প্রকাশ : 2021-01-02

ভ্যাকসিন নষ্ট করার অভিযোগে মার্কিন ফার্মাসিস্ট গ্রেফতার

০২,জানুয়ারী,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাস ভ্যাকসিনের ৫০০ ডোজ নষ্ট করার অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিন অঙ্গরাজ্যের এক ফার্মাসিস্টকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ইচ্ছাকৃতভাবে নষ্ট করার উদ্দেশ্যে তিনি ডোজগুলো হিমাগার থেকে সরিয়ে ফেলেন বলে ধারণা করছে পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। খবর রয়টার্সের। গত সপ্তাহে গ্র্যাফটনের অরোরা মেডিক্যাল সেন্টার থেকে ভ্যাকসিনের ৫৭টি শিশি হিমাগারের বাইরে পাওয়া গেলে ওই ফার্মাসিস্টকে বরখাস্ত করা হয়। তবে তার পরিচয় জনসম্মুখে প্রকাশ করা হয়নি। প্রতিটি শিশিতে ১০ ডোজ করে ভ্যাকসিন ছিল। ভ্যাকসিনগুলো হিমাগার থেকে বের করে রাখার বিষয়টি জানতে পারার আগে ৬০ ডোজ ভ্যাকসিন বিভিন্ন ব্যক্তিদের প্রদান করা হয়েছিল। জানতে পারার পর বাকি ৫০০ ডোজ ভ্যাকসিন ফেলে দিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। অরোরা হেলথ কেয়ার মেডিক্যাল গ্রুপের প্রেসিডেন্ট চিকিৎসক জেফ বার জানিয়েছেন, ভ্যাকসিনগুলোর প্রস্তুতকারী মডার্না ইনকর্পোরেশন হাসপাতালকে নিশ্চিত করেছে যে হিমাগারের বাইরে রাখার ফলে গ্রহণকারীরা কোভিড-১৯ থেকে সুরক্ষা না পাওয়া ছাড়া আর কোনো ঝুঁকি নেই। ভ্যাকসিন নষ্ট করার উদ্দেশ্য কী হতে পারে তা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বা আইন প্রয়োগকারী সংস্থা নিশ্চিত করতে পারেনি। যারা অকার্যকর ডোজগুলো নিয়েছেন তাদের আবার ভ্যাকসিন নেয়ার জন্য জানানো হয়েছে। এই ঘটনার ফলে ডোজগুলো গ্রহণকারী ৫৭০ জন ব্যক্তির ভাইরাসের বিরুদ্ধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে উঠতে কিছু দেরি হবে। বৃহস্পতিবার এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে জেফ বার বলেছেন, ওই ফার্মাসিস্ট ভ্যাকসিনগুলো হিমাগার থেকে বাইরে রাখা ছাড়া সেগুলোতে আর কিছু করেছেন অথবা অন্য ডোজগুলোর কোনো ক্ষতি করেছেন এমন কোনো প্রমাণ তারা পাননি। হাসপাতালের কর্মকর্তারা জানান, গত সপ্তাহের রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) ওই ফার্মাসিস্টকে যখন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তখন তাৎক্ষণিক জবাবে তিনি বলেন এটি একটি অনিচ্ছাকৃত ভুল। কিন্তু আরও অনুসন্ধান করা হলে বুধবার তিনি স্বীকার করেন, ইচ্ছাকৃতভাবেই হিমাগার থেকে ভ্যাকসিন সরিয়েছেন। পুলিশ জানিয়েছে, মিলওয়াকি শহরের গ্র্যাফটনের বাসিন্দা ওই ফার্মাসিস্টকে বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করে ওজওয়াকি কাউন্টি কারাগারে পাঠানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বেপরোয়াভাবে নিরাপত্তায় হুমকি তৈরি, প্রেসক্রিপশন ওষুধে ভেজাল দেয়া ও সম্পত্তিতে নাশকতা তৈরির গুরুতর অভিযোগ আনা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর