ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সহিংসতায় গাজায় নিহত ৩৫, ইসরায়েলে ৫
১২,মে,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের মধ্যে বুধবার রাত ধরে পাল্টাপাল্টি রকেট ও বিমান হামলা হয়েছে। এতে গাজায় ৩৫ জন ও ইসরায়েলে পাঁচজন নিহত হয়েছেন। ২০১৪ সালের গাজা যুদ্ধের পর ইসরায়েল ও হামাসের একে অপরের বিরুদ্ধে এটিই সবচেয়ে বড় আক্রমণের ঘটনা। খবর রয়টার্সের বুধবারের প্রথম কয়েক ঘণ্টায় গাজায় বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল। অন্যদিকে হামাস তেল আবিব ও বিরশিবা এলাকায় রকেট হামলা চালায়। ইসরায়েলের হামলায় গাজার একটি ১৩তলা ভবন ধসে পড়ে ও আরেকটি ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ইসরায়েলে জানিয়েছে, বুধবার প্রথম প্রহরে তাদের জঙ্গি বিমানগুলো গাজার বিভিন্ন লক্ষ্যে হামলা চালিয়ে হামাসের গোয়েন্দা সংস্থার বেশ কয়েকজন নেতাকে হত্যা করেছে। তাদের অন্যন্যা লক্ষ্যগুলোর মধ্যে গাজার রকেট ছোড়ার স্থান ও হামাসের দপ্তর ছিল বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী। ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে সংঘর্ষের শুরু চলতি সপ্তাহের শুরুতে। আল আকসায় পবিত্র জুমাতুল বিদায় এই সংঘর্ষের সূত্রপাত। জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক শান্তি দূত তুর ভেনেস্ল্যান্ড টুইটে বলেন, অবিলম্বে এই আগুন বন্ধ কর। আমরা একটি পূর্ণ যুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। উত্তেজনা হ্রাসের জন্য সব পক্ষের নেতাদের দায়িত্ব নিতে হবে।
গ্রহাণু থেকে নমুনা নিয়ে রওনা দিয়েছে নাসার মহাকাশ যান
১১,মে,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বেন্নু গ্রহাণুতে কাজ সেরে এবার পৃথিবীতে ফিরছে নাসার মহাকাশযান ওসিরিস-রেক্স। সোমবার পৃথিবীর উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছে এটি। এই রোবটিক প্রসপেক্টরের পৃথিবীতে আসতে সময় লাগবে ২ বছর। ওসিরিস রেক্স বেন্নু গ্রহাণুতে পৌঁছেছিল ২০১৮ সালে। সেখানে সেটি ২ বছর সময় কাটায় এবং সেখান থেকে নমুনা সংগ্রহ করে। আরিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী দান্তে লরেটা জানিয়েছেন, এই মহাকাশ যানে আধ পাউন্ড থেকে ১ পাউন্ড (২০০ গ্রাম ও ৪০০ গ্রাম) পর্যন্ত বড় পাথর খণ্ড ধরে। তবে এটি তার ক্ষমতা কিছুটা বৃদ্ধি করতে পারে। অতিরিক্ত ২ আউন্স (৬০ গ্রাম) ওজনও বহন করতে সক্ষম এটি। অ্যাপোলো চাঁদ থেকে যে পাথর নিয়ে এসেছিল এটি তারপর সবচেয়ে বড় নমুনা সংগ্রহ। এছাড়া নাসা ধুলো ও বাতাসের নমুনাও সংগ্রহ করেছে। এই প্রথম কোনও গ্রহাণু থেকে এমন নমুনা সংগ্রহ করা হল। যদিও এর আগে জাপান ২ বার গ্রহাণু থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছে, কিন্তু তা ছিল খুবই সামান্য। এই প্রথম এতখানি নমুনা সংগ্রহ করা হল। বেন্নু থেকে নাসার এই মহাকাশ যান অনেক ছবি এবং তথ্যও সংগ্রহ করেছে। ছবিগুলো দুপুরের দিকে তোলা হয়। বেন্নুর পাথুরে জমি যাতে ছায়া ছাড়া স্পষ্ট ভাবে তোলা সম্ভব হয় তাই দুপুরের