তা পেয়েছি। এ চরিত্রে কাজ করতে গিয়ে অন্যরকম অভিজ্ঞতা হচ্ছে। চেষ্টা করছি শুটিংয়ে নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে কাজ করতে। প্রীতিলতার মধ্যেই যেন ডুব দিয়েছি এখন। আশা করছি খুব ভালো কিছু হবে। গোলাম রাব্বানীর চিত্রনাট্য ও সংলাপে ছবিটি পরিচালনা করছেন রাশিদ পলাশ। নির্মাতা রাশিদ পলাশ বলেন, প্রথম লটটা আমরা ঢাকাতেই শুট করবো। এরপর চট্টগ্রামে চলে যাবো। সেখানেই আমাদের মূল কাজ হবে। ইউফরসির ব্যানারে নির্মিত এ চলচ্চিত্রের কসটিউম ডিজাইনার হিসেবে কাজ করছেন বিবি রাসেল। এ ছবিতে গান করেছেন কলকাতার প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী কবির সুমন।
৪৭ বছরে পা রাখলেন ঢাকাই সিনেমার প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী
০৩নভেম্বর,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঢাকাই সিনেমার উজ্জ্বল নক্ষত্র তিনি। বহুমাত্রিক চরিত্রে তিনি আলো ছড়িয়েছেন রুপালি পর্দায়। সেই ১৯৯৪ সালে তার যাত্রা সালমান শাহের বিপরীতে- কেয়ামত থেকে কেয়ামত ছবি দিয়ে। প্রথম ছবিই তাকে তারকাখ্যাতি এনে দিয়েছিলো। এরপর দিনে দিনে কেবল নিজেকেই যেন ছাড়িয়ে গেছেন তিনি। তিনি ঢাকাই সিনেমার প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী। আজ ঢালিউডের নন্দিত এ অভিনেত্রী জন্মদিন। এবারে তিনি ৪৭ বছরে পা রাখলেন। এবারের জন্মদিনটা বেশ বিষাদের। স্বামী ওমর সানী, দুই সন্তান ফারদিন ও ফাইজা কাছে থাকলেও তার মা কাছে নেই। প্রতি বছর মাকে নিয়ে জীবনের নতুন বছর শুরু করেন তিনি। এবার সে সুযোগ হয়নি। তাই অনেক আনন্দের মাঝে মায়ের জন্যও মন খারাপ এ নায়িকার। এদিকে মৌসুমী ফ্যান ক্লাব এবং ওমর সানী ফ্যান ক্লাব আলাদাভাবে দিনটি বিশেষভাবে উদযাপন করবে বলে জানান মৌসুমী। করোনার কারণে দীর্ঘদিন অভিনয় থেকে দূরে ছিলেন। সম্প্রতি ফিরেছেন মির্জা রাকিব রচিত ও তারেক সিকদার পরিচালিত- ভক্ত নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে। এখানে মৌসুমীকে একজন চলচ্চিত্রের মানুষ হিসেবেই দেখা যাবে। প্রসঙ্গত, মৌসুমী নামে খ্যাত হলেও নায়িকার পুরো নাম আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী। ১৯৭৩ সালে আজকের দিনে খুলনা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি। ১৯৯৩ সালে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত- কেয়ামত থেকে কেয়ামত সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হন। সেই ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৯৪ সালে। দীর্ঘ ক্যারিয়ার সালমানকে দিয়ে শুরু করেছিলেন মৌসুমী। এরপর ওমর সানী, ইলিয়াস কাঞ্চন, বাপ্পারাজ, জাহিদ হাসান, অমিত হাসান, রুবেল, মান্না, আমিন খান, ফেরদৌস, রিয়াজ, শাকিল খান ও শাকিব খানসহ ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় সব নায়কদের বিপরীতে কাজ করে সাফল্য পেয়েছেন। সিনেমার পাশাপাশি টিভি নাটক ও বিজ্ঞাপনেও সফল নাম মৌসুমী। অভিনয়ের পাশাপাশি একজন নির্মাতা হিসেবেও আত্মপ্রকাশ ঘটেছে মৌসুমীর। নির্মাণেও তিনি নিজের নামের সৌরভ ছড়িয়েছেন। একজীবনে অনেক পুরস্কার ও স্বীকৃতি তিনি অর্জন করেছেন। কোটি মানুষের ভালোবাসা তার কাছে সবচেয়ে বড় অর্জন বলে মনে হয়। আর রাষ্ট্র তাকে কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করেছে। মৌসুমী- মেঘলা আকাশ সিনেমার জন্য ২০০১ সালে প্রথম এই পুরস্কার হাতে নেন। এরপর ২০১৩ সালে দেবদাস ও ২০১৪ সালে তারকাঁটা ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতে নেন। নানারকম সামাজিক কার্যক্রমে জড়িত হতে দেখা যায় তাকে। তিনি পরিচালনা করেন - মৌসুমী ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন। এর মাধ্যমে থেকে বঞ্চিত মানুষ ও শিশুদের উন্নয়নে নানা ভূমিকা পালন করেন প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী। ইউনিসেফের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করছেন ২০১৩ সাল থেকে।
৫৫ বছরে পা রাখলেন বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খান
০২নভেম্বর,সোমবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কী অদ্ভূত রোমাঞ্চকর এক জীবন! অনিশ্চিত ভবিষ্যতের পথে যাত্রা করে শূন্য হাতে পা রেখেছিলেন বিশ্বের অন্যতম শহর মুম্বাইয়ে। কীভাবে হবে রুটি রুজির ব্যবস্থা, সেটাও জানা নেই। দু চোখ ভরা স্বপ্ন নিয়ে এসেছিলেন। কে জানতো সেই ছটফটে যুবক বুকের গভীরে লুকিয়ে জিদকে হাতিয়ার বানিয়ে একদিন এতোটা সফল হয়ে উঠবেন। বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়বে তার নাম। লোকে তাকে ডাকবে বলিউড বাদশাহ বলে, কিং খান বলে। কিংবা প্রেমপাগল দর্শকের মনে তিনিই হয়ে উঠবেন রোমান্সের রাজা। তিনি শাহরুখ খান! জিরো থেকে হিরো হয়ে উঠা শক্তিমান বলিউড অভিনেতার নাম শাহরুখ। যে জীবনের উত্থানের পরতে পরতে আছে সংগ্রাম, অবর্ণনীয় যাতনার গল্প। সেসব বিভিন্ন সময় নিজেই বলেছেন শাহরুখ। সঙ্গত কারণেই বলিউডে প্রেরণা যোগানো নায়কদের মধ্যে অন্যতম হিন্দি সিনেমার রঙিন দেবদাস। আজ আর ৫৫তম জন্মদিন। ১৯৬৫ সালের ২ নভেম্বর ভারতের নয়া দিল্লিতে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন শাহরুখ। তার বাবা তাজ মোহাম্মদ খান। মা লতিফ ফাতিমা। হংসরাজ কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করে শাহরুখ ভর্তি হন জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়ায় গণযোগাযোগ বিষয়ে। কিন্তু অভিনয় জীবন শুরুর লক্ষ্যে ছেড়ে দেন প্রতিষ্ঠানটি। অভিনয় পাঠগ্রহণ করেন দিল্লির ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামাতে। কিং খানের জন্মদিন মানেই কোটি কোটি ভক্তদের উৎসব। মাস খানেক আগে থেকেই তার ভক্তরা প্রিয় নায়কের জন্মদিন উদযাপনের ডাক দেন, হাজির হন শাহরুখের বাড়ির সামনে। দেশে দেশে এ অভিনেতার ভক্তরা দলবেঁধে কেক কাটেন, প্রিয় তারকার ছবি দেখেন। যেন ২ নভেম্বর মানেই শাহরুখ খান দিবস! এবারেও জন্মদিনের উৎসব চলছে। তবে করোনার কারণে তা হচ্ছে ভার্চুয়ালি। ১ নভেম্বর দিন শেষে রাতের ঘড়ির কাটায় ১২টা বাজতেই শুরু হয়ে গেছে জন্মদিনের শুভেচ্ছা পাওয়া। গতরাত থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ছেয়ে