নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ মার্চ পালিত
৮,মার্চ,সোমবার,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: ঐতিহাসিক দিবস ৭ মার্চ উপলক্ষে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ২ দিনব্যাপী নানান কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে রোববার সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। রোববার সকালে জেলা পরিষদ ডাক বাংলো চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষে প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, জেলা প্রশাসনের পক্ষে জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিম, পুলিশ প্রশাসনের পক্ষে পুলিশ সুপার মোহা. জাহাঙ্গীর হোসেন, সদর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. অরুনাংশু দত্ত টিটো, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন দপ্তর, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুস্পমাল্য অর্পন করা হয়। সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় বড় মাঠে শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহনে শতকন্ঠে বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ প্রতিধ্বনিত করা হয়। পরে জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে বিডি হলে শতছবিতে বঙ্গবন্ধু চিত্রপ্রদর্শন, আলোচনা সভা, বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে- কফিনবন্দী বাংলাদেশ নামে নাটক পরিবেশিত হয়। আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক ড. কেএম কামরুজ্জামান সেলিমের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন, প্রধান অতিথি আ'লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঠাকুরগাঁও-১ আসনের সংসদ সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, বিশেষ অতিথি পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা আলীগের সভাপতি মু. সাদেক কুরাইশী, সহ-সভাপতি মাহাবুবুর রহমান খোকন, সরকারী কলেজের অধ্য্ক্ষ আব্দুল মজিদ, সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আবু বক্কর ছিদ্দিক, নব-নির্বাচিত পৌর মেয়র আঞ্জুমান আরা বেগম বন্যা প্রমুখ। এছাড়া জেলা আলীগ কার্যালয়সহ গুরুত্বপূর্ণস্থান থেকে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ প্রচার, ডকুমেন্টারি ও চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়। সেই সঙ্গে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনলাইনে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ বিষয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
সম্মিলিত প্রচেষ্টায় উন্নয়নের ধারায় দেশ এগিয়ে যাচ্ছে: পলক
৭,মার্চ,রবিবার,নাটোর প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবিধানের মূলধারাকে সমুন্নত করে দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নিশ্চিত করেছেন। এর ফলে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় উন্নয়নের ধারায় দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। নাটোরের সিংড়ায় বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলা পরিষদ হলরুমে ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। তিনি আরও বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের ভাষণে সকল ধর্মের মানুষের অংশগ্রহনে দেশগড়ার দিক নির্দেশনা দিয়েছিলেন এবং সংবিধানের মূলনীতির মধ্যে ধর্মনিরপেক্ষতা সংযোজন করেন। অথচ স্বাধীনতা বিরোধীরা ৭৫ এর ১৫ আগষ্ট প্রগতিশীল ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র গঠনের বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে রুদ্ধ করতেই তাঁকে হত্যা করেছিল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীরা তাদের নাগরিক অধিকার থেকে বঞ্চিত ছিল। সে সময়ের ক্ষমতাসীন সরকারগুলো বারবার ধর্মীয় উস্কানী দিয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। ধর্মনিরপেক্ষতার মূলনীতিকে বিকৃত করে অপপ্রচার চালিয়েছে। অথচ বঙ্গবন্ধু সব সময় বলেছেন, ধর্মনিরপেক্ষতা মানে ধর্মহীনতা নয়। ২০০৯ সালে বঙ্গবন্ধুর কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার