প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে গণভবনে তাপস-আতিক
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে গণভবনে যাচ্ছেন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থী। ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে এখন পর্যন্ত যে ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে, তাতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুই মেয়র প্রার্থী এগিয়ে আছেন। উত্তরে আওয়ামী লীগের আতিকুল ইসলাম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির তাবিথ আউয়ালের চেয়ে এগিয়ে আছেন। উত্তরে মোট ভোটকেন্দ্র ১ হাজার ৩১৮টি। এর মধ্যে এখন পর্যন্ত ৪৭৫ টির ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে আতিকুল নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১ লাখ ৬৪ হাজার ৮১৯ ভোট। আর বিএনপির তাবিথ ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৯৪ হাজার ৭৬৫ভোট। অন্যদিকে, দক্ষিণে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির ইশরাক হোসেনের চেয়ে এগিয়ে আছেন। উত্তরে মোট ভোটকেন্দ্র ১ হাজার ১৫০টি। এর মধ্যে এখন পর্যন্ত ৯৭৯টি কেন্দ্রের ফলাফল পাওয়া গেছে। এর মধ্যে তাপস নৌকা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ লাখ ৬৫ হাজার ৩২ ভোট। আর বিএনপির ইশরাক ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১ লাখ ৯৭ হাজার ৭৭৫ ভোট।
নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। নির্বাচন কমিশন ভবনে সাংবাদিকদের তিনি আরো বলেন, অলরেডি ফলাফল আসা শুরু করেছে। ভোটদানে বাধা বা এজেন্টদের বের করে দেয়ার বিষয়ে আমাদের কাছে কোন এজেন্ট এসে অভিযোগ করে নাই। ইভিএম সম্পর্কে অধিকাংশ ভোটাররাই সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছে। ইভিএমে ভোট গ্রহণে কারচুপির সুযোগ নাই। ফলাফল কাগজে বা হাতে লিখারও সুযোগ নাই। ৩০ শতাংশ এর নিচে ভোট হতে পারে। যারাই গিয়েছে ভোট দিয়ে এসেছে।ভোট দিতে না পারার কোন অভিযোগ পাইনি। তিনি আরো বলেন, কেউ চাইলে আমি পদত্যাগ করবো না।
জনশক্তিকে দক্ষ জনসম্পদে পরিনত করতে হবে:প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম:প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেছেন, বাংলাদেশের জনসংখ্যা দিনে দিনে বাড়ছে। জাতির পিতা যখন স্বাধীনতার ডাক দিয়েছেন তখন মানুষ ছিল সাড়ে সাত কোটি। এখন ষোলো কোটি। এইযে বিশাল জনসংখ্যা, এদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জন সম্পদে পরিনত করতে হবে। তবেই স্বার্থক হবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন। উন্নয়ন হবে মানবসম্পদের। মন্ত্রী আজ শনিবার চট্টগ্রাম সাকিট হাউজে বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও জনসচেতনতা শীর্ষক প্রচার, প্রেস ব্রিফিং ও সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন। সেমিনারে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান এর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং, বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড.আহম্মদ মনীরুছ সালেহীন, যুগ্মসচিব মোজাফফর আহমদ, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন, অতিরিক্ত ডিআইজি আমেনা বেগম, রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার চৌধুরী, চট্টগ্রাম পণ্য পরিবহন ও মালিক ফেডারেশন এর সভাপতি মো. আবদুল মান্নান উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে বীর বাহাদুর বলেন, অদক্ষতার জন্য বাংলাদেশের শ্রমিকরা বিদেশে উপযুক্ত মজুরি পান না। যুুগের সাথে তাল মিলিয়ে কারিগরি জ্ঞান অর্জন করলে বিদেশে উপযুক্ত মজুরি পাওয়া যায়। তবে বিদেশে শ্রমিক পাঠালে আগেই সে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা জানা দরকার বলে তিনি মন্তব্য করেন। টেকনিক্যাল টিচিং সেন্টার (টিটিসি) প্রশিক্ষকগণ প্রশিক্ষণ সঠিকভাবে দিচ্ছেন কিনা তদন্তকরে দেখা প্রয়োজন। তারা নিজেরাও প্রশিক্ষিত কিনা তাও ভাবার বিষয়। ভাষাগত দক্ষতা বেশি দরকার উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, নারী কর্মী বিদেশে গেলে তারা বেশি হয়রানির শিকার হয়। তারা বিদেশি গৃহকাজ করতে পারে না। সে জন্য গৃহকাজেরও প্রশিক্ষণ দেওয়া প্রয়োজন আছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী বলেন, সরকার প্রবাসী প্রবাসীদের উপযুক্ত ও দক্ষ জনশক্তি হিসেবে গড়ে তোলার জন্য দেশের প্রতি উপজেলায় (টিটিসি) প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করেছে। তিনি বলেন, ৬৪ জেলায় ৭০ টি (টিটিসি) নির্মাণ করা হয়েছে। ৪০ টি (টিটিসির) নির্মাণ কাজ চলমান আছে। আরো ৬০ টি প্রকল্পের ডিপিপিতে প্রস্তুত হচ্ছে। প্রবাসী শ্রমিকদের আয় দেশের জন্য একটা বড় আর্শিবাদ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, দালালচক্রের হাত থেকে প্রবাসী শ্রমিকদের রক্ষা করতে হবে। গত ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে প্রবাসী শ্রমিকরা র‌্যামিট্যান্স পাঠিয়েছেন ১৬.৫০ বিলিয়ন ডলার। সরকারকে প্রবাসীরাই সাহস জুগিয়েছেন পদ্মা সেতু, বঙ্গবন্ধু ইকনোমিক জোন, পায়রাবন্দর, কর্ণফুলী টানেলের মত বড় বড় উন্নয়ন কাজ করতে। মন্ত্রী আরো বলেন, এ বছর ৫০ হাজার কর্মী বিদেশে পাঠানোর টার্গেট নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও জাপানিজ, কোরিয়ান, আরবী, ইংরেজি, ক্যান্টনিজ ভাষায় প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। নারী কর্মীদের সুরক্ষা ও প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা সংস্কার করা হয়েছে এবং ৪০ টি টিটিসিতে হাউজ কিপিং কোর্সে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। সভায় রাঙ্গুনিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান এহসানুল হায়দার চৌধুরী, প্রবাসীদের বিদেশ ফেরতের সময় বিমান বন্দরে বিভিন্ন ধরনের হয়রানি বন্ধসহ আনীত পণ্যের শুল্কমুক্ত করার পরামর্শ দেন
প্রধানমন্ত্রী ৪ ফেব্রুয়ারি ইতালি সফরে যাবেন
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কন্টির আমন্ত্রণে চারদিনের দ্বিপাক্ষিক সফরে ৪ ফেব্রুয়ারি রোমের উদ্দেশে রওনা হবেন। এই সফরের সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৫ ফেব্রুয়ারি ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কন্টির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একটি সূত্র বাসসকে জানায়। প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট ৪ ফেব্রুয়ারি সকালে ইতালির রাজধানী রোমের উদ্দেশে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যাত্রা করবে। স্থানীয় সময় বিকেল সোয়া ৪টায় ফ্লাইটটি রোমের ফিয়ামিকিনো বিমানবন্দরে অবতরণ করার কথা রয়েছে। ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুস সোবহান সিকদার প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানাবেন। বিমানবন্দরে সংবর্ধনা শেষে, একটি আনুষ্ঠানিক মোটর শোভাযাত্রা সহকারে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে পার্কো দে প্রিন্সিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড স্পায় নিয়ে যাওয়া হবে। ইতালি সফরকালে তিনি সেখানে অবস্থান করবেন। শেখ হাসিনা একই দিন সন্ধ্যায় পার্কো দে প্রিন্সিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড স্পায় বাংলাদেশ কমিউনিটির একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। আগামী ৫ ফেব্রুয়াারি সকালে তিনি রোমের ভায়া ডেল এন্টারটাইড এলাকায় বাংলাদেশ দূতাবাসের চ্যান্সরি ভবনের উদ্বোধন করবেন। