প্রকাশ : 2018-04-16

শাহবাগ চত্বরে ২৪ এপ্রিল মুক্তিযোদ্ধা মহাসমাবেশ

জাতীয় অস্তিত্ব রক্ষা, স্বাধীনতা, স্বার্বভৌমত্ব ও স্থিতিশীলতার বিরুদ্ধে সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করার লক্ষ্যে আগামী ২৪ এপ্রিল (মঙ্গলবার) রাজধানীর শাহবাগে মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধারা। সোমবার (১৬ এপ্রিল) জাতীয় প্রেসক্লাবে মুক্তিযোদ্ধা মহাসমাবেশ বাস্তবায়ন পরিষদ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা এ ঘোষণা দেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আবদুল আহাদ চৌধুরী। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, কোটা সংস্কারের নামে স্বাধীনতা বিরোধীদের এজেন্টরা ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। তারা আন্দোলনের নামে মুক্তিযুদ্ধ ও জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের অপমান করেছে। আবদুল আহাদ চৌধুরী বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীরা যে ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে এমন পরিস্থিতিতে দেশপ্রেমিক মুক্তিযোদ্ধারা চুপচাপ বসে থাকতে পারে না। স্বাধীনতাবিরোধীদের এই হীন চক্রান্তকে প্রতিহত করা এখন ঐতিহাসিকভাবে প্রয়োজন এবং তা সময়ের দাবিতে পরিণত হয়েছে। সকল মুক্তিযোদ্ধা এবং তাদের সন্তানদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এই পরিস্থিতিতে কোনো দ্বিধা-দ্বন্দ্ব নয়, কোনো বিভাজন নয়, কোনো নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা নয়। সব মুক্তিযোদ্ধা, তাদের সন্তান এবং দেশপ্রেমিক জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই চক্রান্তকে প্রতিহত করতে হবে। আগামী ২৪ এপ্রিল ( মঙ্গলবার) দুপুর ২টায় শাহবাগ চত্বরে মুক্তিযোদ্ধা মহাসমাবেশে প্রিয় স্বাধীনতার বিরুদ্ধে সব ষড়যন্ত্র প্রতিহত করার লক্ষ্যে কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলে তিনি জানান। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা মহাসমাবেশ বাস্তবায়ন পরিষদের সদস্যসচিব মো. মিনহাজুর রহমান, আবদুস সালাম মজুমদার, সেলিম চৌধুরী প্রমুখ। এদিকে শ্রমিক কর্মচারি পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম সমন্বয় পরিষদ আহুত ৩০ এপ্রিল মহাসমাবেশ ও ২২ এপ্রিলের মুক্তিযোদ্ধা প্রতিনিধি সভা স্থগিত করা হয়েছে। সমন্বয় পরিষদের আহ্বায়ক ও নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান স্বাক্ষরিত পরিষদের সোমবার (১৬ এপ্রিল) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। তবে সমন্বয় পরিষদের ১৮ এপ্রিল (বুধবার) প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারক লিপি দেয়ার কর্মসূচি বহাল রয়েছে।

রাজনীতি পাতার আরো খবর