প্রকাশ : 2018-07-10

সিলেট সিটি নির্বাচনে প্রতীক পেয়েই প্রচারণায় প্রার্থীরা

অনলাইন ডেস্ক: সিলেট সিটি কর্পোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে সাত মেয়রসহ প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। উৎসবমুখর পরিবেশে মঙ্গলবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত সিসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সিলেটের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেন। মেয়র পদে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে ‘নৌকা’, বিএনপি মনোনীত আরিফুল হক চৌধুরীকে ‘ধানের শীষ’, ইসলামী আন্দোলনের ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খানকে ‘হাত পাখা’ এবং সিপিবি-বাসদ মনোনীত আবু জাফরকে দলীয় প্রতীক মই ছাড়াও আরো তিন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে নাগরিক ফোরাম মনোনীত প্রার্থী মহানগর জামায়াতের আমির এহসানুল মাহবুব জুবায়ের ‘টেবিল ঘড়ি’, বিএনপির বিদ্রোহী ও নাগরিক কমিটির প্রার্থী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম ‘বাস গাড়ি’ এবং সিলেট কল্যাণ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এহসানুল হক তাহের ‘হরিণ’ প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এছাড়া সিসিকে ২৭টি সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ১২৭ এবং ৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ৬২ জনকেও প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। নির্বাচন কমিশন থেকে প্রতীক পাওয়ার পরপরই জোর প্রচারণায় নেমেছেন প্রার্থীরা। দুপুরের পর থেকে অনেক প্রার্থীর পক্ষে নগরীতে মাইকিংও শুরু হয়েছে। বদর উদ্দিন আহমদ কামরান এবং আরিফুল হক চৌধুরীর ব্যানারেও ছেয়ে গেছে সিলেট নগরী। এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতীক ও মনোনয়নে আগামী ৩০ জুলাই অনুষ্ঠেয় সিলেট সিটি নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু হলো। এদিকে, সকালে সিসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামানের হাত থেকে প্রতীক বরাদ্দ পেয়েই দলীয় নেতা-কর্মীদের নিয়ে সকাল সাড়ে ১০টায় হযরত শাহজালাল (রহ.) মাজার জিয়ারতে যান আওয়ামী লীগের প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। বেলা সাড়ে ১১টায় বিএনপির প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী মাজার জিয়ারতে যান। মাজার জিয়ারত শেষে তারা দুজনেই দরগাহ মহল্লা এলাকায় আনুষ্ঠানিক গণসংযোগ শুরু করেন। এ সময় তাদের পক্ষে লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। দুই প্রার্থীই নির্বাচনে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। আওয়ামী লীগের বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, ‘সিলেট হচ্ছে আধ্যাত্মিক নগর। এ নগরে রাজনৈতিক সম্প্রীতি ও ঐক্যের বন্ধন রয়েছে। এবার সিলেটের মানুষ নৌকার পক্ষে গণজোয়ার তুলেছেন। এজন্য আগামী ৩০ জুলাই নির্বাচনে তারা উন্নয়নের প্রতীক হিসেবে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করবেন বলে আশাবাদী।’ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট দিয়ে ফের তাকে নির্বাচিত করতে নগরবাসীর সহযোগিতা চেয়েছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী সদ্য সাবেক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। তিনি সংবাদমাধ্যমের সাথে আলাপকালে এ সহযোগিতা চান। নির্বাচন নিরপেক্ষ হলে ধানের শীষের বিজয় নিশ্চিত বলেও উল্লেখ করেন তিনি। অন্যদিকে, শাহজালাল (রহ.) মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে গণসংযোগ শুরু করেছেন বিএনপির বিদ্রোহী মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম। এ সময় তিনি নগরের উন্নয়নের জন্য তার প্রতীক 'বাস গাড়ি' মার্কায় ভোট চান। এছাড়া, জামায়াত প্রার্থী এহসানুল মাহবুব জুবায়েরও আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। এছাড়া ইসলামী আন্দোলন মনোনীত ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন খান দরগাহ মসজিদে জোহরের নামাজ শেষে আনুষ্ঠানিক গণসংযোগ শুরু করেছেন বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছে।