সেপ্টেম্বরে বিধি-নিষেধ তুলে নেয়ার পরিকল্পনা কানাডার
৩,মার্চ,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাস মোকাবেলায় ফ্রন্টলাইনের যোদ্ধাদের টিকা দেয়া শেষে এখন ৮০ বছরের বেশি বয়সী সাধারণ নাগরিকদের টিকা দিতে শুরু করেছে কানাডা। আগামী সেপ্টেম্বর মাস থেকে সব ধরনের বিধি-নিষেধ তুলে নিয়ে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা শুরুর পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছে কানাডার স্বাস্থ্য বিভাগ। দেশটি টিকা দেয়ার ক্ষেত্রে কিছুটা পিছিয়ে পরলেও যা দেয়া হয়েছে সেগুলো অসাধারণভাবে কাজ করতে শুরু করেছে বলে জানিয়েছে পাবলিক হেলথ এজেন্সি। কানাডার জনস্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, এখন থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আগের প্রাক্কলনের চেয়ে বেশি মানুষকে টিকা দেয়ার লক্ষ্য ধরা হয়েছে। দেশটিতে টিকা বিতরণ কর্মসূচির প্রধান মেজর জেনারেল ড্যানি ফর্টিন বলেন, ভ্যাকসিনের সরবরাহ সংকট থেকে আমরা বেরিয়ে আসতে শুরু করেছি। বসন্ত ও গ্রীষ্মে পর্যাপ্ত পরিমাণ সরবরাহ পাওয়া যাবে। এর ফলে প্রদেশগুলোতে ভ্যাকসিনেশনের গতি লক্ষণীয় মাত্রায় বাড়াতে পারব। তিনি বলেন, মার্চ শেষে দুই কোম্পানির ৬০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহের যে কথা ছিল তা পূরণ করার পথে রয়েছি। এর মধ্যে ফাইজার সরবরাহ করবে ৪০ লাখ ও মডার্না ২০ লাখ ডোজ। মডার্না এখন পর্যন্ত কানাডায় ৫ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ করেছে। আগামী সপ্তাহে তারা ১ লাখ ৬৮ হাজার ডোজ ভ্যাকসিন সরবরাহ করবে। প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী মার্চের মধ্যেই যাতে মডার্নার কাছ থেকে ১৩ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন পাওয়া যায় সেজন্য কোম্পানিটির সঙ্গে আলোচনা চলছে। দুই চালানে সেটি আসবে। এরআগে টিকা কর্মসূচির ধীরগতির কারণে বিরোধীদল ও সমালোচকদের চাপের মুখে পড়তে হয় ফেডারেল সরকারকে। জানুয়ারিতে সরবরাহ কমিয়ে দেয় ফাইজার। সাম্প্রতিকও সরবরাহ কমিয়েছে মডার্নাও। সরবরাহ সংকটের কারণে অন্যান্য দেশের তুলনায় টিকা কার্যক্রমে পিছিয়ে পড়ে কানাডা। সম্প্রতি এ সঙ্কট কাটিয়ে উঠার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। কানাডার জনস্বাস্থ্য এজেন্সির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কয়েক সপ্তাহ কমার পর স্বাভাবিকতায় ফিরেছে ফাইজার-বায়োএনটেক ও মডার্নার ভ্যাকসিন সরবরাহ। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের সংখ্যা ৮ লাখ ৭২ হাজার ৭শ ৪৭ জন। আর মৃত্যুবরণ করেছেন ২২ হাজার ৪৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮ লাখ ২০ হাজার ৪শ ৫০ জন।
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার আহ্বান জাতিসংঘের
২,মার্চ,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: কারাগারে বাংলাদেশি লেখক মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। দ্রুত এ ঘটনার স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ তদন্ত নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সংস্থাটির মানবাধিকার বিষয়ক হাইকমিশনার মিশেল বাশেলেট। একই সঙ্গে বাংলাদেশের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পুনর্বিবেচনার আহ্বানও জানানো হয়েছে সংস্থাটির পক্ষ থেকে। সোমবার (১ মার্চ) এক বিবৃতিতে বাশেলেট বলেন, আইনটির পুঙ্খানুপুঙ্খ বিশ্লেষণ জরুরি। আইনটির অধীনে আটকদের দ্রুত মুক্তির দাবিও করেন জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক এই দূত। গত বছরের