প্রকাশ : 2018-03-18

৩ হাজার প্রাথমিক শিক্ষকের গেজেট তৃতীয় ধাপে প্রকাশ

দীর্ঘ অপেক্ষার পর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক জাতীয়করণের তৃতীয় ধাপের গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে। এ ধাপে প্রায় ৩ হাজার শিক্ষকের তালিকা রয়েছে। রোবাবার এ গেজেট প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। জানা গেছে, প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে জাতীয়করণের দুই বছর পর এবার তৃতীয় ধাপে বিভিন্ন জেলার ৫৩৩টি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষকদের জাতীয়করণ করা হয়েছে। তালিকাভুক্ত প্রতিটি স্কুলে একজন প্রধান শিক্ষক ও চারজন সহকারী শিক্ষকের পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। সে অনুযায়ী তৃতীয় ধাপে মোট ২ হাজার ৬৬৫ জন শিক্ষকে জাতীয়করণ করা হবে। রোববার এ গেজেট প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। তবে স্বাক্ষর না হওয়ায় গেজেটে ঢাকা অঞ্চলের শিক্ষকদের তালিকা অন্তর্ভুক্ত করা সম্ভব হয়নি। তৃতীয় ধাপের গেজেটে বাকি সাত অঞ্চলের শিক্ষকদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। জানা গেছে, জাতীয়করণকৃত প্রতিটি বিদ্যালয়ে চারজন করে সহকারী শিক্ষককে সরাসরি নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। প্রধান শিক্ষকের পদ সৃজন করা হয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী বাংলাদেশ কর্ম কমিশনের (পিএসসি) সুপারিশে ৪০ শতাংশ এবং জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে ৬০ জন প্রধান শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। গত বছরের ২৯ এপ্রিল তালিকাভুক্ত শিক্ষকদের খসড়া গেজেট প্রকাশ করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এর ওপর ভিত্তি করেই গেজেট চূড়ান্ত করা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. এ এফ এম মনজুর কাদির বলেন, আজ রোববার জাতীয়করণের তৃতীয় ধাপের শিক্ষকদের গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে। এতে বিভিন্ন পর্যায়ে ৮৩২টি বিদ্যালয় রয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ছুটিতে থাকায় গেজেটে ঢাকা অঞ্চলের তালিকা প্রকাশ করা সম্ভব হয়নি। সোমবার ঢাকা অঞ্চলের শিক্ষদের তালিকা প্রকাশ করা হতে পারে বলে তিনি জানান। তথ্যমতে, ২০১৩ সালে ২৬ হাজার ১৯৩টি বিদ্যালয়ের ১ লাখ ৩ হাজার ৮৪৫ শিক্ষকের চাকরি তিন ধাপে জাতীয়করণের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এর মধ্যে প্রথম ধাপে ২২ হাজার ৯২১, দ্বিতীয় ধাপে ১ হাজার ৭১৯টি বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালের ৯ জানুয়ারি রাজধানীর প্যারেড গ্রাউন্ডে আয়োজিত শিক্ষক মহাসমাবেশে ২৬ হাজার ১৯৩ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণের ঘোষণা দেন।