প্রকাশ : 2018-03-22

কলকাতা-বরিশালের বাস পরিষেবা শুরু হচ্ছে খুব শিগগিরই

খুব শিগগিরই কলকাতার সঙ্গে সরাসরি বরিশালের বাস পরিষেবা শুরু হচ্ছে। কলকাতা-বরিশালের পর কলকাতা-চট্টগ্রামের আরো একটা নতুন রুটের দরপত্রও ছাড়া হয়ে গিয়েছে। চলতি বছরে কলকাতা-বরিশাল-কলকাতা রুটের বাস চলতে পারে। তবে পদ্মা সেতু উদ্বোধন হলে চলবে চট্টগ্রাম-কলকাতা-চট্টগ্রাম রুটের বাস। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, বুধবার কলকাতার ইকো-পার্ক গেষ্ট হাউজে নতুন এই রুট নিয়ে দুই দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়। সেখানে কলকাতা-বরিশাল-কলকাতা রুটের বাস চলাচলে রাজ্য সরকারের সবুজ সংকেত পাওয়া যায়। পশ্চিমবঙ্গ সরকার বিষয়টি দিল্লিকে আনুষ্ঠানিকভাবেও জানায়। ওই বৈঠকে বাংলাদেশ সরকারের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন। দিল্লি ও ঢাকার মধ্যে খুব শিগগির বিষয়টি নিয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়ে যেতে পারে। এর আগে রাজ্যের পরিবহন সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশ বন্ধু দেশ। ইতিমধ্যেই দেশটির সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সড়কপথ, আকাশ পথ, রেল পথের যোগাযোগ আগের যে কোনও সময়ের তুলনায় বেড়েছে। আগামীতে জল পথেও যোগাযোগ বাড়ানোর পরিকল্পনা আছে। কলকাতা-বরিশাল রুটের যাত্রীপরিবহন করবে শ্যামলী যাত্রী পরিবহন। সংস্থাটির কর্ণধার অবণী ঘোষ জানিয়েছেন, বুধবারের বৈঠকে বাংলাদেশের বিআরটিসির চেয়ারম্যান, সচিব ছাড়াও বিজিবি এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিরাও উপস্থিত ছিলেন। দিল্লির পরিবহন মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তা এবং পশ্চিমবঙ্গ পরিবহন দফতরের কর্মকর্তারাও বৈঠকে ইতিবাচক আলোচনা করেন। আগামী অক্টোবর-নভেম্বর মাসে ঢাকায় ত্রিপাক্ষিক বৈঠকে নতুন রুট কলকাতা-বরিশাল-কলকাতা চুড়ান্ত হবে। তিনি আরো জানান, পদ্মসেতুর উদ্বোধন হলেই কলকাতা-চট্টগ্রাম-কলকাতা রুটের বাসও শুরু হবে। ইতিমধ্যে এই বিষয়ে দরপত্রও আহবান করা হয়েছে। কলকাতা-ঢাকা-কলকাতা, কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা-কলকাতা এবং কলকাতা-খুলনা-ঢাকা-কলকাতা এই মোট চারটি আন্তর্জাতিক রুটে এই মুহুর্তে বাস চলাচল করছে।