এডিসের লার্ভা পাওয়ায় বাড়ি মালিকদের ৫৪ হাজার টাকা জরিমানা
৮জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় সংশ্লিষ্ট ভবন মালিকদের ৫৪ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত। নগরীর ৫৪টি ওয়ার্ডে চলমান বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযানের (চিরুনি অভিযান) তৃতীয় দিনে আজ ১৪ হাজার ৫৩টি বাড়ি, স্থাপনা, নির্মাণাধীন ভবন পরিদর্শন করে ১৭৫টিতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়। ৯ হাজার ৫৬৭টি বাড়ি ও স্থাপনায় এডিস মশা বংশবিস্তার উপযোগী পরিবেশ অর্থাৎ বিভিন্ন স্থানে ৩ দিনের বেশি জমা পানি পাওয়া যায়। এসকল স্থান ডিএনসিসির পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা পরিষ্কার করেন এবং মশকনিধন কর্মীগণ মশার কীটনাশক প্রয়োগ করেন। এছাড়া এডিসের লার্ভা পাওয়ায় ৯টি মামলায় মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ৫৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। অভিযানকালে পরিত্যক্ত টায়ার, বালতি, ফুলের টব, বোতল, পানির মিটার, গ্যারেজ, পানির হাউজ, মাটির পাত্র, ভাঙ্গা মগ, বাড়ির মেঝে, পানির ট্যাংক, প্লাস্টিকের পাত্র, ছাদের ড্রেন, দইয়ের পাত্র, পরিত্যক্ত কমোড, ডাবের খোসা, ভাঙ্গা পাতিল, দুই বাড়ির মধ্যবর্তী স্থান, বেইজমেন্ট ইত্যাদি স্থানের জমে থাকা পানিতে এডিসের লার্ভা পাওয়া যায়। গত ৬ জুন থেকে আজ পর্যন্ত ৩ দিনে ৫৪টি ওয়ার্ডে মোট ৩৯ হাজার ৮৩৭ টি বাড়ি, স্থাপনা, নির্মাণাধীন ভবন পরিদর্শন করে মোট ৫৩৯ টিতে এডিস মশার লার্ভা পাওয়া যায়। এবং ২৭ হাজার ৮০৩ টি বাড়ি/স্থাপনায় এডিস মশা বংশবিস্তার উপযোগী পরিবেশ পাওয়া যায়। এছাড়া এ ৩ দিনে মোট ১ লাখ ৫৩ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। চিরুনি অভিযান পরিচালনার উদ্দেশে প্রতিটি ওয়ার্ডকে ১০টি সেক্টরে ভাগ করা হয়েছে। আবার প্রতিটি সেক্টরকে ১০টি সাবসেক্টরে ভাগ করা হয়। প্রতিদিন প্রতিটি ওয়ার্ডের ১টি সেক্টরে অর্থ্যাৎ ১০টি সাবসেক্টরে চিরুনি অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। প্রতিটি সাবসেক্টরে ডিএনসিসির ৪ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও ১ জন মশক নিধনকর্মী, অর্থাৎ প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রতিদিন ৪০ জন পরিচ্ছন্নতাকর্মী ও ১০ জন মশককর্মী ডিএনসিসির আওতাধীন বিভিন্ন বাড়ি, স্থাপনা ও প্রতিষ্ঠানে গিয়ে কোথাও এডিস মশার লার্ভা আছে কিনা, কিংবা কোথাও তিন দিনের বেশি পানি জমে আছে কিনা, কিংবা ময়লা-আবর্জনা আছে কিনা, যা এডিস মশার বংশবিস্তারে সহায়ক, তা পরীক্ষা করছে। চলমান এই চিরুনি অভিযানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে ৯ জন কীটতত্ববিদ, ডিএনসিসির ৩ জন কীটতত্ববিদ, স্বাস্থ্য বিভাগ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের কর্মকর্তাগণ প্রত্যক্ষভাবে কাজ করছেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ডিএনসিসির চিরুনি অভিযানসহ এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন ধরনের কারিগরি সহযোগিতা প্রদান করছে। আগামী ১৫ জুনের মধ্যে সমগ্র ডিএনসিসিতে চিরুনি অভিযান সম্পন্ন করা হবে। চিরুনি অভিযান চলাকালে যেসব বাড়ি/স্থাপনায় এডিস মশার লার্ভা কিংবা এডিস মশা বংশবিস্তার উপযোগী পরিবেশ পাওয়া যাচ্ছে, তার ছবি, ঠিকানা, মোবাইল নম্বরসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য তাৎক্ষণিকভাবে একটি অ্যাপে সংরক্ষণ করা হচ্ছে। এর ফলে চিরুনি অভিযান শেষে ডিএনসিসির কোন কোন এলাকায় এডিস মশা বংশবিস্তার করে তার একটি ডাটাবেস তৈরি হবে। ডাটাবেস অনুযায়ী পরবর্তীতেও তাদেরকে মনিটর করা সহজ হবে।
