প্রকাশ : 2018-05-27

শিক্ষার্থীদের উপর বেশি চাপ পড়ছে বলে আমরা চাপ কমানোর উদ্যোগ নিয়েছি

ছাত্রছাত্রীদের ওপর চাপ কমাতে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষার নম্বর ও বিষয় কমানো হবে কি না আগামী ৩১ মে সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে সরকার। রোববার জাতীয় শিক্ষাক্রম সমন্বয় কমিটির (এনসিসিসি) সভা শেষে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এ সভা হয়। এনসিসিসির সভায় এদিন কোনো সিদ্ধান্ত না হলেও শিক্ষার্থীদের ওপর থেকে চাপ কমাতে জেএসসি-জেডিসির বিষয় ও নম্বর কমনোর পক্ষেই সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে ইঙ্গিত দেন সচিব। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের উপর বেশি চাপ পড়ছে বলে আমরা চাপ কমানোর উদ্যোগ নিয়েছি। আপাতত কিছু বিষয় কমানো যায় কি না... কমালে এ বছর থেকেই বাস্তবায়ন করব। এ বছর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় এমসিকিউ থাকবে বলে জানান মো. সোহরাব হোসাইন। বিষয় কমানো কেমন হবে, তারও একটা ধারণা দেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভগের সচিব। তিনি বলেন, এমন হতে পারে যে সিলেবাসের পুরোটাই থাকবে, কিন্তু এক বছর এক অংশ থাকবে, পরের বছর অপর অংশ। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইনের সভাপতিত্বে এনসিসিসির সভা হয়। পাঠ্যবই, কারিকুলাম ও সিলেবাস এবং পাবলিক পরীক্ষায় যেকোনো পরিবর্তন ও পরিবর্ধনের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেওয়ার এখতিয়ার আছে এনসিসিসির। পদাধিকার বলে শিক্ষা সচিব এ কমিটির সভাপতি। সভায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান ও সদস্য (শিক্ষাক্রম) এবং মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবং সব শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অংশ নেন।