বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯
প্রকাশ : 2018-11-14

চুলচেরা বিশ্লষণ করেই প্রার্থী চুড়ান্ত করবে আওয়ামী লীগ

অনলাইন ডেস্ক :একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক পেতে দলের মনোনয়ন ফরম বিক্রি চলছে। এরইমধ্যে শেষ হয়েছে এই কার্যক্রম। আজ বুধবার (১৪ নভেম্বর) দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার নেবে দলের মনোনয়ন বোর্ড। এ পর্যন্ত সর্বমোট চার হাজার ২৩টি মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। বর্তমানে সংসদে থাকা এমপি ছাড়াও সাবেক এমপি, ছাত্রনেতা ও স্থানীয় সরকারে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরাও আছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপিসহ জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট অংশ নেবে বলে ইতোমধ্যে ঘোষণা দিয়েছে। আগে থেকেই ক্ষমতাসীন দলের নীতি নির্ধারণী ফোরামের নেতারা বলে আসছিলেন বিএনপি ভোটে অংশ নেবে। সে কারণে এবার আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়নে ব্যাপক পরিবর্তন আনবে। সেক্ষেত্রে শতাধিক এমপির কপাল পুড়তে পারে। দলের নীতি নির্ধারণী ফোরামের একাধিক নেতার সঙ্গে আলাপকালে এমন তথ্য নিশ্চিত করেছে। গত ৯ নভেম্বর থেকে মনোনয়ন বিক্রি করছেন ক্ষমতাসীন এ দলটি। আজ বুধবার (১৪ নভেম্বর) মনোনয়ন প্রত্যাশীদের দলের মনোনয়ন বোর্ডের মুখোমুখি হতে হবে। এবার চুলচেরা বিশ্লষণ করেই প্রার্থী চুড়ান্ত করবে আওয়ামী লীগ। এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মনোনয়ন বোর্ডের সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ বলেন, কয়েক দফা জরিপের ফলাফলে যিনি সবচেয়ে বেশি গ্রহণযোগ্য হবেন, যাকে দিয়ে নৌকার বিজয় সম্ভব তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে। নিজ কর্মকান্ডে বির্তকিত হয়েছেন বা সরকার ও দলকে প্রশ্নের মুখোমুখি দাড় করিয়েছেন এমন কাউকে মনোনয়ন দেয়া হবে না। এদিকে, এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিতে নেতাকর্মীদের উপচে পড়া ভিড় জমেছিল দলের সভানেত্রীর ধানমন্ডির কার্যালয়ে। একটি আসনে কমপক্ষে ৩ জন, কোথায় কোথায় ডজন ছাড়িয়ে ১৮ জনও মনোনয়ন ফরম তুলেছেন। বিষয়টিকে দলের নেতাকর্মীরা ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক সিনিয়র নেতা বলেন, আওয়ামী লীগ এ দেশের সবচেয়ে বড় দল। অনেকেই মনোনয়ন চাইবে। যিনি যোগ্য, জনপ্রিয় এবং জেতার সামর্থ্য রাখেন তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে। কেননা নির্বাচনে প্রতিটি আসন খুব গুরুত্বপূর্ণ। মনোনয়ন বোর্ড সভায় আরও সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, জনগণের কাছে জিতবে পারে, গ্রহণযোগ্যদের নমিনেশন দেয়া হবে। নিজেদের অগ্রহণযোগ্যদেরও বাদ দেয়া হবে। ঐক্যফ্রন্ট বিএনপির বিপক্ষে এবার ক্ষমতাসীনদের লড়তে হবে। তাদের তো দুর্বল মনে করলে চলবে না। উইনেবল, গ্রহণযোগ্যদের বিষয়ে অনেকগুলো সার্ভে করা হয়েছে। এছাড়া নৌকা প্রতীকে যেসব দল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট করবে, নির্বাচন কমিশনে (ইসি) সেই তালিকা জমা দিয়েছে আওয়ামী লীগ। দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দিন আহমেদের কাছে এ তালিকা জমা দেন। তবে কোন কোন দল নৌকা প্রতীকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে তা জানাতে তিনি অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। এ বিষয়ে মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘নৌকা প্রতীকে কারা ভোট করবে আমরা সে তথ্য কমিশনে দিয়েছি। তবে দলগুলোর নাম বলতে আমি অথরিটি নই।’ আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটের একাধিক দল নির্বাচন কমিশনে আলাদা চিঠি দিয়ে নৌকা ও তাদের দলীয় প্রতীকে ভোট করতে কমিশনকে চিঠি দিয়েছে। নিবন্ধনহীন বাংলাদেশ জাসদও নৌকা প্রতীকে ভোট করতে চেয়ে এ ধরনের একটি চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশনে।

জাতীয় পাতার আরো খবর