প্রকাশ : 2019-04-10

ইসরায়েলের নির্বাচনে পাল্টাপাল্টি জয়ের দাবি

১০এপ্রিল,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইসরায়েলের সাধারণ নির্বাচনে প্রাপ্ত ভোটের ফল অনুসারে কোনো দলই স্পষ্টভাবে জয় নিশ্চিত করতে পারেনি। যদিও এখন পর্যন্ত পাল্টাপাল্টি জয়ের দাবি করছে দুই প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ডানপন্থী লিকুদ পার্টি ও মধ্যপন্থী ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট জোট। আজ বুধবার বিবিসিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এ কথা জানা যায়। বিবিসি জানায়, এখন পর্যন্ত পাওয়া ফল অনুসারে, ইসরায়েলি পার্লামেন্ট নেসেটের ১২০ আসনের মধ্যে সাবেক সামরিক প্রধান বেনি জেন্টসের নেতৃত্বাধীন ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট জোট পেয়েছে ৩৬ থেকে ৩৭ আসন। অন্যদিকে ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ডানপন্থী লিকুদ পার্টি পেয়েছে ৩৩ থেকে ৩৬টি আসন। এদিকে, ইসরায়েলের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত কোনো দলই সেখানে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসতে পারেনি। সব সময় জোট সরকার গঠনের ইতিহাস দেশটির। এবারেও তারই পুনরাবৃত্তি হতে চলেছে। তবে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কোন দল জোট সরকার গঠন করতে যাচ্ছে, তা স্পষ্ট নয়। অনেকে কোয়ালিশন সরকার গঠনের ক্ষেত্রে নেতানিয়াহুর লিকুদ পার্টিকেই এগিয়ে রাখছেন। আবার অনেক বিশ্লেষক এগিয়ে রাখছে ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট জোটকে। নির্বাচনী ফল পাওয়ার পর দেওয়া এক বিবৃতিতে ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট জোট জানিয়েছে, আমরা বিজয়ী। জনগণ তাদের রায় জানিয়েছে। এ নির্বাচনে স্পষ্টভাবে বিজয়ী ও পরাজিত অংশ রয়েছে। অন্যদিকে তেলআবিবে দলের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে বিজয় উদযাপন করেছেন নেতানিয়াহু। তিনি বলেন, এ এক বিশাল বিজয়ের দিন। আমি খুবই আপ্লুত যে ইসরায়েলের জনগণ পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আমার ওপরে আস্থা রাখতে পেরেছে। দুর্নীতির অভিযোগ, গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে সংঘাত নিয়ে বিতর্ক নির্বাচনী দৌড়ে নেতানিয়াহুকে কিছুটা দুর্বল করে রেখেছে। তবে আবারও লিকুদ পার্টি ক্ষমতায় এলে ইসরায়েলের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও দখলীকৃত পশ্চিম তীরে নতুন ইহুদি বসতি স্থাপন করা হবে বলে প্রচার চালিয়েছেন নেতানিয়াহু।-ntv

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর