বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৮
প্রকাশ : 2018-06-21

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সেবা গ্রহণে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সেবা গ্রহণে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক-৮ মোহাম্মদ শামীম আলম সম্প্রতি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার কর্তৃক প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমানকে দেয়া এক ডিও লেটারের বরাত দিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠান। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের প্রশাসন-১ অধিশাখার উপসচিব এ জেড এম শারজিল হাসান ২০ জুন ওই চিঠিটি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তা, স্বাস্থ্য অধিদফতর, ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পাঠান। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার কর্তৃক প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমানকে দেয়া ডিও লেটারে লিখেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়ার দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট এক অনন্য মাইল ফলক। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও নির্দেশনায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সার্বিক তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)-এর পক্ষ থেকে প্রকল্প গ্রহণ করে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নির্মাণ ও সফল উৎক্ষেপণ করা হয়। উৎক্ষেপণ পরবর্তী, বিক্রয়, বিপণন, পরিচালক ও রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অধীনে বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড (বিসিএসসিএল) গঠন করা হয়। চিঠিতে আরও বলা হয়, দেশ ও জাতির গৌরবময় এ অর্জনে আপনি অংশীদার। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের পাশাপাশি বিদ্যমান বৈদেশিক স্যাটেলাইটের ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে দেশের মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রার বহিঃপ্রবাহ হ্রাস করা, তথ্যের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা, অাপদকালীন মুহূর্তে যোগাযোগ ব্যবস্থাকে সচল রাখা ও দেশের অার্থ-সামাজিক উন্নয়নে প্রত্যক্ষ অবদান রাখা বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের অন্যতম উদ্দেশ্যে। দেশের একটি গুরত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়/বিভাগ হিসেবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর সেবাগ্রহণ করে সরকারের এ মহৎ উদ্যোগেকে সফল করার জন্য আপনার বিভাগ/মন্ত্রণালয় অবদান রাখতে পারে। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে আপনার মন্ত্রণালয়/বিভাগের জরুরি প্রয়োজন সময়ে টেলিযোগাযোগ ও ইন্টারনেট সেবা অব্যাহত রাখা সম্ভব। চিঠিতে জানানো হয়, স্যাটেলাইট কোম্পানির কর্মকর্তারা মন্ত্রণালয়/বিভাগে যোগাযোগ করে পরবর্তী প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। মন্ত্রণালয় ও বিভাগ থেকে এ সেবাগ্রহণের জন্য সহযোগিতা কামনা করা হয়।

জাতীয় পাতার আরো খবর