মে মাসে লেখক মুশতাককে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার করা হয়। এরপর নয় মাস তিনি কারাবন্দি ছিলেন। বার বার জামিন আবেদন করা হলেও তা প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি কারাগারেই মারা যান তিনি। একই অভিযোগে এখন আটক রয়েছেন কার্টুনিস্ট আহমেদ কিশোর। তার ওপর নির্যাতনের অভিযোগের বিষয়ে হাইকমিশনার মিশেল বাশেলেট উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, অভিযোগের তাৎক্ষণিক ও কার্যকর তদন্ত করতে হবে। একই সঙ্গে কিশোরের নিরাপত্তা এবং সুস্থতা নিশ্চিত করতে হবে। এ সময় মানবাধিকারের প্রতি বাংলাদেশের বাধ্যবাধকতার বিষয়টি স্মরণ করিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ সরকারকেই মুশতাকের মৃত্যুর ঘটনা তদন্তের বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে। অপর আটককৃতদের সঙ্গে অসদাচরণের যে অভিযোগ এসেছে তারও দ্রুত তদন্ত হওয়া উচিত। মুশতাকের মৃত্যুর বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের হামলায় ৩৫ জন আহত এবং সাত জন আটকের খবরেও উদ্বেগ প্রকাশ করেন হাইকমিশনার মিশেল বাশেলেট। মুশতাকের মৃত্যুতে ফেসবুকে একটি পোস্ট দেয়ায় রুহুল আমিন নামে একজনকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করা করা হয় জাতিসংঘের ওই বিবৃতিতে। বাশেলেট বলেন, সরকারের সমালোচনার শাস্তি দিতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের দুর্বলভাবে সংজ্ঞায়িত বিধানগুলোর বিষয়ে জাতিসংঘের বিভিন্ন মানবাধিকার সংস্থাগুলো দীর্ঘদিন ধরে উদ্বেগ জানিয়ে আসছে। জরুরি ভিত্তিতে আইনটির প্রয়োগ স্থগিত করা এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইনের প্রয়োজনীয়তার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ করতে এর বিধানগুলো পর্যালোচনা করা দরকার। এ নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের সঙ্গে আলাপে তিনি এবং তার দফতর প্রস্তুত রয়েছে বলেও জানান জাতিসংঘ দূত।
করোনার টিকা নিলেন নরেন্দ্র মোদী
১,মার্চ,সোমবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স (এইমস) হাসপাতালে টিকার প্রথম ডোজ নেন তিনি। এরপর টিকা নেওয়ার ছবি মোদী তার টু্ইটারে পোস্ট করেন। সোমবার (১ মার্চ) সকাল ৬টা ২৫ মিনিটে দিল্লির এইমসে মোদীকে ভারত বায়োটেকের করোনার টিকা দেন নার্স পি নিভেদা। প্রধানমন্ত্রী টুইটে লিখেছেন, কোভিড-১৯ টিকার প্রথম ডোজ নিলাম এইমসেতে। চিকিৎসক এবং বিজ্ঞানীরা স্বল্প সময়ে কোভিডের বিরুদ্ধে লড়াইকে যেভাবে শক্তিশালী করেছেন, তা চমকপ্রদ। যারা কোভিডের টিকা নেওয়ার জন্য মনোনীত, তাদের সবাইকে টিকা নেওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। আসুন ভারতকে কোভিড-১৯ থেকে মুক্ত করি। ১৬ জানুয়ারি থেকে ভারতে শুরু হয় প্রথম দফার টিকাদান কর্মসূচি। প্রথম দফায় মূলত স্বাস্থ্যকর্মী এবং প্রথম সারির যোদ্ধাদের করোনা টিকা দেওয়া হয়েছে। সোমবার থেকে দেশে শুরু হচ্ছে দ্বিতীয় দফার টিকাদান কর্মসূচি। এ দফায় ৬০ বছরের প্রবীণ নাগরিকদের টিকা দেওয়া হবে। পাশাপাশি কো-মর্বিডিটি থাকলে ৪৫ বছরের বেশি বয়সীরাও টিকা পাবেন। টিকা নেওয়ার জন্য কীভাবে নাম নথিভুক্ত করতে হবে, রোববার তার নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে কেন্দ্র। বেসরকারি হাসপাতালে টিকা নিতে হলে সর্বোচ্চ ২৫০ টাকা লাগতে পারে। সরকারি টিকাদান কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে বিনামূল্যে।
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘে বাংলাদেশের পক্ষে ভারতের বক্তব্য
