প্রকাশ : 2019-10-04

রংপুর-৩ উপ-নির্বাচন: রাত পোহালেই ভোট

০৪অক্টোবর,শুক্রবার,রাজনীতি ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাত পোহালেই আগামীকাল শনিবার (৫ অক্টোবর) জাতীয় সংসদের-২১, রংপুর-৩ আসনে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। সকাল ৯টা থেকে ৪টা পর্যন্ত একটানা ১৭৫টি ভোটকেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোটগ্রহণ অনষ্ঠিত হবে। শুক্রবার সকাল ১১টায় রংপুর পুলিশ হল থেকে প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার মলামাল গ্রহণ করেছেন। পরে তারা কেন্দ্রে কেন্দ্রে নির্বাচনী সামগ্রী নিয়ে গেছেন। কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বপ্রাপ্ত টিমও। পুরো নির্বাচনী এলাকা জুড়ে ১৮ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন। মাঠে থাকছে র‌্যাবের ২০ ইউনিট।এছাড়াও পুলিশ-আনসার সদস্য থাকছে ৩ হাজার। নির্বাচন সুষ্ঠু করার স্বার্থে ৪ স্তরের নিরাপত্তার বলই গড়ে তোলা হয়েছে। অন্যদিকে এই উপ-নির্বাচনে ১৮ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট থাকছেন দায়িত্বে। এছাড়াও মাঠে থাকবে সাংবাদিক ও পর্যবেক্ষক। রিটার্নিং কর্মকর্তা ও রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা জিএম সাহাতাব উদ্দিন বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে সব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নির্বাচনী সামগ্রী কেন্দ্রে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্বপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের কেন্দ্রের নিরাপত্তার দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। কেউ বিশৃংখলার চেষ্টা করলে সাথে সাথে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। প্রতিদ্বন্দ্বী ছয় প্রার্থীর ৪জনই নির্বাচনী এলাকার ভোটার নন।রংপুরের আঞ্চলিক নির্বাচনী কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার জি.এম সাহাতাব উদ্দিনের কাছে প্রার্থীদের জমা দেয়া হলফনামা থেকে এ তথ্য জানা গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত হতে ছয় প্রার্থীদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হলে তাদের তিনজন নির্বাচনী আসন রংপুর-৩ এর ভোটার নন বলে জানিয়েছেন। এদিকে বাবার আসন ধরে রাখতে মরিয়া এরশাদপুত্র রাহগীর আল মাহি সাদ। প্রতিদিন ভোটারদের কাছে ভোট চাইলেও স্থানীয় ভোটার না হওয়ায় তিনি লাঙ্গল প্রতীকে ভোট দেয়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। এছাড়াও ভোট দিতে পারবেন না বিএনপি প্রার্থী রিটা রহমান (ধানের শীষ), গণফ্রন্টের কাজী মো. শহীদুল্লাহ বায়েজিদ (মাছ) ও এনপিপির শফিউল আলম (আম)। তবে নির্বাচনী এলাকার ভোটার হিসেবে এরশাদের ভাতিজা স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ (মোটরগাড়ি-কার) ও খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল (দেওয়াল ঘড়ি) ভোট দিতে পারবেন। শনিবার সকালে সাবেক সংসদ সদস্য শাহরিয়ার আসিফ শিশুমঙ্গল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে এবং তৌহিদুর রহমান মন্ডল দুপুরে রংপুর মডেল কলেজ কেন্দ্রে নিজের ভোট প্রদান করবেন। এছাড়া এনপিপির শফিউল আলম নিজেকে স্থানীয় ভোটার দাবি করেন। নগরীর মুন্সিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের তিনি ভোটার বলে জানান। নির্বাচন কমিশনে দেয়া হলফনামা অনুসারে তার স্থায়ী ঠিকানা রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায়। রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রংপুর সেনানিবাস, রংপুর সদর উপজেলা এবং রংপুর সিটি করপোরেশনের ৩৩টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৮টি ওয়ার্ড ছাড়া বাকি সবগুলো নিয়ে এই আসন। ১৭৫টি কেন্দ্রের জন্য ১৭৫ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ১০২৩ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, দুই হাজার ৪৬ জন পোলিং অফিসার ভোটগ্রহণ করবেন। রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশনের ৩৩টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত জাতীয় সংসদের গুরত্বপূর্ণ এ আসনটিতে ১৭৫টি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতির মাধ্যমে ভোটগ্রহণ করা হবে। এই আসনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪১ হাজার ২২৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ২০ হাজার ৮২৩ এবং নারী ভোটার ২ লাখ ২০ হাজার ৪০১ জন। জাতীয় সংসদের-২১, রংপুর-৩ শূন্য আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৬জন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ সমর্থিত জাতীয় পার্টির প্রার্থী রাহগির আলমাহি সাদ এরশাদ (লাঙ্গল), বিএনপি প্রার্থী রিটা রহমান (ধানের শীষ), খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল রাজু (দেওয়াল ঘড়ি), এরশাদের ভাতিজা সাবেক সংসদ সদস্য হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মোটরগাড়ি (কার), এনপিপির শফিউল আলম (আম) এবং গণফ্রন্টের কাজী মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ বায়েজীদ (মাছ) প্রতীকে নির্বাচন করছেন। রংপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার জি.এম. সাহাতাব উদ্দিন জানান ভোটগ্রহণের জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে কেন্দ্রে এসে ভোট দিতে পারে, সেজন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। ভোট গ্রহণে বাধা সৃষ্টি, অপ্রীতিকর ঘটনার চেষ্টা বা ভোটারদের ভয়ভীতি দেখিয়ে কেউ ফায়দা লুটতে চাইলে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তা প্রতিহত করবে।