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ কন্টির সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা করবেন এবং ইতালির প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন পালাজো চিগিতে এক আনুষ্ঠানিক মধ্যহ্নভোজে যোগ দেবেন। দুই শীর্ষ নেতা সম্মেলনে বৈঠক করে তাদের দ্বিপক্ষীয় সার্বিক ইস্যুগুলোর পাশাপাশি আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। পরে, ইতালীয় ব্যবসায়িক সংস্থাগুলোর উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পার্কো দে প্রিন্সিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড স্পায় তাঁর হোটেল স্যুটে এসে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী পরে পার্কো দে প্রিন্সিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড স্পায় ইতালিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আয়োজিত নৈশভোজে অংশ নেবেন। আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি সকালে শেখ হাসিনা পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে সাক্ষাত করবেন। পরে প্রধানমন্ত্রী দুপুর ১২ টা ৫০ মিনিটে ট্রেনে করে রোম থেকে ইতালির মিলান শহরের উদ্দেশে যাত্রা করবেন এবং স্থানীয় সময় বিকেল চারটায় তিনি সেখানে পৌঁছে যাবেন। মিলান সফরের সময় তিনি এক্সেলসিয়ার হোটেল গালিয়ায় অবস্থান করবেন বলে সূত্র জানিয়েছে। আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি, প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় সময় দুপুর ১ টা ৪০ মিনিটে আমিরাতের একটি ফ্লাইটে মিলান মালপেন্সা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দেশের উদ্দেশে রওনা হবেন। শেখ হাসিনা ৮ ফেব্রুয়ারি দুবাই হয়ে বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ১০ মিনিটে ঢাকা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছবেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, তারা এই সফরটিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করছে, কারণ এতে বাংলাদেশের ইতালীয় উদ্যোক্তাদের নতুন বিনিয়োগের সন্ধান, ইতালিতে আরও পণ্য রফতানির পাশাপাশি দক্ষ জনশক্তি রফতানির ক্ষেত্র তৈরী হবে। ইতালি বাংলাদেশের অন্যতম বৃহত্তম ব্যবসায়িক অংশীদার এবং সেখানে দুই লাখেরও বেশি বাংলাদেশী বাস করে।
করোনাভাইরাস : চীন থেকে ৩১৬ জনকে নিয়ে ফিরলো বিশেষ ফ্লাইট
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে মরণঘাতী করোনা ভাইরাসের কারণে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের মধ্যে ৩১৬ জনকে নিয়ে আজ ঢাকায় পৌঁছেছে বাংলাদেশ বিমানের একটি বিশেষ ফ্লাইট। শনিবার দুপুর ১২টার দিকে ফ্লাইটটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। এর আগে চীনের স্থানীয় সময় শনিবার সকাল ৯টা ১০ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৭৭-৩০০ উড়োজাহাজটি দেশের পথে যাত্রা করে। চীনে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। চীনের উহানে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনতে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টা ৫ মিনিটে চীনের উদ্দেশে রওনা দেয় বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ওই বিশেষ ফ্লাইটটি। যে ফ্লাইটে করে ৩৬১ জনকে ফেরত আনার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত ৩১৬ জনকে আনা হয়। কিন্তু অন্যদের বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানা যায়নি। এদিকে, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন এএইচএম তৌহিদ-উল আহসান জানান, চীনের উহান থেকে ফেরত আসা বাংলাদেশিদের বিমান থেকে নামিয়ে প্রথমে আশকোনার হজ ক্যাম্পে রাখা হয়েছে। সেখানে তারা আগামী ১৪ দিন পর্যন্ত নিবিড় পর্যবেক্ষণে থাকবেন। এ সময় তারা পরিবারের সদস্যসহ কারও সঙ্গেই দেখা করতে পারবেন না। সম্প্রতি চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে প্রথম ছড়িয়ে পড়ে মরণাত্মক করোনা ভাইরাস। এতে ইতোমধ্যে দুই শতাধিক লোকের মৃত্যু এবং কয়েক হাজার লোক আক্রান্ত হয়েছে। একইসঙ্গে এই করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে চীনের বাইরেও বেশ কয়েকটি দেশে।