২৮,ফেব্রুয়ারী,রবিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে জাতিসংঘের অনানুষ্ঠানিক সাধারণ অধিবেশনে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টিএস তিরুমূর্তি বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি রোহিঙ্গা সংকট নিরসনের জন্য রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ থেকে ফেরাতে সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন- এমন প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, এ বিষয়ে বাংলাদেশকে সকলের সহযোগিতা করা উচিত। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) জাতিসংঘে সাধারণ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) হিন্দুস্তান টাইমস এ বিষয়ে এক প্রতিবেদনে তুলে ধরে। মিয়ানমার থেকে নির্যাতন করে রোহিঙ্গাদের বিতাড়িত করার বিষয়ে বিশ্বের অন্যান্য শক্তিশালী দেশগুলো প্রায়ই কৌশলী বক্তব্য প্রদান করে। মিয়ানমারকে চীন সমর্থন করলেও ভারত নিরপেক্ষ থেকেছে। রোহিঙ্গা সংকটে সর্বোচ্চ চেষ্টা আছে ভারতের। এছাড়াও তিনি অন্যান্য দেশের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বাংলাদেশকে অর্থনৈতিক ও অন্যভাবে সহযোগিতা করা উচিত। মিয়ানমারে গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে সেনাবাহিনী ক্ষমতা দখল করে। এদের হাতেই গণহত্যার শিকার হয়েছে নিরীহ রোহিঙ্গারা। একসময় তারা প্রাণ বাঁচানোর জন্য বাংলাদেশে পালিয়ে আসেন।
এশিয়ার শীর্ষ ধনী আবারও আম্বানি
২৭,ফেব্রুয়ারী,শনিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: এশিয়ার শীর্ষ ধনীর মুকুট ফিরে পেলেন ভারতীয় ধনকুবের মুকেশ আম্বানি। ব্লুমবার্গ বিলিওনিয়ার ইনডেক্সর দেওয়া তথ্য মতে, আম্বানির মোট সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় ৮ হাজার ২০০ কোটি ডলার। দ্বিতীয় স্থানে থাকা চীনা ধনকুবের ঝং শানশানের সম্পত্তির পরিমাণ ৭ হাজার ৬০০ কোটি ডলার। এর আগে টানা দু বছর এশিয়ার শীর্ষ ধনী ছিলেন আম্বানি। তাকে সিংহাসনচ্যুত করেন আলিবাবার মালিক চীনা ধনকুবের জ্যাক মা। এরপর আর সেই শীর্ষস্থান ফিরে পাননি আম্বানি। অবশেষে ফের সেই মসনদে ফিরলেন রিলায়েন্স ইন্ড্রাস্ট্রিজের কর্ণধার। বিশ্বের শীর্ষ ধনীর তালিকায় গত আগস্টেও ৪ নম্বরে ছিলেন মুকেশ।
বাইডেনের প্রথম হামলা সিরিয়ায়, নিহত ১৭
২৬,ফেব্রুয়ারী,শুক্রবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সিরিয়ায় ইরান সমর্থিত দুটি বিদ্রোহী মিলিশিয়া গোষ্ঠীর স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী। এ হামলায় ১৭ জন নিহত হয়েছেন। ওই অঞ্চলে গত দুই সপ্তাহে মার্কিন সেনাদের ওপর কিছু রকেট হামলার প্রেক্ষাপটে যুক্তরাষ্ট্র গত বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) এ অভিযান পরিচালনা করেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির কর্মকর্তারা। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের খবরে বলা হয়, জো বাইডেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা নেওয়ার পর তার নির্দেশে জানা মতে এটাই প্রথম হামলা। সিরিয়ায় যে স্থানে মার্কিন সেনাদের লক্ষ্য করে রকেট হামলা হয়েছিল গত বৃহস্পতিবারের ওই হামলা নির্দিষ্ট করে সে স্থানে চালানো হয়নি। তবে মার্কিন বাহিনীর হামলার স্থানে ইরান সমর্থিত শিয়া মিলিশিয়ারা সক্রিয় রয়েছে। মার্কিন বাহিনীর হামলা প্রসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেনের নির্দেশনায় হামলাটি চালানো হয়েছে। মার্কিন ও যৌথ বাহিনীর ওপর সম্প্রতি যে রকেট হামলা হয়েছে তার জবাব দিতেই যে শুধু বাইডেন এটি অনুমোদন দিয়েছেন তা নয়, বরং মার্কিন সেনাদের ওপর হুমকির