সময়টিকেই বেছে নেওয়া হয়। বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, এই পর্যবেক্ষণগুলো মূল মিশন পরিকল্পনার মধ্যে ছিল না। তাই তারা ফের তাদের কাজটি নথিভুক্ত করতে আগ্রহী। গ্রহাণু থেকে ২০০ মাইল (৩০০ কিলোমিটার) আসার পর সোমবার বিকেলে এটি তার মূল ইঞ্জিন চালু করে। বিজ্ঞানীদের আশা, এই নমুনা থেকে গবেষণা আরও অনেকদূর এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। বেন্নুর কালো, খসখসে, কার্বন সম্বৃদ্ধ পৃষ্ঠ থেকে যে নমুনা আনা সম্ভব হয়েছে তার উপর ভিত্তি করেই এমন আশা করছেন বিজ্ঞানীরা। এই গ্রহাণুটি ১ হাজার ৬০০ মিটার চওড়া এবং ৪.৫ বিলিয়ন বছর পুরনো। বেন্নু গ্রহাণুটি সূর্যকে প্রদক্ষিণ করে। কার্বন সমৃদ্ধ গ্রহাণুটি পৃথিবী থেকে ১৮২ মিলিয়ন মাইল (২৯৩ মিলিয়ন কিলোমিটার) দূরে রয়েছে। এর নমুনা পৃথিবীতে এসে পৌঁছনোর পর তা বিশ্লেষণ করে দেখবেন বিজ্ঞানীরা। ২০২৩ সালে পৃথিবীতে পৌঁছানোর কথা ওসিরিস রেক্স মহাকাশ যানের। এর মাধ্যমে সৌরজগতের গ্রহগুলো কীভাবে গঠন হয়েছিল সেই সম্পর্কে আরও তথ্য পাবেন বিজ্ঞানীরা।
৬ মিনিটে শেষ হলো মমতার নতুন মন্ত্রিসভার শপথ
১০,মে,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নিলেন। সোমবার (১০ মে) মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সরকাারের মন্ত্রিসভায় ৪৩ সদস্য শপথ নেন। করোনার কারণে এবার রাজভবনে ছোট আকারে মাত্র ছয় মিনিটেনর মধ্যে শপথ অনুষ্ঠান শেষ হয়। এবারের এই মন্ত্রিসভায় ৪৩ জন মন্ত্রী নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ২৪ জন পূর্ণ মন্ত্রী ও ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে মন্ত্রিসভার সদস্য ৪৪ জন। পূর্ণমন্ত্রীরা ভার্চ্যুয়াল মাধ্যমে শপথ নেন। পূর্ণ মন্ত্রী হতে যাচ্ছেন: সুব্রত মুখার্জি, পার্থ চ্যাটার্জি, অমিত মিত্র, সাধন পাণ্ডে, জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, বঙ্কিম চন্দ্র হাজরা, মানস রঞ্জন ভূঁইয়া, সৌমেন কুমার মহাপাত্র, মলয় ঘটক, অরূপ বিশ্বাস, উজ্জ্বল বিশ্বাস, অরূপ রায়, রথীন ঘোষ, ফিরহাদ হাকিম, চন্দ্রনাথ সিনহা, শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়, ব্রাত্য বসু, পুলক রায়, শশী পাঁজা, গোলাম রব্বানী, বিপ্লব মিত্র, জাভেদ আহমেদ খান, স্বপন দেবনাথ এবং সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। প্রতিমন্ত্রী: বেচারাম মান্না, সুব্রত সাহা, হুমায়ুন কবীর, অখিল গিরি, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, রত্না দে নাগ, সন্ধ্যারাণী টুডু, বুলু চিক বারিক, সুজিত বসু ও ইন্দ্রনীল সেন। প্রতিমন্ত্রী (স্বাধীন দপ্তর প্রাপ্ত): দিলীপ মণ্ডল, আখতারুজ্জামান, শিউলি সাহা, শ্রীকান্ত মাহাত, ইয়াসমীন সাবিনা, বীরবাহা হাঁসদা, জোৎস্না মান্ডি, অধিকারী পরেশ চন্দ্র এবং মনোজ তিওয়ারি।
অবশেষে চীনের রকেটের ধ্বংসাবশেষ পড়ল মালদ্বীপের কাছে সাগরে
