প্রকাশ : 2018-07-15

বয়স্ক ও মুক্তিযোদ্ধাদের ৫ বছরের ভিসা দেবে ভারত

অনলাইন ডেস্ক :বয়োজ্যেষ্ঠ ও মুক্তিযোদ্ধাদের ভিসা সহজ করার জন্য বাংলাদশের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ভারত। রোবরার সচিবালয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তি অনুযায়ী ভারত বাংলাদেশের ৬৫ বছর ও এর বেশি বয়সী এবং মুক্তিযোদ্ধাদের পাঁচ বছরের জন্য ভিসা দেবে।রিভাইস ট্রাভেল এগ্রিমেন্ট ২০১৮’-তে বাংলাদেশের পক্ষে সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মদ চৌধুরী এবং ভারতের পক্ষে সেদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের স্পেশাল সেক্রেটারি বিরাজ রাজ শর্মা স্বাক্ষর করেন।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ও ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের নেতৃত্বে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক হয়।বৈঠক শেষে আসাদুজ্জামান খান কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘ভারতের ভিসা সহজীকরণের জন্য আজ একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। যারা নাকি বয়স্ক, যাদের বয়স ৬৫ বছর এবং এর ঊর্ধ্বে তারা ভিসা চাইলে পাঁচ বছরের মাল্টিপল ভিসা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমাদের বয়স্ক সিটিজেনরা যারা ভিসা চান তারা (ভারত) তাদের এই ভিসা দেবেন।তিনি বলেন, ‘সঙ্গে যারা দেশমাতৃকার জন্য যুদ্ধ করেছেন, সেই মুক্তিযোদ্ধারদের জন্য একই ধরনের ভিসাসুবিধা তারা প্রদান করেছেন সেই অনুযায়ী কাজ শুরু করেছেন, যেটার চুক্তি আজ স্বাক্ষর করা হয়েছে।রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ভারত ও বাংলাদেশের ষষ্ঠ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের এই বৈঠক শুরু হয়। এর আগে সকাল ১০টা ২২ মিনিটে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সচিবালয়ে উপস্থিত হলে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। লালগালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রাঙ্গণে অস্থায়ী মঞ্চে দাঁড়িয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) একটি দলের সালাম গ্রহণ করেন রাজনাথ সিং। বৈঠকে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে ৯ সদস্যের প্রতিনিধি দল ও বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের প্রতিনিধি দল অংশ নেন।ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং তিন দিনের সফরে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকায় এসেছেন। রোববার দুপুরে তার ঢাকা ত্যাগ করার কথা রয়েছে।