চট্টগ্রামে লকডাউনেও মুখে মাস্ক নেই, ৯ জনকে ১২০০ টাকা জরিমানা
৫,এপ্রিল,সোমবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মহামারি করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে লকডাউনের প্রথম দিন মাস্ক না পরে সড়কে নামায় ৯ জনকে ১ হাজার ২০০ টাকা জরিমানা করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় জুবিলি রোডের মেশিনারি মার্কেটে দোকান খোলা রাখায় দুই দোকানিকে ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার (৫ এপ্রিল) চসিকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী ও স্পেশাল ম্যাজিস্ট্রেট (যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ) জাহানারা ফেরদৌস এ অভিযানে নেতৃত্ব দেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী জানান, নগরের কাজীর দেউড়ি, আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ লেইন, জুবিলি রোড, নিউমার্কেট, রেল স্টেশন ও স্টেশন রোড এলাকায় লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা না মেনে মাস্ক না পরে বাইরে বের হওয়ায় ৯ জনকে ১ হাজার ২০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ ছাড়া মেশিনারি মার্কেটের ২টি দোকান খোলা রাখায় ১ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অভিযানে মাস্কবিহীন লোকজনকে জরিমানা, সতর্ক করার পাশাপাশি চসিকের পক্ষ থেকে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। জনসাধারণকে মাস্ক পরাসহ লকডাউন ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার বিষয়ে সচেতন করা হয় অভিযানে। চসিকের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ অভিযান পরিচালনায় সহায়তা করেছে।
ফটিকছড়িতে তালিকাভূক্ত এক রাজাকার গ্রেফতার
৫,এপ্রিল,সোমবার,সজল চত্রুবত্তী,ফটিকছড়ি,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: ফটিকছড়িতে তালিকাভুক্ত রাজাকার সৈয়দ শওকতুল ইসলাম ওরফে পাতলা ডাক্তার (৮১) কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ফটিকছড়ি থানার ওসি রবিউল হোসেনে দিক নির্দেশনায় গত ৪ এপ্রিল(রবিবার) রাত ২ টার দিকে থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই রিদুয়ানুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপজেলার নানুপুর ইউনিয়নের মুনসেফ বাড়ী প্রকাশ সৈয়দ পাড়া থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত রাজাকার ঐ এলাকার জনৈক মৃত ইমামুল হক এর পুত্র। এদিকে, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে নানুপুরে আলোচিত নূর আহমদ চেয়ারম্যানসহ এলাকার বেশ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধাকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী দিয়ে হত্যার নেপথ্যে এ রাজাকারের হাত ছিল বলে কথিত আছে। এ বিষয়ে এস.আই রিদুয়ানুল হক জানান, আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী হওয়ায় তাকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।
মাস্ক ব্যবহার করতে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসকের প্রচারণা
৪,এপ্রিল,রবিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে জনসাধারণকে মাস্ক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে প্রচারণা চালাচ্ছেন জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান। রোববার (৪ এপ্রিল) দুপুরে নগরের কাজীর দেউড়ি বাজারে গিয়ে তিনি মাস্ক বিতরণ করেন। এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এলএ) ড. বদিউল আলম, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশরাফুল আলমসহ জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। জেলা প্রশাসন সূত্র জানিয়েছে, রোববার নগরের ২০টি এলাকায় ২০ জন নির্বাহী ম্যাজিট্রেটের নেতৃত্বে সচেতনতামূলক কর্মসূচি চলছে। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা প্রচারণার পাশাপাশি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। এর আগে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে জেলা প্রশাসনের এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ। অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কমিশনার বলেন, সীমিতকরণের পর্যায়টা এমনভাবে নেওয়া যাতে সামাজিক দূরত্ব রক্ষা হয়। মানুষের মাঝে মাস্ক পরার প্রবণতাটাও যেন বাড়ে। তার মানে হলো ব্যক্তি পর্যায়ে যে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ, সেটা বাধ্য করার একটি কৌশল। তিনি বলেন, আগামি সাতদিনের যে কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে এটা বেশি দিনের জন্য না। প্রথমত সাতদিনের জন্য সরকারি ব্যবস্থা। এসময় প্রয়োজনীয় দোকানপাট খোলা থাকবে। ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত প্রাথমিক এই ব্যবস্থা, তার ফলাফলের ভিত্তিতে হয়তো নির্দেশনা পরিবর্তিত হতে পারে। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক বলেন, চট্টগ্রামে গত চার-পাঁচদিনে সংক্রমণের হার অনেক বেড়ে গেছে, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন এলাকাতেই নব্বই শতাংশ প্রায়। সেজন্য ২০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন এলাকার বিশটি এলাকা ভাগ করে দেওয়া হয়েছে। তারা দুপুর দুইটা পর্যন্ত সেই এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন। তারপর আবার বিকাল চারটা থেকে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন। একইসঙ্গে বিআরটিএর তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট চট্টগ্রামের তিনটি পয়েন্টে দায়িত্ব পালন করবেন, যাতে গণপরিবহনে পঞ্চাশ ভাগ যাত্রী বহনের বিষয়টি নিশ্চিত করা যায়। আমাদের যে কর্মসূচি শুরু হয়েছে, চট্টগ্রামের সব উপজেলায় একযোগে তা পালন করবো। তিনি আরও বলেন, মানুষকে সচেতন করার এই দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে গত দুই সপ্তাহে দুইজন ইউএনও, দুইজন এসি (ল্যান্ড), এডিসিসহ আমাদের জেলা প্রশাসনের আটজন কর্মকর্তা আক্রান্ত হয়েছেন। তারা এখনও হাসপাতালে এবং বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা গ্রহণ করছেন। আমরা প্রতিদিন বিশটি টিম নামাবো না। মানুষজন এখন অনেক সচেতন হয়েছে। বাংলাদেশের যেকোনও জেলার চেয়ে এমনকি ঢাকা শহরের চেয়েও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন অঞ্চলে অধিক সংখ্যক মানুষ মাস্ক ব্যবহার করছেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন ও পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক।
করোনা: চট্টগ্রামে একদিনে ৪ জনের মৃত্যু
৪,এপ্রিল,রবিবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চট্টগ্রামে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা গত ৭ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে গত বছরের ১৪ আগস্ট করোনায় ৪ জনের মৃত্যু হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে নতুন করে ২৩২ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ২৭ শতাংশ। রোববার (৪ এপ্রিল) সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবসহ চট্টগ্রামে ৫টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়। এদিন ১ হাজার ৭৪৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরে ২১৯ জন এবং উপজেলায় ১৩ জন। এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪১ হাজার ৫০০ জন এবং মোট মৃত্যুবরণ করেন ৩৯৩ জন। এদিকে করোনা মোকাবিলায় চট্টগ্রামে শতভাগ প্রস্তুতির কথা জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান। জনসাধারণকে সরকারের ১৮ দফা নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানান তিনি।
করোনা মোকাবিলায় শতভাগ প্রস্তুত চট্টগ্রাম: জেলা প্রশাসক
৩,এপ্রিল,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় চট্টগ্রাম শতভাগ প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান। শনিবার (০৩ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৫টায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন সম্মেলন কক্ষে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধিতে চট্টগ্রামের প্রস্তুতি নিয়ে আয়োজিত সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। জেলা প্রশাসক মমিনুর রহমান বলেন, গতবারের চেয়ে আমাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনা মহামারির প্রথম দিকে চট্টগ্রামে যে ভয়াবহ পরিস্থিতি ছিল এবার সেই পরিস্থিতি নেই। সরকারি ও বেসরকারিভাবে যেসব হাসপাতাল করোনা চিকিৎসার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছিল সবগুলো হাসপাতালই বর্তমানে চালু রয়েছে। চিকিৎসক-নার্সের কোনো সংকটও নেই। তিনি আরও বলেন, করোনার জন্য বিভিন্ন হাসপাতালে আইসিইউ বরাদ্দ রয়েছে ৮০টি। এরমধ্যে সরকারি হাসপাতালে ৩০টি এবং বেসরকারি হাসপাতালে ৫০ টি। তবে এই মুহুর্তে কোনো আইসিইউ শয্যা ফাঁকা না থাকলেও হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণ শয্যা খালি রয়েছে। যদি সংক্রমণের হার বেড়ে যায় এবং সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালের প্রস্তুতি যদি অপ্রতুল মনে হয় তাহলে আইসোলেশন সেন্টার, ফিল্ড হাসপাতাল বা অন্যান্য ব্যবস্থাগুলো আবারও চালু করা হবে। এসময় জেলা প্রশাসক বলেন, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যেসব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে তা তদারকি করতে আগামীকাল থেকে জেলা প্রশাসনের ২০-২৫টি টিম মাঠে থাকবে। সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুমনী আক্তার, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এহেছান মুরাদ, ইনামুল হাছান, মোজাম্মেল হক অপু, গালিব চৌধুরী, সুরাইয়া ইয়াসমিন প্রমুখ।