যারা ইতিহাসকে অস্বীকার করে, তারা ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয় : তথ্যমন্ত্রী
৮জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বিএনপিকে উদ্দেশ করে বলেছেন, যারা ইতিহাসকে অস্বীকার করে, তারা ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়। িিতনি আজ দুপুরে রাজধানীতে বাংলাদেশ সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় নিজ দপ্তরে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বিএনপি কেন ৭ জুন ৬ দফা দিবস পালন করে না- এ প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন। আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান বলেন, ৭ জুন আমাদের ইতিহাসের অংশ, ৬ দফা আমাদের মুক্তির সনদ। এটি যারা পালন করে না, তারা প্রকৃতপক্ষে ইতিহাসকে অস্বীকার করে। কারণ ৭ জুন পালন করলে তো যে সংগ্রামের ধারাবাহিকতায় স্বাধীনতা অর্জিত হয়েছে, তাকে স্বীকার করা হয়। সেটিকে অস্বীকার করার জন্যই তারা সচেতনভাবে ৭ জুন পালন করে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, কারণ ইতিহাস বিকৃত করে তারা বলতে চায়, একজন শিঙ্গা ফুঁকেছিল, সেটি শুনে সবাই যুদ্ধে গিয়েছিল এবং বাংলাদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছিল। কিন্তু বিষয়টি তা নয়, বলেন তথ্যমন্ত্রী। বহু আগে থেকেই বঙ্গবন্ধু এদেশের স্বাধীনতার পরিকল্পনা করেছিলেন উল্লেখ করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ১৯৫১ সালে বঙ্গবন্ধু যখন জেলে ছিলেন, তখন কমরেড মনি সিংহকে চিঠি লিখেছিলেন যে, আমি বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরিকল্পনা করছি, আপনার এতে সমর্থন আছে কি না?অর্থাৎ ১৯৫১ সালের আগে থেকেই বঙ্গবন্ধু মুজিব বাংলাদেশের স্বাধীনতার পরিকল্পনা করেছিলেন। ড. হাছান বলেন, এই ঐতিহাসিক সত্যগুলোকে বিএনপি পালন করে না ইতিহাসকে অস্বীকার করার জন্য। কিন্তু যারা ইতিহাসকে অস্বীকার করে, তারা ইতিহাসের আস্তকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়। বিএনপিও ইতিহাসকে অস্বীকার করলে একদিন ইতিহাসের আস্তাকুঁড়েই নিক্ষিপ্ত হবে। তথ্যমন্ত্রী বলেন, ৯৬৬ সালের ৭ জুন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে ৬ দফা ঘোষণা করেছিলেন তা ছিল বাঙালির মুক্তির সনদ। তিনি স্বাধীনতার লক্ষ্যে বাঙালির মনন তৈরি করার জন্যই ৬ দফা ঘোষণা করেছিলেন। সেটির ভিত্তিতেই ১৯৭০ সালে নির্বাচন হয়েছিল এবং এই নির্বাচনে জাতির পিতার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছিল এবং তারই ধারাবাহিকতায় মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমাদের স্বাধীনতা অর্জন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার গণমাধ্যমবান্ধব সরকার উল্লেখ করে ড. হাছান জানান, প্রধানমন্ত্রী এ দুর্যোগের সময় বিপদগ্রস্ত সাংবাদিকদের সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন। সাংবাদিক সংগঠনগুলোর কাছ থেকে পাওয়া গেলে আগামী সপ্তাহে আমরা সহায়তা প্রদানের জন্য তালিকা চূড়ান্ত করতে পারবো বলে আশা করছি। মন্ত্রী এসময় করোনায় আক্রান্ত সাংবাদিকদের দ্রুত আরোগ্য এবং করোনা ও এর উপসর্গে মৃত্যুবরণকারী সাংবাদিকদের আত্মার শান্তি কামনা করেন। গণমাধ্যমকর্মীদের এসময় চাকুরিচ্যুতি না করার অনুরোধ জানিয়ে সকল পত্র-পত্রিকা ও ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের মালিকদের উদ্দেশ্যে তথ্যমন্ত্রী বলেন, মহামারির এ পরিস্থিতিতে মানুষ অত্যন্ত অসহায়। যারা বিভিন্ন কাজ করছেন, চাকুরি করছেন তারাও