প্রকাশ : 2019-03-30

প্রশ্নফাঁসের সুযোগ নেই, গুজবে কান দিবেন না: শিক্ষামন্ত্রী

৩০মার্চ,শনিবার,অনলাইন ডেক্স,নিউজ একাত্তর ডট কম: এসএসসির মতো এইচএসসিতেও প্রশ্নফাঁসের কোনো সুযোগ নেই বলে সাফ জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নফাঁসের গুজবে কান না দেয়ার জন্য শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। গুজব ছড়ানোর অপকর্মের সাথে কারো সম্পৃক্ততার প্রমাণ পেলে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। শনিবার দুপুরে শেরপুরের নকলা উপজেলার চন্দ্রকোণা রাজলক্ষ্মী উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষী উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, শিক্ষার মান উন্নয়নে শুধুমাত্র অবকাঠামো নয়, শিক্ষা পদ্ধতিতেও প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনা হবে। দেশের শিক্ষা উন্নয়নে আমাদের অনেক চ্যালেঞ্জ রয়েছে, সেই চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও পরামর্শে আমরা নিরন্তর কাজ করছি। শুধু শিক্ষা ও বিজ্ঞানে নয়, শিক্ষার্থীদের মানবিকভাবেও সমৃদ্ধ হতে হবে। এর জন্য শিক্ষিত তরুণদের দেশের উন্নয়নে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি। জনতা ব্যাংকের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ আকরাম হোসাইনের সভাপতিত্বে এ সময় বক্তব্য রাখেন কৃষি মন্ত্রণালয়বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. মোহাম্মদ মুফাখখারুল ইসলাম, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম, শেরপুর জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক অধ্যাপক মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান, সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডাক্তার একেএম সাইদুর রহমান প্রমুখ। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন স্থানীয় এমপি সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী। এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম মাহবুবুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ, পৌরসভার মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন, নকলা থানার ওসি কাজী শাহ নেওয়াজ, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি সজু সাঈদ সিদ্দিকীসহ উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও তার সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন কমিটির অন্যতম সদস্য সফিকুল ইসলাম সুখনসহ অন্যান্য সদস্য ও বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সদস্যবৃন্দ, শিক্ষক, সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থী, অভিভাবক, এলাকার সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ, শিক্ষানুরাগী মহল, স্থানীয় সরকার প্রতিনিধি, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন। পরে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ও সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর হাতে চিত্রশিল্পী রাঙা শাহীনের আঁকা নিজ নিজ ছবি সম্বলিত তৈলচিত্র হস্তান্তর করা হয়।

শিক্ষা পাতার আরো খবর