০৯,মে,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিশ্বজুড়ে কয়েকদিনের শ্বাসরুদ্ধকর অপেক্ষার পর স্বস্তি মিলেছে। চাইনিজ ৫-বি রকেটের ধ্বংসাবশেষ পৃথিবীতে ফিরে এসেছে এবং তা মালদ্বীপের পাশে ভারত সাগরে পড়েছে। চীনের জাতীয় মহাকাশ সংস্থার বরাত দিয়ে ডেইলি মেইল জানিয়েছে, রোববার (৯ মে) বাংলাদেশ সময় সকাল সাড়ে আটটার দিকে রকেটটির ধ্বংসাবশেষ মালদ্বীপের ওপর দিয়ে পৃথিবীতে পুনরায় প্রবেশ করে। এরপর সেটি ভারত সাগরে আছড়ে পড়ে। ১৮ টন ওজনের এই রকেটের টুকরোটি ছিল গত কয়েক দশকের মধ্যে বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করা সবচেয়ে ভারী মহাকাশ বর্জ্য। শুক্রবার এক টুইটে যুক্তরাষ্ট্রের অ‌্যারোস্পেস করপোরেশন জানায়, তাদের সেন্টার ফর অরবিটাল রিএন্ট্রি এবং ডেব্রিস স্টাডিজ (সিওআরডিএস)-এর সবশেষ অনুমান অনুসারে, রোববার গ্রিনিচ মিন টাইম ০৪:১৯ মিনিটের (বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টা ১৯ মিনিট) আট ঘণ্টা আগে বা আট ঘণ্টা পরে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ করবে চীনের লং মার্চ ৫বি রকেটের ধ্বংসাবশেষ। সিওআরডিএসর অনুমানে রকেটটি পুনঃপ্রবেশের সম্ভাব্য অঞ্চল হিসেবে নিউজিল্যান্ডের নর্থ আইল্যান্ডের আশপাশের কথা বলা হয়েছে। অবশ্য পৃথিবীতে প্রবেশপথের যেকোনো জায়গায় সেটি আছড়ে পড়তে পারে বলেও জানায় তারা। অবশেষে সেটি মালদ্বীপের পাশে এসে পড়ল। চীনের জাতীয় মহাকাশ সংস্থা জানায়, রকেটটির ধ্বংসাবশেষ আছড়ে পড়ার আগেই এর বেশিরভাগ অংশ পুড়ে শেষ হয়ে যায়। এর ফলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ খুব কম হবে।
২৫ বার এভারেস্টে উঠে বিশ্বরেকর্ড
০৮,মে,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রেকর্ড ২৫তম বারের মতো বিশ্বের সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ মাউন্ট এভারেস্টের চূড়ায় আরোহণ করেছেন নেপালি পর্বতারোহী কামি রিটা শেরপা। এর মাধ্যমে নিজের করা আগের রেকর্ডটিই শুক্রবার (৭ মে) ভাঙলেন তিনি। এভারেস্টের চূড়ায় ওঠার জন্য ১২ সদস্যের একটি দলের সঙ্গী হন তিনি। দলের সবার আগে এভারেস্টের চূড়ায় উঠতে সক্ষম হন শেরপা। এ বিষয়ে এভারেস্টে অভিযান সংগঠন সেভেন সামিট ট্রেকসের সংগঠক মিংমা শেরপা বলেন, ২৫তম বারের মতো চূড়ায় উঠে কামি রিটা নতুন একটি রেকর্ড গড়েছেন। একটি বাণিজ্যিক আয়োজনের অংশ হিসেবে ১৯৯৪ সালে প্রথমবারের মতো ২৯ হাজার ২৯ ফুট পর্বতশৃঙ্গে আরোহণ করেন কামি রিটা। দীর্ঘ দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে পর্বতারোহীদের গাইড হিসেবে কাজ করে আসছেন তিনি। তখন থেকে প্রায় প্রতি বছরই এভারেস্টে ওঠেন তিনি। পর্বতারোহনের আগে কামি রিটা বলেন, এটা শুধু রেকর্ড ভাঙার ব্যাপার না...২০২০ সালে আমার ৫০ বছর বয়সে ২৫তম বারের মতো এভারেস্টের চূড়ায় উঠে উদযাপনের ইচ্ছা ছিল। কিন্তু কোভিডের কারণে তা আর হয়ে ওঠেনি। তাই এ বছর আমি নিজের স্বপ্নকে সত্যি করার উদ্যোগ নিই। শুধু এভারেস্টই নয়, বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পর্বতশৃঙ্গ পাকিস্তানে কে-২-সহ বেশ কিছু বড় বড় পাহাড়ের চূড়ায় ওঠার রেকর্ড রয়েছে কামি রিটার। তিনি বলেন, আমি আমার দেশের জন্য পাহাড়ে চড়ি। নেপালের পর্যটনের জন্য