প্রকাশ : 2018-06-06

বাংলাদেশ-আফগান সিরিজ : বাকি রইল হোয়াইটওয়াশ

সিরিজ জয়ের প্রত্যয় নিয়ে দেশত্যাগ করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। কিন্তু জয় তো দূরে থাক ভারতের দেরাদুনে আফগানস্তানদের সঙ্গে লড়াইও করতে পারছে না সাকিব আল হাসানের দল । প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৪৫ রানে হারের পর এবার ৬ উইকেটের পরাজয়। তিন ম্যাচ সিরিজে টাইগারদের এখন কেবল হোয়াইটওয়াশ হওয়াটাই বাকি। রাজিব গান্ধি আন্তর্জতিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠেয় প্রথম ম্যাচে টস জিতে বল বেছে নিয়েছিলেন বাংলাদেশ দলপতি; ভাগ্য সহায় হয়নি। একই মাঠে গতকালও টসভাগ্যে হাসেন সাকিব। এবার নেয়া হলো ব্যাট; কিন্তু তাতেও ভাগ্য দবল হলো না। রশিদ খান রহস্যই উদঘটন করা যাচ্ছে না কোন ভাবেই। প্রথম ম্যাচে ১৩ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হওয়া এই লেগ স্পিনার এবার ১২ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট। উইকেট চারটিও একবার দেখুন তামিম (৪৮ বলে ৪৩, বোল্ড), সাকিব (৭ বলে ৩, ক জদরান), সৌম্য (৯ বলে ৩, ক আসগর) ও মোসাদ্দেক (প্রথম বলেই এলবিডবিউ)। ৪ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ যখন একশ পেরিয়েছে তখনই দৃশ্যপটে আসেন রশিদ। এসেই এক ওভারে তুলে নেন সাকিব, তামিম ও মোসাদ্দেককে, পরের ওভারে সৌম্যকে। মুহূর্তেই ৪ উইকেটে ১০১ থেকে ৮ উইকেটে ১০৮ রানে পরিণত হয় স্কোরবোর্ড। আবু হায়দারের (১৪ বলে ২১) ক্যামিওয় স্কোরটা দাঁড়ায় ৮ উইকেটে ১৩৪। মুজিব কোন উইকেট না পেলেও ৪ ওভারে দেন মাত্র ১৫ রান, নবী নিয়েছেন ১৯ রানে ২টি। মামুলি রান তাড়া করতে ১৮.৫ ওভার খেলা লাগলেও জয়ের পথেই ছিল আফগানরা। ৩৮ রানের উদ্বোধনী জুটির পর রানের গতি কমে আসলেও উইকেট সংরক্ষণে রেখে এগুতে থাকে স্বাগতিকরা। রুবেলের করা ১৯তম ওভারে দুটি করে ছক্কা-চারে ২০ রানের হিসাবটা মিলিয়ে নেন মোহাম্মাদ নবী (১৫ বলে ৩১)। আফগানদের হয়ে ৪১ বলে সর্বোচ্চ ৪৯ রান করেন সামিউল্লাহ শেনওয়ারি। একই মাঠে আগামীকাল অনুষ্ঠিত হবে তৃতীয় ও শেষ ম্যাচ। বাংলাদেশ : ২০ ওভারে ১৩৪/৮ আফগানিস্তান : ১৮.৫ ওভারে ১৩৫/৪ ফল : আফগানিস্তান ৬ উইকেটে জয়ী। সিরিজ : আফগানিস্তান ২-০ ব্যাবধানে এগিয়ে।