প্রকাশ : 2020-01-15

পটিয়াবাসীর দিনবদলের রাজকুমার সাইফুল আলম মাসুদ

১৫জানুয়ারী,বুধবার,মো:ইরফান চৌধুরী,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: অব্যাহত শিল্পায়নের পথ ধরে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ, ধীরে ধীরে স্থান করে নিচ্ছে বিশ্বের শিল্পোন্নত দেশের কাতারে। এই শিল্পায়ন প্রক্রিয়ায় যে সকল বেসরকারি উদ্যোক্তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন তাঁদেরই একজন সাইফুল আলম মাসুদ। এদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়য়ে যে সকল শিল্পোদ্যোক্তা নিজেদের শ্রম, মেধা ও দূরদর্শিতা দিয়ে জাতিকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছেন এস আলম গ্রুপ এর চেয়ারম্যান অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোঃ সাইফুল আলম মাসুদ তাঁদেরই একজন। ছোটবেলা থেকে জীবন নিয়ে সংগ্রাম করে যিনি শুধু নিজের ভাগ্য বদলাননি, বদলে দিয়েছেন পটিয়াসহ সারাদেশের মানুষের অর্থনৈতিক ভাগ্যের চিত্র। সাধারন ব্যবসায়ী থেকে হয়ে উঠেন উদ্যোক্তর । এ যেন এক জনপদে জন্মেছিলেন এক বরপুত্র| মানুষের হৃদয়ে তিনি এতটাই মিশে গেছেন যে, পটিয়ার ঘরে ঘরে এখন মিলাদ পড়িয়ে তাঁর সুস্ততা ও দীর্ঘায়ুর জন্য দোয়া করা হয়। তিনি এলাকায় আসবেন শুনলে এক নজর দেখতে ভিড় করেন শতশত মানুষ। যেন আগুনে পুড়ে খাঁটি হওয়া এক সোনার গল্প। সময়ের সাথে পাল্লা দিয়েই মোঃ সাইফুল আলম মাসুদ নিজেকে ব্যবসা-বাণিজ্য অঙ্গনের সফল পর্যায়ে উঠিয়ে এনেছেন। এটি ঘটেছে তাঁর আন্তরিকতা এবং একনিষ্ঠতার ফলে। তিনি যখন যে ব্যবসার দিকে ঝুঁকেছেন সেখানে মেধা ও নিবিড় শ্রমের সমন্বয় ঘটিয়ে আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন। ২৭ বছরেরও অধিক সময় ধরে এস আলম গ্রুপ শুধু নিজেদের জন্যেই নয়, সমাজ এবং সর্বোপরি দেশের মানুষের জন্যে উন্নতমানের সেবা প্রদান করে চলেছেন। সাইফুল আলম মাসুদের জন্ম চট্টগ্রাম জেলার পটিয়া পৌরসদরে । দেশের অর্থনীতিতে বিশাল অবদান রাখার পাশাপাশি এস আলম গ্রুপের মাধ্যমে হাজার হাজার পরিবার এখন স্বাবলম্বী। বর্তমানে শুধু পটিয়া নয়, দক্ষিণ জেলার বিভিন্ন উপজেলার শিক্ষিত যুবকদের কর্মসংস্থানেও তিনি ভূমিকা রাখছেন। একজন মানুষই বদলে দিলেন পুরো জনপদের দু:খ। চাকরি দিয়ে ঘুচালেন বেকারত্ব। হাসি ফুটালেন হাজার হাজার পরিবারের মুখে। একসময় নারীদের পরিবারে বোঝা মনে করতো সবাই। সাইফুল আলম মাসুদের কল্যাণে ব্যাংকে চাকরি পেয়েছেন পটিয়াও দক্ষিণ চট্টগ্রামের শতশত নারী। সবার পক্ষে-বিপক্ষে মত থাকে। কিন্তু এলাকাবাসীর কাছে এস আলম এখন অবিসংবাদিত। দিনবদলের রাজকুমার।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর