প্রকাশ : 2018-05-30

সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে :সেতুমন্ত্রী

বিএনপি খালেদা জিয়াকে ছাড়া নির্বাচনে না এলেও নির্বাচন থেমে থাকবে না, সংবিধান অনুযায়ী স্বাভাবিক নিয়মেই নির্বাচন হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, শক্তি কম গেছে বলে বিএনপি নেতারা সরকারের ‘উগ্র’ সমালোচনায় নেমেছেন। মানুষের শক্তি যখন কমে আসে তখন মুখের বিষটা ততই উগ্র হয়ে আসে। এটা শরৎচন্দ্রের ভাষা। বিএনপির ক্ষেত্রে এটা একেবারেই সত্য। ঈদ-উল-ফিতরকে সামনে রেখে বুধবার দুপুরে উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল থেকে ঢাকার প্রবেশদ্বার গাবতলীতে আকস্মিক পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। কাদের বলেন, জাতীয় নির্বাচনের আর মাত্র ৪-৫ মাস বাঁকি। এই সময়ে বিএনপি কীভাবে নির্বাচনে আসবে এটা তাদের বিষয়। তাছাড়া, খালেদা জিয়াকে সরকার জেলে পাঠায়নি, আলাদত পাঠিয়েছেন। খালেদা কারাগারে থাকবেন নাকি বাইরে থাকবেন এটা আদালতের বিষয়। তিনি ছাড়া বিএনপি নির্বাচনে না এলে সরকার তাদের জোর-জবরদস্তি করে নির্বাচনে আনবে না। কাদের আরো বলেন, বেগম জিয়া জেলে থাকলে তারা নির্বাচন করবে কি করবে না, এটা তাদের সিদ্ধান্তের ব্যাপার। আর বেগম জিয়া জেল থেকে বের হবে কি না, সেটা আদালতের ব্যপার। এখানে সরকারের কোনো দায় নেই, সরকারের উপর তারা দোষ চাপাচ্ছেন কেন? বিএনপির জন্য নির্বাচন বসে থাকবে না। সংবিধান অনুযায়ী দেশও চলবে, গণতন্ত্রও চলবে, নির্বাচনও চলবে। বিএনপির জন্য কোনো কিছু আটকে থাকবে না। বিএনপি না এলেও নির্বাচন যথাসময়ে হবে। নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনে বিএনপির দাবির বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এগুলো এখন মামা বাড়ির আবদার, এসব এখন হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। সেতুমন্ত্রী বলেন, উৎসমুখেই এসব ফিটনেসবিহীন গাড়ি বন্ধ করতে হবে। সড়কে সাজা দিয়ে লাভ হবে না। সড়কের পাশে অবৈধ ওয়ার্কশপ থাকলেই সিলগালা করা হবে। এসব ওয়ার্কশপের জন্য আমরা সাধারণ মানুষকে কষ্ট দিতে পারি না। তিনি বলেন, ঈদে সড়কের অবস্থা স্বাভাবিক রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা থাকবে। কিছু ফিটনেসবিহীন গাড়ির জন্য সবাই কষ্ট দিতে পারি না, এসব গাড়ির জন্য প্রয়োজনীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।