ব্রেকিং নিউজ


add_27
মাদারীপুরে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা

০৪ এপ্রিল ২০২২, সাবরিন জেরিন,মাদারীপুর, নিউজ একাত্তর ডট কম :মাদারীপুরে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। গত এক সপ্তাহে জেলা সদর হাসপাতালেই ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন আড়াইশ’ রোগী। যার ৮০ ভাগই শিশু। হাসপাতালে পর্যাপ্ত রোগীর সিট না থাকায় বারান্দার ফ্লোরে থেকে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে রোগীদের। জানা গেছে, মাদারীপুর জেলা সদর হাসপাতালে ক্রমেই বেড়েই চলছে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। প্রতিদিন গড়ে সেবা নিচ্ছেন অর্ধশত রোগী, এছাড়া ভর্তি হচ্ছেন ৩০ জনেরও বেশি। শুধুমাত্র গত এক সপ্তাহেই চিকিৎসা নিয়েছেন আড়াইশ’ রোগী। যার অধিকাংশই শিশু ও বৃদ্ধ। রোগীর তুলনায় হাসপাতালের আসন সংখ্যা সীমিত হওয়ায় হাসপাতালের বারান্দায় দেয়া হচ্ছে চিকিৎসা। একদিকে গরমের অসহ্য যন্ত্রনা, অন্যদিকে রোগী চাপ বেড়ে যাওয়ায় পর্যাপ্ত সেবা না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ রোগী ও স্বজনরা। সদর হাসপাতালে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিতে মাত্র একজন নার্স কর্মরত রয়েছেন। আর ১শ’ শয্যার এই হাসপাতালে ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর জন্য আসন সংখ্যা মাত্র ৬টি। দুই বছর পূর্বে ত্রিশ কোটি টাকা ব্যয়ে আড়াইশ’ শয্যার একটি আধুনিক হাসপাতাল নির্মাণ করে স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর। জনবল সংকটে হাসপাতালটি চালু হচ্ছে না। এই হাসপাতালটি চালু হলে স্বাস্থ্য সেবার মান বাড়বে বলে প্রত্যাশা করছেন রোগী, স্বজন ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। চিকিৎসা নিতে আসা এক শিশুর মা বলেন, ছেলে অসুস্থ হওয়ার পর হাসপাতালে নিয়ে আসি। বেড না পাওয়ায় ফ্লোরে চিকিৎসা নিচ্ছি। হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবার মান বাড়ানোর পাশাপাশি আসন সংখ্যাও বাড়ানো দরকার। এক বৃদ্ধ বলেন, গরীব মানুষ। তাই সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি। কিন্তু নিচে থেকেই চিকিৎসা নিতে হচ্ছে। মাত্র একজন নার্স সবসময় সেবা দিচ্ছে। মাদারীপুর জেলা সদর হাসপাতালের তত্ত্বধায়ক ডা. মুনীর আহম্মেদ খান বলেন, পঁচা-বাসি খাবার এড়িয়ে চলতে হবে। পাশাপাশি পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। এছাড়া আবহাওয়া পরিবর্তনের কারনেও ডায়রিয়া বেড়েছে। শিশুদের প্রতি বাবা-মায়ের পর্যাপ্ত খেয়াল রাখতে হবে।

add_28

নিউজটি শেয়ার করুন

Facebook
এ জাতীয় আরো খবর..
add_29
সর্বশেষ আপডেট
জনপ্রিয় সংবাদ

add_30
add_31
add_32

সংবাদ শিরোনাম ::