বুধবার, জানুয়ারী ১৭, ২০১৮
প্রকাশ : 2018-01-13

আজ শনিবার নির্বাচনের জন্য বিএনপির দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপনির্বাচন হবে ২৬ ফেব্রুয়ারি। আজ শনিবার এ নির্বাচনের জন্য বিএনপির দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে। নির্বাচনে প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, সৎ ও নিষ্ঠাবান এবং নতুন প্রজন্মের চাহিদা বিবেচনা করা হবে। গত বছরের নির্বাচনে যিনি ছিলেন, এবারও প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে তিনি অগ্রাধিকার পেতে যাচ্ছেন। সেটা কতটুকু ঠিক ? জবাবে আমির খসরু বলেন, ওটা নির্বাহী কমিটির মাধ্যমে বাছাই হবে। যিনি গতবার করেছেন, তিনি দুই ঘন্টার মধ্যে ৩ লক্ষ ৬০ হাজার ভোট পেয়েছেন এবং ব্যবধানও সেরকম ছিল না। সেদিক থেকে কোনো সমস্যা নেই। তাছাড়া বিএনপি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দল। সবকিছু মিলিয়ে বিএনপি প্রার্থীর জয়ী হওয়া উচিত। বিএনপির জোটের একটি শরীক দল জামায়াত এর মধ্যে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন। আপনারা এর মধ্যে আজকে প্রার্থী ঘোষণা করবেন। তাহলে এ নির্বাচনটি দলগতভাবে প্রার্থী হবে নাকি যোগ্যতাভাবে দেয়ার সম্ভাবনা আছে ? জবাবে আমির খসরু বলেন, সেটা তো সিদ্ধান্ত হয়নি। সেটা আজ হয়তো স্ট্যান্ডিং কমিটির আলোচনা হতে পারে। যদি আপনারা সিদ্ধান্ত নেন দলবদ্ধভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন। তখন কোন একজন প্রার্থীকে ছাড় দিতে হবে ? জবাবে আমির খসরু বলেন, সেটা জোটগত সিদ্ধান্ত নিলে, জোটগত হবে। জামায়াত ইসলামের হলে জোটগত হবে কিনা দলীয়গত হবে সেই ধরণের সিদ্ধান্ত আমার জানা নেই। বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্নভাবে মেয়র নির্বাচন হয়েছে, এগুলো মোটামুটি দলগতভাবে হয়েছে। ঢাকার নির্বাচনটা এখন পর্যন্ত দলগতভাবে হচ্ছে। পরবর্তীতে যদি পরিবর্তন হয় তখন সেটা আমরা দেখব। ঢাকার উত্তরের প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের ভিন্ন পরিকল্পনা ছিল। সেখানে বিএনপির প্রার্থীর ভিন্ন কোন পদক্ষেপ নেয়ার পরিকল্পনা কি আছে নাকি প্রয়াত মেয়রের কর্মকান্ডগুলো আপনারা অব্যাহত রাখবেন? জবাবে আমির খসরু বলেন, না। ডেভলপমেন্টে অবশ্যই জনগণের একটা চাহিদা আছে। ডেভলপমেন্টের সাথে সাথে রাজনৈতিক ব্যাপারগুলো আজকের মানুষদের বিভিন্নভাবে পীড়া দিচ্ছে। একবছর পরে জাতীয় নির্বাচনে দেশবাসি আশা করছে, সরকারের পরিবর্তন হবে। এটা কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। সুতরাং সবকিছু মিলিয়ে বুঝা যায়, সেটাও বিবেচনায় আনবে। উন্নয়ন ও মানুষের রাজনৈতিক অধিকারগুলোও মাথায় থাকবে।

রাজনীতি পাতার আরো খবর