আমাদের মতো গাইডের প্রয়োজন। আমরা না থাকলে পর্যটকরা আসবেন না। ২০১৯ সালে তিনি দুবার এভারেস্ট আরোহণ করেন। এ বছরও তার তেমনই পরিকল্পনা রয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে নেপালের পর্যটন শিল্প মারাত্মক ধাক্কা খেয়েছে। গত বছর সেখানে রীতিমতো ধস নামে। চলতি বছর এভারেস্টে ওঠার জন্য ৪০৮ জনকে অনুমতি দিয়েছে দেশটি। এজন্য প্রত্যেক আরোহীকে গুনতে হয়েছে ১১ হাজার মার্কিন ডলার। প্রত্যেক আরোহীর সঙ্গে থাকেন নেপালি গাইড।
একজন রোগী নিয়ে যাচ্ছিল বিমান, মাঝ আকাশে খুলে পড়ল চাকা
০৭,মে,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের নাগপুর থেকে হায়দরাবাদগামী একটি এয়ার অ্যাম্বুলেন্স আকাশে থাকা অবস্থায় তার একটি চাকা খুলে মাটিতে পড়ে গেছে। তবে এ ঘটনার পর বিমানটি নিরাপদেই ইমার্জেন্সি ল্যান্ডিং করেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন জানাচ্ছে, নাগপুর থেকে একজন রোগী ও একজন চিকিৎসককে নিয়ে হায়দরাবাদ যাচ্ছিল বিমানটি। তবে আকাশে ওড়ার পরই ত্রুটি দেখা যায় এর যন্ত্রাংশে। তার একটি চাকা খুলে মাটিতে পড়ে যায়। এরপর সেটিকে দ্রুত ইমার্জেন্সি ল্যান্ডিং করানো হয়। পরিকল্পনা মতো, মুম্বাই বিমানবন্দরে বিমানটি নামানো হয়। জানা গেছে, ল্যান্ডিং গিয়ার ব্যবহার না করে বেলি ল্যান্ডিংয়ের পরিকল্পনা করেছিলেন চালক। অর্থাৎ বিমানের চাকা ভেতরে না ঢুকিয়েই তাকে মাটিতে নামিয়ে আনা। সে কারণে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে রানওয়েতে ফোমের ব্যবস্থা করেছিলেন বিমানবন্দরের কর্মীরা। চালক কেশরী সিং জানিয়েছেন, যখন দেখলাম বিমানটির চাকা খুলে পড়ে গেছে, তখন বুঝেছিলাম নামতে হলে অনেকটা জ্বালানি পোড়াতে হবে। আমি বেলি ল্যান্ডিংয়ের পক্ষে ছিলাম। তবে জানতাম না রানওয়ের কোনও ক্ষতি হবে কি-না। অবশেষে সব কিছু ঠিক ভাবে হয়েছে।
করোনা টিকার পেটেন্ট উন্মুক্তের প্রস্তাবে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন
০৬,মে,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা ভাইরাসের টিকার পেটেন্ট সবার জন্য উন্মুক্ত করার প্রস্তাবে সমর্থন দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বৃহস্পতিবার (৬ মে) এ খবর দিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। এই সিদ্ধান্ত নিতে প্রেসিডেন্টকে চাপ দিয়েছিলেন ডেমোক্রেটিক দলের আইনপ্রণেতারা। তবে ধারণা করা হচ্ছে ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিগুলো এ সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ হবে। প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য প্রতিনিধি ক্যাথেরিন টাই এক বিবৃতিতে বলেছেন, করোনা একটি বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সংকট। পরিস্থিতি এখন অস্বাভাবিক, তাই ভিন্ন ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে হচ্ছে। মেধাসম্পদ উন্মুক্ত হলে বিশ্বজুড়ে টিকার উৎপাদন বাড়বে এবং দরিদ্র দেশগুলোর টিকাপ্রাপ্তির পথ আরও সুগম হবে বলে মনে করা হচ্ছে। বাইডেন প্রশাসনের এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদ্রোস আধানম গ্যাব্রিয়েসুস। তিনি এটিকে করোনা মহামারির বিরুদ্ধে একটি স্মরণীয় মুহূর্ত বলে মন্তব্য করেছেন। নির্বাচনের আগে থেকেই করোনা টিকার মেধাসম্পদ উন্মুক্ত করার কথা বলে আসছিলেন জো বাইডেন। ক্ষমতালাভের পরে সেই অবস্থান বদলাননি তিনি। আগে মেধাসম্পদ উন্মুক্তের প্রস্তাবে তীব্র বিরোধিতা করেছিল ট্রাম্প প্রশাসন।
শপথ নিয়েই যে প্রতিশ্রুতি দিলেন মমতা
০৫,মে,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: টানা তৃতীয়বারের মতো ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। বুধবার (৫ মে) স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় ১১টা ২০ মিনিট) শপথ বাক্য পাঠ করেন তিনি। তাকে শপথ বাক্য পাঠ করান রাজ্যপাল। এদিকে, শপথ নিয়েই মমতা জানালেন, তার প্রথম কাজ হবে রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি মোকাবিলা করা। শপথ নেওয়ার পরে নবান্নে গিয়েই করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক করবেন তিনি। মমতা বলেন, আমাদের প্রথম অগ্রাধিকার হল করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মোকাবিলা করা। আমি নবান্নে আলোচনা করব। সমস্ত রাজনৈতিক দলের কাছে আবেদন যে শান্তি বজায় রাখুন। আমি অশান্তি (সহিংসতা) পছন্দ করি না। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটালে কড়া ব্যবস্থা নিতে পিছপা হব না। আমি অশান্তি পছন্দ করি না।
কঠোর সমালোচনার পর যুক্তরাষ্ট্রে সর্বোচ্চ ৬২,৫০০ শরণার্থী রাখার অনুমতি বাইডেনের
০৪,মে,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, তিনি যুক্তরাষ্ট্রে তার পূর্বসূরি ডোনাল্ড ট্রাম্পের আরোপ করা সর্বোচ্চ সীমা ১৫ হাজার থেকে শরণার্থীর সংখ্যা বৃদ্ধি করে ৬২ হাজার ৫০০ করার অনুমোদন দিয়েছেন। খবর এএফপির। ট্রাম্পের শাসনামলের সীমা ধরে রাখার ব্যাপারে তার আগের সীদ্ধান্তের জন্য মিত্রদের পক্ষ থেকে বাইডেনের কঠোর সমালোচনার পর এক্ষেত্রে তিনি এ পরিবর্তন আনলেন। এক বিবৃতিতে বাইডেন বলেন, এই শরণার্থীর সংখ্যা হ্রাস করে আগের প্রশাসন কর্তৃক ১৫ হাজার নির্ধারণ করা ঐতিহাসিকভাবে কম সংখ্যা ছিল। শরণার্থীদের স্বাগত এবং সমর্থন জানানো একটি দেশ হিসেবে তাতে আমেরিকার মূল্যবোধের প্রতিফলন ঘটেনি। এই নতুন সীমা শরণার্থীদের নেয়ার ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের সক্ষমতা বাড়ানোর ব্যাপারে ইতোমধ্যে চলমান থাকা বিভিন্ন প্রচেষ্টা ফের জোরদার করা হবে ,যাতে আমরা ১ লাখ ২৫ হাজার শরণার্থী গ্রহণের উদ্দেশ্য পূরণ করতে পারি। আর আগামী অর্থ বছরেই আমি এটা নির্ধারণের ব্যাপারে আগ্রহী। গত মাসে হোয়াইট হাউস জানায়, তাদের ট্রাম্প পরবর্তী শরণার্থী কর্মসূচি পুনর্গঠনে আরো সময়ের প্রয়োজন রয়েছে। তাই তারা এ বছরের জন্য শরণার্থীদের ১৫ হাজারের সীমা ধরে রাখবে। এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর একজন শীর্ষ ডেমোক্রেট এবং বিভিন্ন শরণার্থী ত্রাণ গ্রুপ বাইডেনের কঠোর সমালোচনা করে।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর