রবিবার, ফেব্রুয়ারী ১৬, ২০২০
প্রকাশ : 2020-02-15

আজ কোস্ট গার্ডের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান

১৫ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ১৪ ফেব্রুয়ারি ছিল বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। উপকূলীয় ও সমুদ্র নিরাপত্তাবাহিনীর ২৫তম এ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আজ শনিবার এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বাহিনীর সদর দপ্তরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গার্ড পরিদর্শন করবেন এবং বাহিনীর বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে বীরত্বপূর্ণ, সাহসিকতাপূর্ণ ও সেবামূলক কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ৪০ জন সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তা-কর্মচারীকে পদক পরিয়ে দেবেন। কোস্ট গার্ডের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও রজতজয়ন্তী অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন, আমন্ত্রিত সামরিক ও বেসামরিক অতিথি এবং বিদেশি কূটনীতিকরা উপস্থিত থাকবেন। উল্লেখ্য, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে বাংলাদেশ নৌবাহিনী অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে কোস্ট গার্ডের কার্যাবলি পালন করে আসছিল। এর পর ১৯৯৪ সালে তৎকালীন সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা শেখ হাসিনার উদ্যোগে একমাত্র বিরোধীদলীয় বিল- বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড প্রতিষ্ঠা বিল পাস হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৯৫ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অধীনে নৌবাহিনী থেকে দুটি জাহাজ ধার নিয়ে কোস্ট গার্ডের যাত্রা শুরু হয়। এরপর থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ কোস্ট গার্ড দিবস হিসেবে পালন হয়ে এলেও এবার একদিন পর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ২০১৬ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি জাতীয় স্বার্থরক্ষায় কোস্ট গার্ডকে একটি বাহিনীতে পরিণত করতে যুগোপযোগী করে কোস্ট গার্ড আইন পাস হয়। কোস্ট গার্ডের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এবার বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে এই বাহিনীর রজতজয়ন্তী উদযাপিত হচ্ছে। চর ও দ্বীপাঞ্চলের স্থানীয় জনগণের মধ্যে বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহ, দুর্ঘটনাকবলিত জেলেদের জন্য লাইফ জ্যাকেট ও রেইনকোট বিতরণ, প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত গরিব ও দুস্থদের মধ্যে ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রক্তদান কর্মসূচি এবং প্রত্যন্ত উপকূলীয় এলাকার জনগণের মধ্যে রেডিও বিতরণ কর্মসূচিও নেওয়া হয়েছে।

জাতীয় পাতার আরো খবর