প্রকাশ : 2018-03-12

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকবে সিঙ্গাপুর

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকবে সিঙ্গাপুর। পাশাপাশি সংকটের স্থায়ী সমাধানে আসিয়ানভুক্ত দেশগুলো মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগ করবে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং। সোমবার স্থানীয় সময় সকালে দ্বিপাক্ষীক বৈঠকে সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এই আশ্বাস দেন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী। বৈঠক শেষে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব এবং বেসামরিক বিমান চলাচলে সহযোগীতা সংক্রান্ত দুটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। সিঙ্গাপুর সফরের দ্বিতীয় দিন ব্যস্ত সময় পাড় করেন সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার স্থানীয় সময় সকালে দেশটির রাষ্ট্রপতি হালিমা ইয়াকুবের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেন তিনি। প্রেসিডেন্ট ভবন ইস্তানায় পৌঁছালে শেখ হাসিনাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়। পরে, দেশটির প্রেসিডেন্ট হালিমা ইয়াকুবের সাথে দ্বিপাক্ষীক বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে, একই ভবনে সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং এর সাথে দ্বিপাক্ষীক বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠকে ব্যবসা ও বিনিয়োগ বৃদ্ধি, বিমান চলাচল ব্যবস্থাপনা, শিক্ষাসহ দুদেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন দুই নেতা। চলমান রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সিঙ্গাপুরের সহযোগীতাও চান শেখ হাসিনা। এসময়, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশের পাশে থাকার পাশাপাশি সংকটের স্থায়ী সমাধানে আসিয়ানভুক্ত দেশগুলো মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ প্রয়োগ করবে বলে আশ্বাস্ত করেন সিঙ্গাপুরের প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং। বৈঠক শেষে, দুদেশের প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব এবং বেসামরিক বিমান চলাচলে সহযোগীতা সংক্রান্ত দুটি সমঝোতা স্মারক সই হয়। বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুরের মধ্যে বিমান চলাচল বিষয়ে সমঝোতা স্মারকে সই করেন বাংলাদেশ বেসরকারি বিমান চলাচল ও পর্যটন সচিব এবং সিঙ্গাপুরের যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের পার্মানেন্ট সেক্রেটারি। একইসঙ্গে সরকারি-বেসরকারি যৌথ অংশীদারিত্বের প্রকল্পে দুদেশের মধ্যে সহযোগিতা বাড়াতে অন্য সমঝোতা স্মারকে সই করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ অথরিটির নির্বাহী কর্মকর্তা এবং সিঙ্গাপুর ইন্টারন্যাশনাল এন্টারপ্রাইজ- এসআইইর নির্বাহী কর্মকর্তা। এদিকে, বিকেলে সিঙ্গাপুর বন্দর পরিদর্শনে যাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সন্ধ্যায় তিনি যোগ দেবেন সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ দূতাবাসের নৈশভোজে। আগামী ১৪ মার্চ দেশে ফেরার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।