বিষয়টিকেও মোকাবিলা করতে বলেছেন তিনি। কিরবি বলেন, সিরিয়ায় মোতায়েন যৌথ বাহিনীর অংশীদার ও মার্কিন মিত্রদেশগুলোর সঙ্গে পরামর্শ করেই প্রেসিডেন্ট বাইডেন হামলা চালানোর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ হামলায় সিরিয়া সীমান্তে ইরান সমর্থিত কাইতিব হিজবুল্লাহ, কাইতিব সায়েদ আল শুহাদাসহ কয়েকটি মিলিশিয়া গোষ্ঠীর একাধিক স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপি জানায়, সিরিয়া যুদ্ধের ওপর নজর রাখা যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে, মার্কিন বাহিনীর হামলায় ইরানপন্থী ১৭ জন মিলিশিয়া নিহত হয়েছেন। সিরিয়া-যুদ্ধের ওপর নজর রাখা যুক্তরাজ্যভিত্তিক পর্যবেক্ষক গোষ্ঠী সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলেছে, মার্কিন বাহিনীর হামলায় ইরানপন্থী ১৭ জন মিলিশিয়া নিহত হয়েছেন। মার্কিন সেনাদের ওপর রকেট হামলার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্র নির্দিষ্ট করে কোনো গোষ্ঠীকে অভিযুক্ত বা তারা ইরানের সমর্থনপুষ্ট বলে উল্লেখ করেনি। তবে গত বৃহস্পতিবারের হামলার মধ্য দিয়ে বাইডেন প্রশাসন কাকে অভিযুক্ত করতে চায়, তা স্পষ্ট করে দিয়েছে। সিরিয়ায় ইরবিল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি মার্কিন সেনাদের লক্ষ্য করে চালানো রকেট হামলায় এক বেসামরিক ঠিকাদার, চার মার্কিন ঠিকাদার ও এক মার্কিন কর্মী আহত হন। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদেহ ইরবিলে গত ১৫ ফেব্রুয়ারির হামলার সঙ্গে তার দেশের কোনো রকম সংশ্লিষ্টতার কথা নাকচ করে দিয়েছিলেন।
ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবে ৪১ জনের মৃত্যু
২৫,ফেব্রুয়ারী,বৃহস্পতিবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বিপজ্জনক পথে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে নৌকাডুবে কমপক্ষে ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার ওই নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে বলে সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মাধ্যম নিশ্চিত করেছে। যুদ্ধ-বিধ্বস্ত সিরিয়া থেকে ইউরোপে উন্নত জীবনের আশায় সাগর পাড়ি দিতে গিয়ে এসব শরণার্থী প্রাণ হারিয়েছেন। জাতিসংঘের শরণার্থী ও অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা আইওএম এবং ইউএনএইচসিআর বুধবার এক যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছে, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি অন্তত ১২০ অভিবাসীকে নিয়ে যাত্রা করেছিল নৌকাটি। পরবর্তীতে দুর্ঘটনায় ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। নৌকাটি ডুবতে শুরু করার প্রায় ১৫ ঘণ্টা পর একটি বাণিজ্যিক জাহাজ সহায়তার জন্য এগিয়ে আসে। এর মধ্যেই আটজনের মৃত্যু হয়। এক যৌথ বিবৃতিতে আইওএম এবং ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, প্রায় ১৫ ঘণ্টা ধরে নৌকাতে থাকা যাত্রীরা সম্ভাব্য সব উপায়ে সাহায্য চাইতে থাকেন। এই সময়ের মধ্যেই ছয়জন পানিতে পড়ে মারা যায়। দূরে একটি নৌকা দেখতে পেয়ে সাঁতার কেটে সেখানে যাওয়ার চেষ্টা করে অপর দুজনের মৃত্যু হয়। এই ঘটনার তিন ঘণ্টা পর ভস ট্রিটন নামের একটি জাহাজ নৌকাটির কাছে পৌঁছে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। কিন্তু কঠিন এবং জটিল উদ্ধার অভিযানের সময় আরও বেশ কয়েকজন প্রাণ হারায়। দুর্ঘটনায় জীবিত শরণার্থীদের উদ্ধার করে ইতালির সিসিলিয়ান বন্দর শহর পোর্তো এম্পেদোকলেতে নিয়ে যায় ওই জাহাজটি। এখনও তিন শিশু ও চার নারী নিখোঁজ রয়েছে। এদের মধ্যে এক নারী তার সদ্যজাত শিশুকে ল্যাম্পেদুসায় রেখে গেছেন।
