প্রকাশ : 2018-06-26

বিশ্বমানের ফুটওয়্যার তৈরি এবং রপ্তানি শুরু করেছে বাংলাদেশে

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশ বিশ্বমানের ফুটওয়্যার তৈরি এবং রপ্তানি শুরু করেছে। ফুটওয়্যারের উন্নত-মানের কাঁচামাল আমদানি করতে হয় না উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটি বাংলাদেশেই উৎপাদিত হয়। বাণিজ্যমন্ত্রী আজ (২৬ জুন) ব্রাসেলসে ‘বাংলাদেশের তৈরি পোশাক ও ফুটওয়্যারের উপর বিশেষ এক কর্মশালায় বক্তৃতাকালে এ কথা বলেন। ইউরোপিয়ন ইউনিয়ন এবং অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংস্থা’র (ওইসিডি) যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ কর্মশালায় তোফায়েল আহমেদ বলেন, চামড়া বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী রপ্তানি পণ্য। বাংলাদেশের তৈরি চামড়াজাত পণ্যের বেশ সুনাম রয়েছে। এদেশে প্রতি বছর বিপুল পরিমান উন্নত মানের চামড়া উৎপাদিত হয়। মঙ্গলবার ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, ওই কর্মশালায় তোফায়েল আহমেদ উল্লেখ করেন, ‘বাংলাদেশ চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য বিশ্বের অনেক উন্নত দেশে সুনামের সাথে রপ্তানি করে আসছে। বিপুল সংখ্যক দক্ষ-জনশক্তির দেশ হিসেবে এই দেশ তৈরী পোশাকের মতো কম মূল্যে উন্নত মানের ফুটওয়্যার তৈরী ও রপ্তানি করতে সক্ষম। তোফায়েল আহমেদ বলেন,বাংলাদেশ তার সাড়ে ১৬ কোটি মানুষের চাহিদা পূরণ করেই বিভিন্ন দেশে চামড়াজাত পণ্য রপ্তানি করছে। সংগত কারণেই বাংলাদেশে একের পর এক আধুনীক ও বিশ^মানের ফুটওয়্যার কারখানা গড়ে উঠছে। এ সেক্টরে বিদেশী বিনিয়োগও আসছে। ইউরোপিয়ন ইউনিয়ন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার মতো উন্নত দেশগুলো বাংলাদেশ থেকে তৈরী পোশাকের মতো ফুটওয়্যার আমদানি করলে তারা লাভবান হবে। বাংলাদেশ প্রতিনিধি দরের সদস্য শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক চুন্নু বক্তৃতা করেন। বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের সদস্য বাণিজ্যসচিব শুভাশীষ বসু, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব আফরোজা খান, এফবিসিসিআই-এর প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম, বিজিএমই-এর প্রেসিডেন্ট মো. সিদ্দিকুর রহমান, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট প্রসেসিং জোনের নির্বাহী পরিচালক মেজর জেনারেল মো. হাবিবুর রহমান খান এবং ব্রাসেলসে নিযুক্ত বাংরাদেশের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ সাহাদাত হোসেন ওয়ার্কশপে উপস্থিত ছিলেন।বাসস