প্রকাশ : 2019-01-09

রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করা হবে,বিএনপির আন্দোলন: ওবায়দুল কাদের

অনলাইন ডেস্ক: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন, সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিরোধী দলের কর্মসূচি, আচরণ- এগুলো তাদের নিজস্ব ব্যাপার। নির্বাচন নিয়ে তারা লিগ্যালভাবে যেকোন ধরণের কর্মসূচি দিতে পারে। সে ক্ষেত্রে বলার কিছু নেই, তবে আন্দোলন যদি সংহিসতায় পথে যায় তাহলে জনগণকে সাথে নিয়ে সমুচিত জবাব দেয়া হবে। বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শেখ হাসিনার সরকারের মন্ত্রী পরিষদের নতুন সদস্যরা টুঙ্গিপাড়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদনের উদ্দেশে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়ার ৩নং ফেরিঘাটে ক্যামেলিয়া নামক ফেরিতে ওঠার আগে তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ করে বলেন, যারা আন্দোলনে পরাজিত, নির্বাচনেও পরাজিত হয়েছে তাদের নতুন করে বিশ্বাস করার কিছু আছে বলে মনে হয় না। যা বাংলাদেশের জনগণ করে না আমরাও করি না। তারা আন্দোলনে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে, তারা ১০ বছরে ১০ মিনিটেও আন্দোলন করেনি। তারা আবার এখন কী করবে। এখন তারা নির্বাচনেও পরাজিত, আন্দোলনে ব্যর্থ দলে পরিণত হয়েছে। নির্বাচনে ব্যর্থ দলের ভবিষ্যৎ সফল হবে না। তারা যদি নির্বাচন নিয়ে আইনি পথে যায় তাহলে আমরা লিগ্যাল ব্যাটল করব, যদি রাজনৈতিক আন্দোলনে যায় তাহলে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করা হবে। তারা যদি সহিংসতা ও নাশকতার পথে যায় তাহলে পরিস্থিতি মোকাবেলায় জনগণকে সংঙ্গে নিয়ে সমুচিত জবাব দেয়া হবে। এদিকে এর আগে সড়কপথে মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাট হয়ে টুঙ্গিপাড়ায় আগমন উপলক্ষে ভোর থেকেই ঘেরিঘাট এলাকায় মুন্সীগঞ্জ পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়। ঘাট এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। মন্ত্রী পরিষদের নতুন সদস্যদের দেখতে ফেরিঘাট এলাকায় স্থানীয় আওয়ামী নেতাকর্মীদের ভিড় ছিল। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ৩টি এনা পরিবহনের করে মন্ত্রী পরিষদের নতুন সদস্যরা ফেরিতে ওঠেন। এছাড়াও কয়েকটি জিপ, পাজারো ও প্রাডো গাড়ি ছিল। এ সময় মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা ও মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম পিপিএমসহ মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ মন্ত্রী পরিষদের নতুন সদস্যদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।