DHAKA, 20 September 2017

ইউনিজয় ফনেটিক
সীমান্তে আরো ৫০ রোহিঙ্গা আটক
মিল্টন চত্রুবর্তী

2017-09-05

Share This News -

কক্সবাজার ও টেকনাফ থেকে আরো ৫০ জন রোহিঙ্গাকে আটক করে বিজিবির কাছে হস্তান্তর করেছে র‌্যাব। এখনো সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্টে অপেক্ষা করছে হাজারো রোহিঙ্গা এদিকে, রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের ওপর সহিংসতা বন্ধে মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহবান জানিয়েছে আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া ও পাকিস্তান। এদিকে, রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারের সাথে অর্থনৈতিক সম্পর্ক ছিন্নের ঘোষণা দিয়েছে মালদ্বীপ। মিয়ানমারে সেনা অভিযান ও নির্যাতনের মুখে গত ১০ দিনে ৯০ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেছে। জাতিসংঘ ও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংস্থার বরাতে রয়টার্স জানিয়েছে-এ সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে। বান্দরবানের সীমান্ত ঘেঁষা মিয়ানমারের অন্তত আটটি গ্রামে গতকালও আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। নাফ নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে আরো এক রোহিঙ্গার লাশ। এদিকে, রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধে অং সান সু চি’র প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শান্তিতে নোবেল জয়ী মালালা ইউসুফজাই। জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগ সত্ত্বেও, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অভিযান ও নির্যাতন থামছে না। প্রতিদিনই নির্যাতিত রোহিঙ্গারা পালিয়ে আসছে বাংলাদেশ সীমান্তে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ২৫ আগষ্ট রাখাইনে কয়েকটি নিরাপত্তা চৌকিতে হামলার পর সেখানে অভিযান শুরু করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। এ অভিযানে এ পর্যন্ত পাঁচ শতাধিক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। প্রাণ বাঁচাতে গত ১০ দিনে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে ঢুকে পড়েছে ৯০ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা। বান্দরবনের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্তের ওপারে অন্তত ৮টি গ্রামে কয়েকদফা গোলাগুলির পর আগুন জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা। সীমান্ত থেকেই দেখা যাচ্ছে আগুন ও ধোঁয়ার কুন্ডলি। বান্দরবানের ঘুমধুম সীমান্তের জিরো পয়েন্ট এলাকায় মিয়ানমার বাহিনী আবারো গুলি করেছে বলে জানান স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান। সমুদ্র পথে সেন্টমার্টিনে এসে বিভিন্ন বাড়িতে আশ্রয় নেয়া ২ হাজার ১১ জন রোহিঙ্গাকে রোববার আটক করেছে কোষ্টগার্ড। আর শাহপরীর দ্বীপ থেকে আটক করা হয় ১৬৪ জনকে। জব্দ করা হয় রোহিঙ্গা বোঝাই ৯টি নৌকা। এদিকে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতন বন্ধ ও তাদের নাগরিকত্ব দিতে মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা অং সান সূ’চির প্রতি আহবান জানিয়েছে শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাই। অন্যদিকে, রাখাইনে জাতিসংঘের ত্রাণ কার্যক্রম আটকে দিয়েছে মিয়ানমার। পাশপাশি অঞ্চলটিতে প্রবেশেও কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। নিউজ একাত্তর ডট কম/৫.৯.২০১৭/ সালমা আক্তার

বাংলাদেশ