রবিবার, ফেব্রুয়ারী ২৩, ২০২০
প্রকাশ : 2020-01-18

জাতির জনকের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য রাজনীতি করতে হবে: এলজিআরডি মন্ত্রী

১৮জানুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, নিজের স্বার্থ চারিতার্থের জন্য রাজনীতি করলে দেশের উন্নয়ন হয় না। রাজনীতি করতে হবে জনগণের জন্য, দেশের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য। জাতির জনকের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য রাজনীতি করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্ব ও জাতির জনকের আদর্শ ব্যতীত রাজনীতিবিদ হওয়া সম্বব নয়। মন্ত্রী আজ চট্টগ্রাম রাউজান উপজেলার নোয়াজিষপুর ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের উদ্বোধন শেষে অদুদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন করার জন্য সরকারের সব ধরণের প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচন করার জন্য সরকার বন্ধপরিকর। তিনি বলেন, একটি রাষ্ট্র তখনই সফল হবে যখন রাষ্ট্রের জনগণ তাদের নিজ নিজ অধিকার সহজলভ্য মনে করবেন। এ ক্ষেত্রে নেতৃত্বের দক্ষতার পরিচয় দিতে হবে। দক্ষ নেতৃত্ব ব্যতীত অধিকার বাস্তবায়ন হয় না। মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের এখন প্রশংসারযোগ্য। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় প্রায় ২ হাজার ডলার। এখন গড় আয়ু বেড়েছে। শিল্পয়ন, অবকাঠামো উন্নয়ন, ঘরে ঘরে বিদ্যুতের ব্যবস্থা, নগরায়ণসহ উন্নয়নের কর্মযজ্ঞ শুরু হয়েছে। দেশের মানুষের জীবন যাত্রার মানও বেড়েছে। তিনি বলেন, জাতির জনককে এই দেশের মানুষ বিশ্বাস করছে বলে নয় মাসে দেশ স্বাধীন হয়েছে। খাদ্য খাটতির দেশ, খাদ্যে উদ্বৃত্তের দেশে পরিনত হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বের জন্য। শেখ হাসিনার দূরদর্শি নেতৃত্বের জন্য দেশের প্রতি ক্ষেত্রে পরিবর্তন এসেছে। এখন শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে বাংলাদেশকে মর্যাদাশীল রাষ্ট্রে পরিনত করতে হবে। তাজুল বলেন, মৌলবাদ, জঙ্গিবাদ এবং সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় শেখ হাসিনা সবসময়ই আপোষহীন। ২০০৯ সালে সরকার পরিচালনায় দায়িত্ব নিয়ে তার সরকার ১৯৭১ সালে সংঘটিত মানবতাবিরোধী ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করে দেশকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন। তাজুল ইসলাম বলেন, শত বাধা-বিপত্তি এবং হত্যার হুমকিসহ নানা প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে শেখ হাসিনা ভাত-ভোট এবং সাধারণ মানুষের মৌলিক অধিকার আদায়ের জন্য অবিচল থেকে সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন। মন্ত্রী আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের জনগণ অর্জন করেছে গণতন্ত্র ও বাক-স্বাধীনতা। বাংলাদেশ পেয়েছে নিম্ন-মধ্যম আয়ের দেশের মর্যাদা। শেখ হাসিনার অপরিসীম আত্মত্যাগের ফলেই বাংলাদেশ আজ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সক্ষম হয়েছে। তাঁর শাসনামলে আর্থ-সামাজিক খাতে দেশ অভূতপূর্ব অগ্রগতি অর্জণ করেছে। রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও মানবাধিকারের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসিকতা ও দূরদর্শিতায় আজ দেশ উন্নয়নশীল দেশের তালিকায় স্থান করে নিয়েছে। এসময় বঙ্গবন্ধু পাঠাগার ও শিশু পার্কের জন্য মন্ত্রণালয় থেকে অনুদান দেয়ার আশ্বাস দেন মন্ত্রী। অনুষ্ঠানে স্থানীয় সংসদ সদস্য রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সভাপতি এ.বি.এম ফজলুল কবির চৌধুরী, উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার চৌধুরী, স্থানীয় সরকার প্রকৌকল অধিদপ্তর এর প্রধান প্রকৌশলী সুশংকর চন্দ্র আচার্য, স্থানীয় সরকার চট্টগ্রাম বিভাগের উপ-পরিচালক ইয়াছমিন পারভিন তিবরীজিসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় পাতার আরো খবর