প্রকাশ : 2018-01-04

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি না পেলে নয়াপল্টনে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছে বিএনপি

বুধবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ৫ জানুয়ারি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি না পেলে নয়াপল্টনে সমাবেশের অনুমতি চেয়েছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল বুধবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের বিকল্প হিসেবে নয়াপল্টনে সমাবেশ করার অনুমতি চেয়ে পুলিশ ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘যদি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করার অনুমতি দেওয়া না হয়, তাহলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ৫ জানুয়ারি সমাবেশের অনুমতি দেওয়ার জন্য আমরা আহ্বান জানাচ্ছি। আমরা ইতিমধ্যে সিটি করপোরেশন ও পুলিশকে চিঠিও দিয়েছি। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে ৫ জানুয়ারি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ হিসেবে পালন করে আসছে বিএনপি। সরকারের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, ‘৫ জানুয়ারি নিয়ে সরকারের একটা গভীর নীলনকশা ও তামাশা আছে। সেই তামাশার প্রতিফলন দেখতে পেলাম যে একটা অখ্যাত পার্টিকে অনুমতি দেওয়া হয়েছে।’ তিনি বলেন, বিএনপির আবেদনকে পাশ কাটিয়ে অনেক আগেই অন্য দলকে অনুমিত দেওয়া হয়েছে বলে পুলিশ যে বক্তব্য দিচ্ছে, সেটি সরকারের হীন পরিকল্পনা বাস্তবায়নের অংশ। এটি তাদের হিংসাপরায়ণ নীতির প্রতিফলন। বিএনপির বিভিন্ন নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার, ছাত্রদল ও যুবদলের কর্মীদের হত্যার তীব্র নিন্দা জানান রিজভী। তিনি বিএনপির গ্রেপ্তার নেতা-কর্মীদের মুক্তির দাবি জানান। বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, কেন্দ্রীয় নেতা আজিজুল বারী হেলাল, দীপেন দেওয়ান প্রমুখ সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

রাজনীতি পাতার আরো খবর