অসহায়। আমি আগেও অনুরোধ জানিয়েছি, আবারও অনুরোধ জানাই, এ পরিস্থিতিতে কাউকে যেন চাকুরিচ্যুত না করা হয়। সেই সাথে সবার বেতন-ভাতাও যেন নিয়মিত পরিশোধ করা হয়। কারণ এসময়ে চাকুরিচ্যুতি অত্যন্ত অমানবিক। আমি সেটি না করার জন্য অনুরোধ জানাই। বিএফইউজে মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ডিইউজে সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আলম তপু ও উপস্থিত সীমিতসংখ্যক গণমাধ্যম প্রতিনিধি এসময় গণমাধ্যমে ছাঁটাই বন্ধে মালিকদের প্রতি আহ্বানের জন্য তথ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।
আইসিটি বিভাগের ১৫১৭টি শূণ্য পদে দ্রুত নিয়োগের জন্য প্রতিমন্ত্রীর নির্দেশ
৮জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীন বিভিন্ন সংস্থা ও দপ্তরের ১ হাজার ৫১৭টি শূণ্য পদে দ্রুত নিয়োগের জন্য নির্দেশ প্রদান করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। আজ আগারগাঁওস্থ আইসিটি টাওয়ারে তার কার্যালয় থেকে আইসিটি বিভাগের অনলাইন রেভিনিউ সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ নির্দেশনা প্রদান করেন। প্রতিমন্ত্রী চাকরি প্রার্থীদের নিয়োগ প্রক্রিয়া অর্থ সাশ্রয়ী, হয়রানি মুক্ত এবং স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে ই-রিক্রুটমেন্ট ব্যবস্থা চালু করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। সভায় আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এ. বি. এম আরশাদ হোসেন, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম, কন্ট্রোলার অব সার্টিফাইং অথরিটিজর নিয়ন্ত্রক আবু সাঈদ চৌধুরী, ডিজিটাল নিরাপত্তা এজেন্সির মহাপরিচালক মো. রেজাউল করিম উক্ত অনলাইন সভায় সংযুক্ত হন।
এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজে মাসিক বেতন আদায় স্থগিত চেয়ে রিট
৮জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের মধ্যে সারাদেশে এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের মাসিক বেতন আদায় কার্যক্রম স্থগিত রাখার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করা হয়েছে। আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের দুই শিক্ষার্থীর অভিভাবকের পক্ষে এ রিট দায়ের করা হয়। আবেদনে শিক্ষা সচিব, শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক (ডিজি), দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান (মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক) ও আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষকে বিবাদী করা হয়েছে। সোমবার (৮ জুন) আবেদনের পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সাইফুর রহমান জানান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বেতন আদায় স্থগিত রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের দুই শিক্ষার্থীর অভিভাবকের পক্ষে গত ১৯ মে বিবাদীদের প্রতি আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু সংশ্লিষ্টরা কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় রিট আবেদন করা হয়েছে। আবেদনে বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাসের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্যে স্থবিরতা নেমে এসেছে। কর্মহীন হয়ে পড়েছে অনেক পেশাজীবী ও চাকরিজীবী। বিদ্যুৎ বিলসহ বিভিন্ন বিলে বিলম্ব ফি মওকুফ করা হয়েছে। ব্যাংক ঋণের বিষয়ে বলা হয়েছে, একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত বেনিফিট গ্রহণ করা যাবে না। সরকার বিভিন্ন সেক্টরে প্রণোদনা দিচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে নিম্নবিত্ত, নিম্ন-মধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষদের জীবিকা নির্বাহ করাটা অত্যন্ত কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সন্তানদের মাসিক বেতন পরিশোধে নোটিশ দেওয়া হচ্ছে। এসব কারণেই এমপিওভুক্ত স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের কাছে আদায়যোগ্য মাসিক বেতন স্থগিত রাখতে নির্দেশনা প্রয়োজন।
লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যার ঘটনায় আটক ৪
৮জুন,সোমবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশিকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় ৪ জনকে আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। রোববার (৭ জুন) দিনগত রাতে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে ওই ৪ ব্যক্তিকে আটক করা হয়। ডিএমপির উপ-কমিশনার (ডিসি) ওয়ালিদ হোসেন জানান, লিবিয়া ট্র্যাজেডিতে স্থানীয় দালাল, দেশীয় পাচারকারী ও লিবিয়া ক্যাম্পের মালিকসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। সোমবার (৮ জুন) বেলা সাড়ে ১১টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে অনুষ্ঠিতব্য সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান তিনি। এদিকে, রোববার লিবিয়া ট্রাজেডিতে তেজগাঁও থানায় দায়েরকৃত মামলায় গ্রেফতার সুজন মিয়া নামে একজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।
এখন থেকে নমুনা দিতে অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে
৭জুন,রোববার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: এখন থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের বুথগুলোতে কোভিড পরীক্ষার নমুনা দেয়ার আগে অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে। রোববার (৭ জুন) দুপুরে করোনা ভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন বুলেটিনে এ তথ্য জানান সংস্থাটির অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। স্বাস্থ্য অধিদফতরের বুথগুলোতে করোনা টেষ্ট করতে কোনো টাকা লাগে না। তাই কোন ধরণের অর্থ লেনদেন না করতেও অনুরোধ করা হয়। ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও ব্র্যাক কর্তৃক পরিচালিত করোনা নমুনা সংগ্রহ বুথ থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে সেবা প্রদান করা হয়। করোনাটেস্টডটব্র্যাকডটনেট (coronatest.brac.net) এই ওয়েবসাইটে গিয়ে অনলাইন রেজিস্ট্রেশন করে এলেই তার নমুনা সংগ্রহ করা হবে। করোনার থাবায় গোটা পৃথিবীর মতো দুর্বিসহ সময়ে আছে বাংলাদেশ। রোববার ৯২তম দিনে জানা গেলো, গত ২৪ ঘন্টায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন রেকর্ড ৪২ জন। এদিন প্রায় সাড়ে ১৩ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে ২ হাজার ৭৪৩ জনের দেহে পাওয়া গেছে অদৃশ্য এই ভাইরাস। এই পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি একশ জনের পরীক্ষা করলে ভাইরাস পাওয়া যাচ্ছে ২০ থেকে ২১ জনের দেহে। মারা যাওয়া ৪২ জনের মধ্যে পুরুষ ৩৫ জন এবং নারী ৭ জন। মারা যাওয়া ৩৪ জনের বয়সই ৪০ এর উপরে। বাকি ৮ জনের বয়স ৪০ এর নিচে। ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্তে ১২ হাজার ৮৪২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ৫২টি ল্যাবে আগের নমুনা মিলে পরীক্ষা করা হয় ১৩ হাজার ১৩৬টি নমুনা। এ নিয়ে দেশে মোট নমুনা পরীক্ষা করা হলো ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৯৮৭টি। নতুন নমুনা পরীক্ষায় আরও ২ হাজার ৭৪৩ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৬৫ হাজার ৭৬৯ জন। আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে রেকর্ড সংখ্যক ৪২ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৮৮৮ জনে। নাসিমা সুলতানা আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫৭৮ জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৯০৩ জন। বুলেটিনে প্রতিদিনের মতো বলা হয়, সবাই সব কিছু জানেন এবং বোঝেন; তাই জীবন বাঁচাতে নিজের ও নিজের পরিবারের দিকে তাকিয়ে হলেও স্বাস্থ্যবিধিগুলো মানতেই হবে।
জাফরুল্লাহর শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত
৭জুন,রোববার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। রোববার (৭ জুন) সকালে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের গণসংযোগ কর্মকর্তা মো. ফরহাদ এ কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, এখনো উনার অক্সিজেন সাপোর্ট চলছে। প্রয়োজনে দুই-চারটা কথা বলছেন। সকালে নিজেই নাশতা করেছেন। এর আগে শনিবার রাত ১০টার দিকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে জানানো হয়, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। যদিও উনি এখনো পুরোপুরি ঝুঁকি মুক্ত নন। উনাকে শুক্রবার (৬ জুন) রাতে ডায়ালাইসিস দেয়া হয়েছে এবং প্লাজমা থেরাপি দেয়া হয়েছে। আজও আবারো ডায়ালাইসিস দেয়া হয়েছে। স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাসের জন্য অক্সিজেন থেরাপি লাগছে। ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বর্তমানে নিজের স্থাপিত প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অধ্যাপক ডা. মামুন মুস্তাফি, অধ্যাপক ডা. নজীবের সার্বক্ষণিক তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন আছেন। গত ২৫ মে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট দিয়ে পরীক্ষাতেই তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এরপরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পিসিআর পরীক্ষাতেও তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তিনি গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
মধ্যবাড্ডায় দোকানে অগ্নিকান্ড
৭জুন,রোববার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রাজধানীর মধ্যবাড্ডায় আজ সকালে আগুন লেগে তিনটি দোকান পুড়ে গেছে। আগুন লাগার কিছুসময়ের মধ্যে নিয়ন্ত্রনে এসেছে। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স সদর দফতরের কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার লিমা খানম বাসসকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, রোববার সকাল ১০টা ৪ মিনিটে রাজধানীর মধ্যবাড্ডার প্রাণ সেন্টারের বিপরীতে তিনটি দোকানে অগুন লাগে। বৈদ্যুতিক সর্টসার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত হয়। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। বেলা ১১টার দিকে আগুন পুরোপুরি ভাবে নিভানো হয়। ফায়ার সার্ভিসের এ কর্মকর্তা আরও জানান, আগুনে এলাকায় প্রচুর ধোঁয়ার সৃষ্টি হয়। এসময় স্থানীয় লোকজন ও এলাকাবাসিরা ঘটনাস্থলে এসে ভীড় জমায় এবং দোকানের আগুন নেভানোর চেষ্টা চালায়। লিমা খানম জানান, আগুনে মুদি দোকানসহ তিনটি দোকান পুড়ে গেছে। এতে প্রায় ৮ লাখ টাকার মালামাল ও আসবাবপত্র ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। এসময় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় ২৫ লাখ টাকার মালামাল উদ্বার করছে।

জাতীয় পাতার আরো খবর