উদ্বোধনের আগে আলোচিত স্টেডিয়াম পাল্টে গেল মোদির নামে
২৪,ফেব্রুয়ারী,বুধবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারত-ইংল্যান্ডের চলমান সিরিজের তৃতীয় টেস্ট শুরুর ঠিক আগে বদলে গেল আলোচিত স্টেডিয়ামের নাম। বিশ্বের সবচেয়ে বড় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম ছিল সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেল স্টেডিয়াম। তবে এখন থেকে এর নাম হবে নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়াম। বুধবার ১ লাখ ১০ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়ামটি উদ্বোধন করেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এরপর ঘোষণা দেয়া হয় দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী মোদির নামেই পরিচিতি পাবে এটি। আহমেদাবাদের মোতেরার নবনির্মিত স্টেডিয়াম উদ্বোধনকালে নামকরণ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ বলেন, গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময় এই স্টেডিয়াম তৈরির পরিকল্পনা করেন নরেন্দ্র মোদি। সেই সময় তিনি গুজরাত ক্রিকেট সংস্থার সভাপতিও ছিলেন। এদিকে স্টেডিয়ামের পাশে থাকা স্পোর্টস কম্পেক্স সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেলের নামে নামকরণ করা হবে। অমিত শাহ এদিন নতুন রূপটির উদ্বোধন করে বলেন, এই স্টেডিয়াম নরেন্দ্র মোদির ড্রিম প্রজেক্ট। গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীনই এই বিষয় নিয়ে ভেবেছিলেন। বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি সশরীরে যোগ না দিতে পারলেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। এদিন টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সফরকারী ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ড একাদশ: ডমিনিক সিবলি, জ্যাক ক্রাউলি, জনি বেয়ারস্টো, জো রুট (অধিনায়ক), বেন স্টোকস, ওলি পোপ, বেন ফোকস (উইকেটকিপার), জোফ্রা আর্চার, জ্যাক লিচ, স্টুয়ার্ট ব্রড ও জেমস অ্যান্ডারসন। ভারত একাদশ: রোহিত শর্মা, শুভমন গিল, চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), অজিঙ্কা রাহানে, ঋষভ পন্ত, ওয়াশিংটন সুম্দর, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, অক্ষর প্যাটেল, জসপ্রীত বুমরাহ ও ইশান্ত শর্মা।
জাতিসংঘের গাড়িবহরে হামলা, ইতালির রাষ্ট্রদূত নিহত
২৩,ফেব্রুয়ারী,মঙ্গলবার,আন্তর্জাতিক ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আফ্রিকার দেশ কঙ্গোর পূর্বাঞ্চলে সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) জাতিসংঘের গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে ইতালির রাষ্ট্রদূতসহ তিনজন নিহত হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে কঙ্গোর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। স্থানীয় সময় সোমবার সকালে জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডব্লিউএফপি) গাড়িবহরে ভ্রমণ করছিলেন ইতালির রাষ্ট্রদূত লুকা আন্তানাসিও (৪৩)। তাদের বহনকারী গাড়িবহর উত্তর কিভু প্রদেশের গোমা নামক স্থানে পৌঁছালে হামলার শিকার হয়। এতে ওই গাড়ীবহরে থাকা ইতালির রাষ্ট্রদূত, একজন ইতালির সৈনিক ও গাড়ীচালক নিহত হয়। এ বিষয়ে কঙ্গোর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা ইতালির রাষ্ট্রদূতের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করছে। (সোমবার) গোমা অঞ্চলে এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।

আন্তর্জাতিক পাতার আরো খবর