প্রকাশ : 2020-10-24

নগরীর ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড় থেকে সরে যেতে জেলা প্রশাসনের মাইকিং

২৩,অক্টোবর,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: নগরীর ঝুঁকিপূর্ণ ১৭টি পাহাড় ও বায়েজিদ-ফৌজদারহাট সিডিএ লিংক রোড এলাকায় করোনাকালীন সময়ে নতুন ঝুঁকিপূর্ণ ১৬টি পাহাড়ে মাইকিং কার্যক্রম পরিচালনা করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন। শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) বেলা ২টা ৩০ মিনিট থেকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে পাহাড়ের ঝুঁকিপূর্ণ স্থাপনা থেকে লোকজনকে অপসারণ অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় কাট্টলী সার্কেলাধীন ফয়েজ লেক সংলগ্ন ঝিল-১, ২ ও ৩ নম্বর এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়ি বসতি থেকে অপসারণকৃত ১০০টি পরিবারের মধ্যে ৩০টি পরিবারকে ফিরোজ শাহ পি-ব্লক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের আশ্রয় কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। অভিযানে আকবর শাহ থানা পুলিশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, ফয়েজ লেক এলাকার চারদিকের পাহাড়ি জমিতে স্থানীয়রা অপদখল চালায়। নজরদারির ঘাটতির কারণে ঝিল এলাকায় পাহাড়ি জমি কেটে অবৈধ ও ঝুঁকিপূর্ণ স্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছে। ঝিল এলাকায় বিভিন্ন স্বনামধন্য এনজিও সংস্থা কাজ করছে। ঝুঁকিপূর্ণ পাহাড়েই এনজিওর অঅর্থায়নে নানা প্রকল্প বাস্তবায়িত হচ্ছে। নির্মাণ করা হয়েছে ঘর, স্কুল ও স্যানিটারি টয়লেট। জেলা প্রশাসনের পরিদর্শনের সময় স্থানীয়রা জানান, ঝিল এলাকায় জাইকার অর্থায়নে ওয়াসার পক্ষ থেকে সুউচ্চ পাহাড়ি এলাকায় সুপেয় পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর