শুক্রবার, এপ্রিল ৩, ২০২০
প্রকাশ : 2020-01-27

আমার ওয়ার্ডকে একটি মডেল ওয়ার্ড হিসাবে গড়তে চাই: কাউন্সিলর জসিম

২৭জানুয়ারী,সোমবার,কমল চক্রবর্তী,বিশেষ প্রতিনিধি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে নিউজ একাত্তর ধারাবাহিক ভাবে বর্তমান কাউন্সিলরদের নির্বাচন ভাবনা, এলাকার উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন, মাদক ও সন্ত্রাস নির্মূলে ভুমিকা এবং এলাকার উন্নয়ন পরিকল্পনার চিত্র তুলে ধরছে। এরই ধারাবাহিকতায় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৯ নং উত্তর পাহাড়তলি ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর মোঃ জহুরুল আলম জসিম এলাকার উন্নয়ন ও আগামী নির্বাচন নিয়ে তার পরিকল্পনার কথা নিউজ একাত্তর এর কাছে তুলে ধরেন। শনিবার ২৩শে জানুয়ারি বিকালে তার নিজ কার্যালয়ে নিউজ একাত্তরকে দেয়া একান্ত এক সাক্ষাৎকারে তিনি তার নানা কর্মকাণ্ড ও এলাকার উন্নয়ন চিত্র তথা আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি এলাকা উন্নয়নে কি কি কাজ করবেন তা সবিস্তর ব্যক্ত করেছেন। কাউন্সিলর মোঃ জহুরুল আলম জসিম জানিয়েছেন, জনগন চাইলে তিনি আবার নির্বাচন করবেন এবং তিনি আশাবাদী এলাকায় যে সকল কাজ করেছেন তাতে এলাকার জনগন তাকে পুনরায় আবার কাউন্সিলর হিসাবে নির্বাচিত করবে। তিনি ওয়ার্ডেকে একটি মডেল ওয়ার্ড গড়তে চান। তিনি সব সময় জনগনের পাশে থাকবেন। তিনি আরো জানান, এলাকার প্রতিটি রাস্তা পাকাকরন ও সম্প্রসারণ করেছেন। প্রায় ৯০ শতাংশ রাস্তা পাকাকরনের কাজ হয়েছে। বাকি কাজ গুলো চলমান আছে। সেই সাথে সকল কাঁচা রাস্তা গুলো পাকাকরনের কাজ করছেন। ড্রেন গুলো সম্প্রসারণ করেছেন। রাস্তায় ব্যপক এলইডি বাল্ব স্থাপন করেছেন। এলাকার ময়লা আবর্জনা অপসারনের জন্য ডাস্টবিন বসানো হয়েছে। সেই সাথে ডোর টু ডোর ময়লা অপসারনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এখানে প্রায় ৪০ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী রয়েছে যারা প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে। এই ওয়ার্ড একটি ময়লা আবর্জনা মুক্ত ওয়ার্ড। অচিরেই এই ওয়ার্ডকে একটি মডেল ওয়ার্ডে রুপান্তরিত করা হবে। মেয়রের ঘোষিত ক্লিন সিটি ও গ্রিন সিটি বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন। পাহাড়তলি বালিকা স্কুল এন্ড কলেজ কে কলেজে রূপান্তর করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয় সম্প্রসারণ করা হয়েছে। মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদের ব্যপারে তিনি জিরো টলারেন্স। প্রশাসনের সহযোগিতায় মাদকের আস্তানা উচ্ছেদ করেছি। এই ওয়ার্ড অনেকটাই মাদক, সন্ত্রাস মুক্ত ওয়ার্ড হিসাবে পরিনত হয়েছে। তিনি জানান, এই এলাকায় জলাবদ্ধতার সমস্যা নেই। অলংকার এলাকায় কিছুটা জলাবদ্ধতার সমস্যা ছিল। ড্রেন সম্প্রসারন ও পরিষ্কার করার ফলে এখন আর জলাবদ্ধতা হয় না। আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে তিনি তার কাজের ধারা অব্যহত রাখবেন। ওয়ার্ডকে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত একটি মডেল ওয়ার্ডে রুপান্তরিত করবেন। জনগনের পাশে আছেন এবং থাকবেন। প্রতিবেদকের সাথে কথা হয় ৯ নং উত্তর পাহাড়তলি ওয়ার্ডের কয়েকজন এলাকাবাসীর সাথে এখানে তাদের মতামত তুলে ধরা হলঃ ৯ নং উত্তর পাহাড়তলি ওয়ার্ডের বঙ্গবন্ধু চত্তর এলাকার স্থানীয় এক বাসিন্দা সাজেদুল ইসলাম (৪১) জানান, বর্তমান কাউন্সিলর এলাকা্র উন্নয়নে অনেক কাজ করেছেন। রাস্তা ঘাট গুলো সংস্কার করেছেন ও পাকাকরনের কাজ করেছেন। মাদক নির্মূলে ওনি মোটামুটি কাজ করেছেন। আগামী নির্বাচনে আবার নির্বাচিত হবে বলে আশা করি। ৯ নং উত্তর পাহাড়তলি ওয়ার্ডের নিউ মন্সুরাবাদ এলাকার এক ফল ব্যবসায়ী কবির হোসেন (৪৪) জানান, বর্তমান কাউন্সিলর ব্যক্তি হিসাবে ভালো। এলাকার রাস্তা ঘাটের পাকাকরনের কাজ করেছেন। ওনার আবার নির্বাচিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ৯ নং উত্তর পাহাড়তলি ওয়ার্ডের পূর্ব আকবর শাহ এলাকার এক মেডিসিন ব্যবসায়ী সাইফুল আলম (৩৯) জানান, জলাবদ্ধতার সমস্যা নেই বললেই চলে। রাস্তা ঘাটের ব্যাপক কাজ হয়েছে। সন্ত্রাস ও মাদকের সমস্যা থেকে পুরো পুরি মুক্ত নয় আমাদের এলাকা। তাছাড়া আমি মনে করি বর্তমান কাউন্সিলর এলাকায় উন্নয়ন কাজ করেছেন।

সাক্ষাৎকার পাতার আরো খবর