মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৮
প্রকাশ : 2018-03-28

ভাগ্যে কী হতে যাচ্ছে আজ স্মিথদের

স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপ টাউন টেস্টের তৃতীয় দিনে বল টেম্পারিংয়ে ধরা পড়েন অস্ট্রেলিয়ান খেলোয়াড় ক্যামেরন ব্যানক্রফট। পরে অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ জানান টেম্পারিং পরিকল্পিতভাবেই করা হয়েছে। এরপর থেকেই ঝড় চলছে ক্রিকেট বিশ্বে। ইতিমধ্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা (আইসিসি) ব্যানক্রফট ও স্মিথকে শাস্তিও দিয়েছে। তবে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) নিজেদের আইন অনুযায়ী শাস্তি দিতে চায় জড়িতদের। তাই সংস্থাটির ইন্টেগ্রিটি প্রধান ইয়ান রয়ের নেতৃত্বে তদন্ত শুরু হয় ঘটনার পরের দিন। আর এ তদন্তের রিপোর্ট প্রকাশ করার কথা রয়েছে আজ। বল টেম্পারিংয়ের স্বীকারোক্তির পরই রয় ও সিএর সভাপতি ডেভিড পিভার চলে যান দক্ষিণ আফ্রিকায়। খোদ অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল এ বিষয়ে নিষ্পত্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে বলেছেন সিএকে। এর আগে দেশটির স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশন স্মিথকে অধিনায়কত্ব থেকে সরানোর আহ্বান জানায় সিএকে। অবশ্য সোমবারই স্মিথকে অজি দলের অধিনায়কত্ব থেকে এবং ডেভিড ওয়ার্নারকে সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরানো হয়। রয় সোমবার থেকেই টিম হোটেলে খেলোয়াড়দের সাক্ষাৎকার নিচ্ছেন। এর আগে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার্স অ্যাসোসিয়েশনের (এসিএ) প্রধান নির্বাহী অ্যালিস্টার নিকোলসন দুজন আইনজীবীকে নিয়ে খেলোয়াড়দের সঙ্গে কথা বলেন। সিরিজের শেষ টেস্ট খেলতে গতকাল রাতে জোহানেসবার্গের উদ্দেশ্যে কেপটাউন ছেড়েছে অজি ক্রিকেট দল। শুক্রবার এ টেস্ট শুরু হওয়ার আগেই সেখানে যোগদান করবেন সিএর প্রধান নির্বাহী জেমস সাদারল্যান্ড। তিনি রয়ের অনুসন্ধানে পাওয়া ফলাফল ঘোষণা করবেন। আইসিসি ইতিমধ্যে স্মিথকে এক টেস্টের জন্য নিষিদ্ধ এবং ম্যাচ ফির পুরোটা জরিমানা করেছে। ব্যানক্রফটকে ম্যাচ ফির শতকরা ৭৫ শতাংশ জরিমানার পাশাপাশি ৩টি ডিমেরিট পয়েন্ট দেয়া হয়েছে। এরপরও দক্ষিণ আফ্রিকায় সাদারল্যান্ডের আগমন প্রমাণ করে সিএ নিজেদের বিধান অনুযায়ী জড়িতদের শাস্তি দিতে চায়। পদ ছাড়ছেন লেহম্যান! ২০১৩তে ইংল্যান্ডে অ্যাশেজ সিরিজ শুরু হওয়ার আগে অস্ট্রেলিয়া দলে বিশৃঙ্খলার এক ঘটনা ঘটেছিলো। এ ঘটনার রেশ ধরে তৎকালীন কোচ মিকি আর্থারকে অপসারণ করে দায়িত্ব দেয়া হয় বর্তমান কোচ ড্যারেন লেহম্যানকে। এবার বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় লেহম্যান কোচের দায়িত্ব ছাড়ছেন বলে গুঞ্জন ওঠে ক্রিকেট বিশ্বে। গতকাল ইংল্যান্ডের সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান জানায়, যে কোনো সময় অস্ট্রেলিয়ার কোচের দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন লেহম্যান। এছাড়া অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ, সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার, ক্যামেরন ব্যানক্রফটসহ টেম্পারিংয়ে যুক্ত সব খেলোয়াড়ই ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) শাস্তির মুখে পড়বেন। শনিবার স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে কেপটাউনে তৃতীয় টেস্টের তৃতীয় দিনে বল টেম্পারিং চেষ্টায় ধরা পড়েন ব্যানক্রফট। পরবর্তীতে স্মিথ দায় স্বীকার করে নেন। যদিও তিনি বলেছিলেন এই ঘটনায় কোচ লেহম্যানের কোনো হাত ছিল না। অবশ্য লেহম্যানের বিকল্প হিসেবে সাবেক অজি ক্রিকেটার জাস্টিন ল্যাঙ্গারকে কোচ হিসেবে ভেবে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। তবে স্মিথকে চিরতরে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে নিষিদ্ধ করা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।