প্রকাশ : 2020-03-18

প্রয়োজন হলে শাটডাউন করা হবে : ওবায়দুল কাদের

১৮মার্চ,বুধবার,রাজনীতি ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সড়ক পরবিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে যেখানে শাটডাউনের দররকা হবে সেখানে শাটডাউন করা হবে। আজ বুধবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক ইস্যুতে সংবাদ সম্মেলণে তিনি একথা বলেন। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রুখতে শাটডাউন করা হবে কিনা-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, শাটডাউন প্রয়োজন হলে করা হবে, যেখানে যেখানে প্রয়োজন। কারণ এখানে সবার আগে মানুষকে বাঁচাতে হবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, পরিবহন মালিকরা হতাশ, যাত্রী কমে গেছে। এগুলো অটোমেটিকালি কমে যাবে। পরিস্থিতি কমিয়ে ফেলবে। তারপরও যদি প্রয়োজন হয় আমরা ব্যবস্থা নেবো। তিনি বলেন, আমাদের শত্রু করোনা ভয়ঙ্কর। আমরা জাতি হিসেবে গতকালও প্রমাণ করেছি ভয়ঙ্কর করোনার যে শক্তি তারচেয়েও বড় শক্তি আমাদের সম্মিলিত শক্তি। এ যুদ্ধের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী। এটা প্রতিরোধযোগ্য। আমরা এটি পরাজিত করতে পারবো বলে আশা করছি। অনেক বিদেশ ফেরতরা কোয়ারেন্টিনে থাকছেন না, তারা ঘুরে বেড়াচ্ছেন- সাংবাদিকরা এমন দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বিষয়ে সরকারিভাবে আমরা কঠোর নজরদারি করব। সাংবাদিক বন্ধুরাও রিপোর্ট করবেন, সঠিক রিপোর্ট। কারণ এখানে প্রাণ বাঁচানোর বিষয়। একটি প্রাণঘাতী বিশ্বের ভয়ংকর একটি ভাইরাসের বিরুদ্ধে আমরা লড়াই করছি। কাজেই এখানে যা যা করা প্রয়োজন আমাদের সকলকেই করা উচিত। রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এখানে রাজনীতি না করে আমি সকল রাজনৈতিক দলের কাছে অনুরোধ করব, আসুন এই করোনাভাইরাস আমাদের অভিন্ন শত্রু। এই শত্রুর মোকাবিলায় কোনো রকম পলিটিক্স না করে আমরা সত্যিকার অর্থে সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে এই ভয়ংকর শত্রুকে প্রতিরোধ করি। করোনা মোকাবিলায় মানসিক শক্তিই বড় শক্তি উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, এ বিষয়টা আমাদের নতুন অভিজ্ঞতা। সারা বিশ্বের জন্যই এটি আসলে নতুন অভিজ্ঞতা। মানসিকভাবে আমরা ওয়েল ইকুইপড, এটাই আসলে বড় শক্তি। এ ছাড়া যে ইকুইপমেন্ট দরকার তার ঘাটতি মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়সহ যার যার ঘাটতি আছে পূরণে প্রস্তুতি নিচ্ছে। আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি। এ ব্যাপারে আন্তরিকতার কোনো প্রকার ঘাটতি নেই।- একুশে টেলিভিশন

রাজনীতি পাতার আরো খবর