তাপসকে ভোট দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঢাকার সিটি কলেজ ভোট কেন্দ্রে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিলেন। শনিবার সকাল আটটায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই ভোট কেন্দ্রে ভোট দেয়ার পর বলেন ইভিএম ডিজিটাল পদ্ধতি। এখানে কোনো লুকোচুরি নেই। এখানে শঙ্কা কেনো প্রশ্ন তুলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখানে জালভোট দেয়ার সুযোগ নেই। ভোটচুরির অভ্যাস প্রয়োগ করতে তারা পারবে না। প্রধানমন্ত্রী এসময় জালভোট যারা দেন তাদের সমালোচনা করে বলেন, ইভিএম পদ্ধতিতে তা সম্ভব নয়। ভোট দেয়ার পর প্রধানমন্ত্রী জানান, আমি ভোট দিয়েছি। কাউন্সিল পদে শিলু ও বাবলাকে ভোট দিয়েছি। আমি দক্ষিণের ভোটার, তাপসকে ভোট দিয়েছি। আমরা আহ্বান করবো ঢাকাবাসীকে সুষ্ঠুভাবে ভোট দেওয়ার জন্য। ভোটের মধ্য দিয়ে নির্বাচিত প্রতিনিধি হবেন। উত্তরে আমাদের প্রার্থী আতিক। ইনশাল্লাহ সেও জয় যুক্ত হবে।খুব অল্প সময়ের মধ্যে আমি ভোট দিয়েছি। পর্যায়ক্রমে এই ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভোট দেওয়ার ব্যবস্থা করতে পারবে নির্বাচন কমিশন। প্রত্যেক ভোটার শান্তিমতো তার পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন। আমি আশা করি ঢাকা শহরবাসী নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীকে জয়যুক্ত করবেন। যেন এই ঢাকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলছে সেগুলো যেন আরো গতিশীল হয়। তিনি বলেন, ভোটের অধিকার জনগণের অধিকার, সাংবিধানিক অধিকার। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছে। ভোটাররা যেন শান্তিপূর্ণ ও স্বাধীনভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে সেজন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জনগণের যেন তার পছন্দমতো ভোট দিতে পারে। সেই পরিবেশ আমরা সৃষ্টি করেছি। আমরা জয়ী হয়ে ঢাকা শহরকে পরিচ্ছন্ন করে গড়ে তুলবো। এছাড়া নানা পরিকল্পনা রয়েছে সেগুলো বাস্তবায়ন করবো।সবাইকে আমার আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি। কূটনীতিকদের উদ্বেগের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, উদ্বেগ তারা প্রকাশ করতে পারেন। কারণ আমাদের অতীত ইতিহাস তো ভালো না। আস্তে আস্তে আমরা সেই অবস্থা থেকে উত্তোরণ ঘটিয়েছি। তাদের বিভিন্ন দূতাবাসে বাংলাদেশি চাকরি করেন। তাদেরকে বিদেশি পর্যবেক্ষক হিসেবে নিয়োগ দিয়ে তারা সঠিক কাজ করেননি। কারণ তারা কীভাবে বিদেশি পর্যবেক্ষক হয় কীভাবে? তারা তো সেখানে চাকরি করেন।
ভোট নিয়ে বিএনপির বিভিন্ন অভিযোগ নতুন কিছু নয়, বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
০১ফেব্রুয়ারী,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল শনিবার (০১ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউতে রাজধানী উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে নিজের ভোট প্রয়োগ শেষে সাংবাদিকদের একথা বলেন। তিনি বলেন, ভোট নিয়ে বিএনপির বিভিন্ন অভিযোগ নতুন কিছু নয়। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে রাজধানীজুড়ে সুন্দর ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বিএনপি যেসব অভিযোগ করছে, তা নতুন নয়। মন্ত্রী বলেন, সারা ঢাকা শহরে ভোটাররা শান্তিপূর্ণভাবে ভোট দিতে আসছেন। তবে এখন পর্যন্ত ভোটারদের উপস্থিতি কিছুটা কম রয়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের সংখ্যাও বাড়বে। বিভিন্ন কেন্দ্র থেকে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, তারা এমন কথা সবসময়ই বলে আসছে। এটা নতুন কিছু নয়। বিগত দিনগুলোতেও তাদের এমন কথা বলতে শুনেছি। সব জায়গায় সুন্দর পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী তাদের দায়িত্ব পালন করছে। কারও কোনো অভিযোগ থাকলে তাদের জানালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া প্রিজাইডিং অফিসার, পুলিং এজেন্টরা রয়েছেন, কোন বিষয়ে তারা আপত্তি জানালে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা বিষয়টি দেখবেন।
ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে হাসপাতালে যাবেন প্রধানমন্ত্রী
৩১জানুয়ারী,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের হাঠাৎ অসুস্থ হয়ে আজ শুক্রবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাকে দেখতে হাসপাতালে যাবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ শুক্রবার সকালে হঠাৎ শ্বাসকষ্ট অনুভব করায় বিএসএমএমইউয়ের কার্ডিওলজি বিভাগের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় ওবায়দুল কাদেরকে। প্রধানমন্ত্রী আজ কোনো এক সময় হাসপাতালে ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে যেতে পারেন বলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। অন্যদিকে ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, তাকে সিসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তার (কাদের) শ্বাসকষ্ট হয়েছিল। আমরা আমাদের সম্মানিত নেতার জন্য আপনাদের কাছে দোয়া চাই। উল্লেখ্য, গেল বছরের ৩ মার্চ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বিএসএমএমইউতে ভর্তি হয়েছিলেন ওবায়দুল কাদের। পরের দিন তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে তার বাইপাস অপারেশন করা হয়। সেখানে দুই মাসেরও বেশি সময় চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।
নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক, অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে: সিইসি
৩১জানুয়ারী,শুক্রবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক, অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার নূরুল হুদা। তিনি বলেছেন, আমরা পক্ষপাতদুষ্ট নির্বাচন করিনি, করবো না। শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ইভিএমসহ নির্বাচনীসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি আরও বলেন, এই দেশে নির্বাচন কমিশনের প্রতি রাজনৈতিক দলের আস্থা কোনোদিন দেখিনি। কমিশনের ওপর রাজনৈতিক দলগুলোর আস্থা-অনাস্থা তাদের মানসিকতার ওপর নির্ভর করে। সুতরাং যারা ক্ষমতায় আছেন তাদের বক্তব্য একরকম হবে আর অন্য দলের ইসির ওপর আস্থা আসবে না- এটা দেশের পকিটিক্যাল কালচার হয়ে দাঁড়িয়েছে। তিনি বলেন, সিটি নির্বাচন উপলক্ষে পর্যাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য আছে, নিরাপত্তার দিক থেকে কোনো অসুবিধা হবে না। ভোটাররা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন- এটাও বিশ্বাস করি না। ঢাকা সিটির সব ভোটারকে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে নূরুল হুদা বলেন, আগামীকাল নিরাপদে ভোট হবে, বিশেষ করে ইভিএমে ভোট হবে। প্রিজাইডিং অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ইভিএম বিষয়ে যথেষ্ঠ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। তারা যেকোনো সাহায্য-সহযোগিতা করবেন। ভোটাররা নিজেদের ইচ্ছামতো ইভিএমের মাধ্যমে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন এই আহ্বান জানাই আমি। কেন্দ্রে বহিরাগতরা প্রবেশ করে সমস্যা করতে চাইলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়ে সিইসি নূরুল হুদা বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বলেছি, তারা যেন নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটরা তাদের দায়িত্ব পালন করবেন। প্রার্থীরা নিজেদের ইচ্ছামতো প্রচারণা চালিয়েছেন। আমি মনে করি, তাতে ভোটারদের মধ্যে উৎসবমুখর পরিবেশ ও আস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

জাতীয় পাতার আরো খবর