গেছে এসআরকে-কে পাঠানো জন্মদিনের শুভেচ্ছায়। তাকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন বলিউডের সহকর্মীরাও। সে তালিকায় রয়েছে তার পরিচালক, প্রযোজক, নায়িকারাও। অভিনেতা হিসেবে কিং খানের পথচলার শুরু ১৯৮৯ সাল থেকে। ফৌজি টিভি সিরিজ দিয়ে শুরু হওয়া এই যাত্রায় আরও কয়েকটি টিভি ধারাবাহিকে কাজের মাধ্যমে অভিজ্ঞতা অর্জন করেন তিনি। বলিউডে তার অভিষেক হয় ১৯৯২ সালে দিওয়ানা ছবির হাত ধরে। আর তাতেই কেল্লা ফতেহ! এ ছবিতে তার দুর্দান্ত কাজের জন্য অর্জন করেন সেরা নবাগত অভিনেতা হিসেবে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার। চমৎকার, দিল আসনা হে ও রাজু বান গেয়া জেন্টলম্যান এর মতো ছবিতে অভিনয় করে সকলের নজর কাড়েন তিনি। ঠিক তার পরের বছরই ডর ও বাজিগর ছবিতে নিজের অভিনয়ের জাদু দিয়ে সবাই মুগ্ধ করে ঘর করে নেন দর্শকের মনে, পৌঁছে যান সাফল্যের চুড়ায়। তার অভিনয়ের খ্যাতি আরও বাড়তে থাকে যশরাজ ফিল্মসের ছবিতে ধারাবাহিকভাবে অভিনয় করে। একের পর এক হিট ছবি দিয়ে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে অবস্থান করেন শাহরুখ। করন অর্জুন, দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে, ইয়েস বস, পারদেশ, দিল তো পাগল হ্যায়, ডুপ্লিকেট, দিল সে, মোহাব্বাতে, অশোকা, কাভি খুশি কাভি গাম, দেবদাস, ডন, ডন-২, রাব নে বানাদি জোরি, জাব তাক হে জান, চেন্নাই এক্সপ্রেস, রইস প্রভৃতি ছবির মধ্য দিয়ে অভিনেতা হিসেবে নিজেকে অন্যরকম উচ্চতায় নিয়ে গেছেন শাহরুখ। আর দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে, কুচ কুচ হোতা হ্যায়, দিল তো পাগল হ্যায়, কয়লা, বাজিগর, বাদশাহ, ডর, দেবদাস, চাক দে ইন্ডিয়া, মাই নেইম ইজ খানর মতো মুভিতে তার অনন্যসাধারণ অভিনয় বিশ্বব্যাপী তাকে তুমুল জনপ্রিয়তা দিয়েছে। প্রায় তিন দশকের ক্যারিয়ারে মোট ১৪ বার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন শাহরুখ। তার মধ্যে আটবার সেরা অভিনেতার। ২০০২ সালে তাকে পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করে ভারত সরকার। এ ছাড়া বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সম্মানসূচক ডক্টরেট ডিগ্রি গ্রহণ করেন মোট পাঁচবার। ব্যক্তি জীবনে তিন সন্তানের জনক শাহরুখ খান। স্ত্রী গৌরি খানের সঙ্গে মাত্র ১৮ বছরের বয়সে দেখা হয় শাহরুখের। তারপর চার বছরের সম্পর্কে থাকার পর ১৯৯১ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। এদিকে গেল কয়েকটা বছর তিনি নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি। তার ফ্যান, জিরো ছবিগুলো আশানুরূপ সাড়া পায়নি। যার ফলে প্রায় দুই বছর স্বেচ্ছা নির্বাসনে নিলেন তিনি৷ নিয়মিত ছিলেন শুধু প্রযোজনা ও ক্রিকেটের দল নিয়ে। নানারকম সামাজিক কর্মকান্ডেও নিজেকে নিবেদিত করে রেখেছেন বাদশাহ। তবে ভক্তদের জন্য আশার খবর হলো বিরতি ভেঙে প্রায় চারটি সিনেমা নিয়ে ফিরছেন কিং খান। সবার প্রত্যাশা বিগ বাজেটের এসব ছবি দিয়ে আবারও হারানো রাজত্ব ফিরে পাবেন শাহরুখ খান।