মঙ্গলবার, নভেম্বর ২০, ২০১৮
প্রকাশ : 2018-09-08

বিএনপি আন্দোলনে ব্যর্থ: কাদের

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি আন্দোলনে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ। তারা ছাত্র-ছাত্রীদের পরীক্ষা, রোজার ঈদ আর কোরবানির ঈদের কথা বলে শুধুই কালক্ষেপণ করেছে। গত ১০ বছরে ২০টি ঈদ চলে গেলেও তারা আন্দোলন করতে পারে নাই। এরপরে তারা কোটা সংস্কার আর ছাত্রদের নিরাপদ সড়ক আন্দোলনের ওপর ভর করেও কোনো সুবিধা করতে পারেনি। মির্জা ফখরুল সাহেবরা ভেবেছিলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া জেলে গেলে সারাদেশে হয়তো বঙ্গপোসাগরের মতো ঢেউ তুলবেন কিন্তু সেটাতো দূরের কথা বিএনপি ছোট একটা নদীর ঢেউ তুলতেও পারেনি। তিনি দলীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ট্রেনে শনিবার দেশের উত্তরাঞ্চল সফরের সময় নাটোর রেল স্টেশনের দুই নম্বর প্ল্যাটফর্মে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত দলীয় এক পথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বেগম জিয়ার মামলা নিয়ে তাকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘শেখ হাসিনা নয়, আদালত আপনাকে মামলায় সাজা দিয়েছে, তাই আপনাকে মুক্ত করার এখতিয়ারও আদলতই রাখে, শেখ হাসিনা নয়।’ ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বিএনপি দেশের মানুষকে আগুন সন্ত্রাস, পেট্রোল বোমা আর দুর্নীতিতে বারবার চাম্পিয়ন করা ছাড়া কিছুই দিতে পারেনি। আর আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে দেশের মানুষ নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ, বয়স্করা বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধীরা প্রতিবন্ধী ভাতা আর মুক্তিযোদ্ধারা মুক্তিযুদ্ধ ভাতা পাচ্ছেন। দেশের মানুষ এখন অনেক ভালো আছেন। তারা আর অন্ধকারে ফিরতে চান না। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনার সালাম জানিয়ে সবার কাছে আবারও নৌকা প্রতীকে ভোট চান। তিনি সকালে নীলসাগর ইন্টারসিটি ট্রেনে ঢাকা থেকে চিলাহাটি যাওয়ার পথে বেলা আড়াইটার দিকে নাটোর রেল স্টেশনে আসেন। অপেক্ষমাণ হাজার হাজার দলীয় নেতা-কর্মী আর সমর্থকদের দেখে তিনি আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, আজ দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা এলে এই পথসভা জনসমুদ্রে রূপ নিত। এ সময় তিনি স্মৃতিচারণ করে বলেন, ১৯৯৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে শেখ হাসিনার ট্রেন সফরের সময়ে এই নাটোরেই তার গাড়িতে মুহুর্মুহু গুলি করা হয়েছিল। তিনি প্রাণে বেঁচে গেছেন। এর আগে ওবায়দুল কাদের টাঙ্গাইল, সিরাজগঞ্জ ও মুলাডুলি রেল স্টেশনে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত পথসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। তার সফর সঙ্গী হিসেবে আরও ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির কবির নানক এমপি, রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি এবং বিএম জাহাঙ্গির হোসেন এমপি। নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক মোঃ আব্দুল কুদ্দুস এমপির সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শফিকুল ইসলাম শিমুলের সঞ্চালনায় পথসভায় আরও বক্তব্য রাখেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি এবং নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মোঃ আবুল কালাম আজাদ। এর আগে সকাল থেকেই জেলা সদর ও নলডাঙ্গাসহ বিভিন্ন উপজেলা থেকে হাজার হাজার নেতা-কর্মী ও সমর্থক রেল স্টেশনে উপস্থিত হওয়ায় পথসভাটি জনসভায় পরিণত হয়ে যায়।

রাজনীতি পাতার আরো খবর