শিক্ষা উপমন্ত্রীর শোক প্রকাশ
৩,এপ্রিল,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর, মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক কার্যকরী সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর মোহাম্মদ চৌধুরীর সহধর্মিণী মর্জিনা বেগম এর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক, চট্টগ্রাম-৯ আসনের সংসদ সদস্য ও শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। শোকবার্তায় ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ঐতিহাসিক ৬ দফা আন্দোলনে লালদিঘীর জনসভার অন্যতম উদ্যোক্তা, জয় বাংলা স্বেচ্ছাসেবক বাহিনীর চট্টগ্রাম বিভাগীয় প্রধান নূর মোহাম্মদ চৌধুরীকে আন্দোলন-সংগ্রামে তাঁর সহধর্মিণী মর্জিনা বেগম সাহস যুগিয়েছিলেন। শিক্ষা উপমন্ত্রী মরহুমার আত্মার শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবার পরিজনের প্রতি সমবেদনা জানান।
স্বাধীনতা বিরুদ্ধীদের প্রতিহত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: মুহাম্মদ বদিউল আলম
২,এপ্রিল,শুক্রবার,নিজস্ব সংবাদদাতা,পটিয়া,চট্টগ্রাম,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে স্বাধীনতাবিরোধী বিএনপি, জামায়াত-শিবির, এবং হেফাজতের তান্ডব ও আমাদের করণীয় শীর্ষক পটিয়ার সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ বদিউল আলম বলেন, স্বাধীনতা বিরুদ্ধীদেরকে প্রতিহত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, দেশের উন্নয়নে বাধা এবং অগ্রগতিকে স্তব্ধ করাই এই বিএনপি, জামায়াত ও হেফাজতে উদ্দেশ্য। এসময় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় দেশরত্ন পরিষদের সভাপতি মোহাম্মদ সাহাব উদ্দিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা দেশরত্ন পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব শাহজাহান চৌধুরী, পটিয়া উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের আহবায়ক সাইফুল ইসলাম, পটিয়া উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবু ছৈয়দ, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগ নেতা মোক্তার আহমেদ আরিফ, ভাটিখাইন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন, আশিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা নাছির উদ্দিন, পটিয়া উপজেলা দেশরত্ন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক মানিক, যুবনেতা সাইফুল ইসলাম শাহীন, তৌহিদুল আলম জুয়েল, উজ্জ্বল ঘোষ, সাইফুল ইসলাম জুয়েল, ছাত্রনেতা সাজ্জাদ হোসাইন, মেহেদি হাসান মারুফ, জয়নাল আবেদিন রাফি প্রমূখ।
সন্ধ্যা ৬টার পর চট্টগ্রামে ওষুধ-কাঁচাবাজার ছাড়া সব বন্ধ: চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক
২,এপ্রিল,শুক্রবার,নিউজ ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় চট্টগ্রামে সন্ধ্যা ৬টার পর থেকে ওষুষের দোকান ও কাঁচাবাজার ছাড়া সব দোকানপাট বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান। শুক্রবার (২ এপ্রিল) তিনি এ সিদ্ধান্তের কথা জানান। জেলা প্রশাসক বলেন, আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে চট্টগ্রামের সব খাবার হোটেল, রেস্টুরেন্ট, শপিং সেন্টার, বিপণিকেন্দ্র বন্ধ রাখতে হবে। সন্ধ্যার পর শুধু ওষুধের দোকান ও কাঁচাবাজার খোলা থাকবে। নির্দেশনা অমান্য করলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শাস্তি দেওয়া হবে। চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ২ হাজার ৫৩৫টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫১৮ জনের। শনাক্তের হার ২০ দশমিক ৪৩ শতাংশ। এ সময়ের মধ্যে করোনায় মারা গেছে ১ জন। এ পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৪০ হাজার ৮০১ জন। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে নগরের ৪৩৬ জন এবং বিভিন্ন উপজেলার ৮২ জন।

নিউজ চট্টগ্রাম পাতার আরো খবর