বুধবার, জুন ৩, ২০২০
প্রকাশ : 2018-12-17

বাংলাদেশকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

ক্রীড়া ডেস্ক: ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশকে বড় ভুগিয়েছিলেন শাই হোপ। টি-টুয়েন্টিতে এসেও সেই হোপের তাণ্ডব। সিলেটে সিরিজের প্রথম টি-টুয়েন্টিতে ক্যারিবীয়ান এই ওপেনারের ঝড়ে উড়ে গেল বাংলাদেশ। ক্রিকেটের সংষ্করণ যত ছোট হয়, ততই ভয়ংকর হয়ে ওঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফের এর প্রমাণও পাওয়া গেল। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে দাপট দেখিয়ে জিতল ক্যারিবীয়রা। বাংলাদেশকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে তারা। শুধু তাই নয়, ৫৫ বল হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে ব্রাফেট বাহিনী। দাপুটে এ জয়ে ৩ ম্যাচ সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল তারা। সোমবার প্রথমে ব্যাট করে ১৯ ওভারে অল আউট হওয়ার আগে ১২৯ রান করে স্বাগতিকরা। জবাবে ১০.৫ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৩০ রান করে জয় তুলে নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফলে ৩ ম্যাচ সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল তারা। এদিন মাত্র ১৬ বলে হাফ সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছেন হোপ। মাহমুদউল্লাহর বলে আউট হওয়ার আগে ২৩ বলে ৫৫ রান করেছেন তিনি। মেরেছেন ৬টি ছক্কা ও ৩টি চারের মার। এর আগে দলীয় ৫১ রানে প্রথম উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মোহাম্মদ সাইফউদ্দীনের বলে আরিফুল হকের কাছে ক্যাচ দিয়ে ব্যক্তিগত ১৮ রানে সাজঘরে ফিরে যান এভিন লুইস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের দলীয় রান তখন ৯৮। এরপর নিকোলাস পুরান ও কেমো পল মিলে দলকে জয়ের দিকে টেনে নিয়ে যান। পুরান ১৭ বলে ২৩* রানে ও পল ১৪ বলে ২৯* রানে অপরাজিত ছিলেন। এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। টাইগারদের টপ অর্ডারের পাঁচ ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল, লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহীম ও মাহমুদউল্লাহর রান যথাক্রমে ৫, ৬, ৫, ৫, ১২। এই বিপর্যয়ের সামনে দাঁড়িয়ে ব্যাট হাতে একাই লড়াই করেছেন সাকিব। তুলে নিয়েছেন টি-টুয়েন্টি ক্যারিয়ারের অষ্টম হাফ সেঞ্চুরি। আউট হওয়ার আগে ৪৩ বলে করেছেন ৬১ রান। দুর্দান্ত এই ইনিংসের পথে মেরেছেন ৮টি চার ও ২টি ছক্কা। সাকিবের পর বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর আরিফুল হকের। ১৮ বল খেলে তিনি করেছেন ১৭ রান। এছাড়া মাহমুদউল্লাহই শুধু দুই অংকের ঘরে পৌঁছাতে পেরেছেন। তিনি করেছেন ১২ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ২৮ রানে ৪ উইকেট নিয়েছেন কটরেল। এছাড়া ২টি উইকেট নিয়েছেন কেমো পল।