গঠনের পর সংবিধানের মূলনীতি ধর্মনিরপেক্ষতাকে গুরুত্ব প্রদান করে বৈষম্যমুক্ত দেশ গঠনে আত্মনিয়োগ করেন। সকল ধর্মের মানুষের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বর্তমানে দেশে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে। দেশের মানুষের মাথাপিছু জাতীয় আয় ৫০০ ডলার থেকে বেড়ে দু'হাজার ডলার ছাড়িয়েছে। প্রতিমন্ত্রী পলক বলেন, করোনাকালে অনেক উন্নত দেশের অর্থনীতি মুখ থুবড়ে পড়লেও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য ও দূরদর্শী নেতৃত্বে করোনা পরিস্থিতি সফলতার সাথে মোকাবেলা করা সম্ভব হয়েছে। সময়মত টিকা আমদানীর ফলে দেশে ইতোমধ্যে ৪০ লাখ মানুষ করোনার টিকা গ্রহন করতে পেরেছেন। উন্নয়নের পথ পরিক্রমায় আমরা উন্নয়নশীল দেশের মাইলফলক স্পর্শ করেছি। ২০৩১ সালে বাংলাদেশ হবে উন্নত মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালে হবে উন্নত দেশ। এসময় দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় হবে অন্তত সাড়ে বারো হাজার ডলার। প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আজন্ম লালিত স্বপ্নের সোনার বাংলার আধুনিক রূপায়ন- ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের পদক্ষেপ উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর সুফল হিসেবে বর্তমানে ১৭ কোটি মানুষের হাতে মোবাইল ফোন রয়েছে, ১১ কোটি মানুষের ইন্টারনেট সংযোগ রয়েছে। করোনাকালে দেশের শিক্ষার্থীরা অনলাইনে পড়াশুনা করছে, ই-ফাইল কার্যক্রম চালুর ফলে সকল অফিসে নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ চলেছে। ভার্চুয়াল আদালতে বিচারিক কাজ চলেছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনের কার্যক্রম দেশের মানুষের জীবনকে সহজ ও সুন্দর করছে। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সিংড়া পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস, হিন্দু-বৌদ্ধ- খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের জেলা কমিটির সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস, সাধারণ সম্পাদক খগেন্দ্র নাথ রায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওহিদুর রহমান শেখ, পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি গোপাল বিহারী দাস, সাধারণ সম্পাদক চাঁদ মোহন হালদার প্রমূখ। সম্মেলনে অধ্যাপক শীতল কুমার সভাপতি এবং অ্যাডভোকেট মানসী ভট্টাচার্জকে সাধারণ সম্পাদক, পংকজ কুমারকে ১নং যুগ্ম সম্পাদক ও রবিন কুন্ডুকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। পরে রুপ কুমারকে সভাপতি ও স্বপন কুমারকে সাধারণ সম্পাদক করে ছাত্র ঐক্য পরিষদ গঠন করা হয়।
কক্সবাজারে ট্রাক চাপায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩
৭,মার্চ,রবিবার,কক্সবাজার প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: কক্সবাজার শহরের কলাতলী ডলফিন মোড়ে সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাকের চাপায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩ জন হয়েছে। আজ রোববার ভোরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আহত এডভোকেট ওসমান গনি। তাঁর বাড়ি চকরিয়ার বদরখালীতে। আজ সকাল সাড়ে ১০টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার জেলা আইনজীবি সমিতির সদস্য এডভোকেট একরামুল হুদা। এর আগে ঘটনাস্থলে এক নারী ও সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আরেক যুবক। শনিবার (৬ মার্চ) রাত সাড়ে ১১টার দিকে সিমেন্ট বোঝায় ট্রাক পথচারীর উপর উঠিয়ে দিলে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- কক্সবাজার শহরের কলাতলী এলাকায় লাল মিয়ার স্ত্রী মোমেনা বেগম (৬০), বদরখালীর এডভোকেট ওসমান গনি (৪২) ও ঢাকার উত্তরা এলাকার সাহাদত হোসেন (৪৫)। এসময় আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। কক্সবাজার শহর পুলিশ ফাড়ির এসআই আনোয়ার হোসেন জানান, শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে কক্সবাজারমুখী সিমেন্ট বোঝাই একটি ট্রাক (চট্ট মেট্রো-ট-১১-৬৮২৮) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পথচারীকে চাপা দেয়। এসময় ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলে দুইজন নিহত হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছে অন্তত ১০ পথচারী। আহতরা হলেন- উখিয়ার কোটবাজার এলাকার আবদুল আমিনের ছেলে জসিম উদ্দীন (২৫), বশরত আলীর ছেলে মুজিব (৪৫), শফিউল্লাহর ছেলে জিকু (৩০), মহেশখালী এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে জয়নাল (৩৫), বড় ভাই আবুল হোসেন (৪৫) ও ছেলে রাশেদুল হক (১৭) সহ অন্তত ১০ জন। খবর পেয়ে কক্সবাজার সদর থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে তাদের উদ্ধার করেন। কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দে জানান, ঘটনাস্থলে এক নারীসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। পরে চমেকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও এক জনের মৃত্যু হয়।
৭ মার্চ উপলক্ষে ঠাকুরগাঁওয়ে চিত্রাঙ্কন ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা
৬,মার্চ,শনিবার,ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপলক্ষে ঠাকুরগাঁওয়ে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ, চিত্রাঙ্কন ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে জেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমি এই কর্মসূচি আয়োজন করেছে। এতে বিভিন্ন প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়েল অসংখ্য শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। এ সময় জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা জবেদ আলী, বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, সহকারি শিক্ষকসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।
চকরিয়া পৌরসভার মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেন সাবেক ছাত্রনেতা জামাল উদ্দিন জয়নাল
৬,মার্চ,শনিবার,নিজস্ব প্রতিবেদক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন ৮০ ও ৯০ দশকের মেধাবী ছাত্রনেতা,চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক,ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি -সাধারণ সম্পাদক,স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক,হাজার হাজার নেতা বানানোর কারিগর, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশ্বস্থ সিপাহাশালা জামাল উদ্দিন জয়নাল। সাথে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তথ্য ও গবেষণা উপ কমিটির সদস্য ও ছাত্রলীগের সাবেক ধর্ম সম্পাদক তাজ উদ্দিন,বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ উপকমিটির সাবেক সদস্য এম এ রাশেদ,মাতামুহুরি সাংগঠনিক উপজেলার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খলিল উল্লাহ চৌধুরী,চকরিয়া ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আমির উদ্দিন বুলবুল,আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল আজিজ খান,রফিকুল আলম সোহান,উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আরহান মাহামুদ রুবেল,যুবনেতা শওকত ওসমান,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতা আবসার উদ্দিন রানা,আতিকুর রহমান,ছাত্রনেতা ইশতিয়াক মাহামুদ রিদোয়াম প্রমুখ।
নোয়াখালী চালাই আমি, বললেন একরামুল করিম চৌধুরী
৫,মার্চ,শুক্রবার,নোয়াখালী প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: আবদুল কাদের মির্জাকে ইঙ্গিত করে নোয়াখালীর ৪ (সদর-সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ একরামুল করিম চৌধুরী বলেছেন, সে প্রথম আমাকে দিয়ে শুরু করেছে। যাইতে যাইতে সে তার ভাবি এবং ওয়ায়দুল কাদেরসহ দেশের কোনো নেতাকে বাদ দেয়নি। লাস্ট পর্যন্ত নেত্রীকে নিয়েও বলছে। সেই পাগলকে সামলাইতে যাইয়া কারণবশত কারো কারো সঙ্গে টেলিফোনে কথা হইতেই পারে। শুক্রবার (৫ ফেব্রুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টায় সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। একরামুল করিম বলেন, গত ছয় দিন আমি ঢাকায় ছিলাম। আমি নেত্রীকে কতগুলো ম্যাসেজ পাঠিয়েছি, উনি সেগুলো দেখছেন। ঢাকায় যাওয়ার পর নেত্রীর সঙ্গে যিনি সব সময় থাকেন। তিনি আমাকে বললেন, নেত্রী আপনাকে এতো ভালো জানেন। আপনি কেন ঢাকায় ঘুরতেছেন। আমি বলি যে আমাদের কমিটিটা দরকার। তিনি বলেন, নোয়াখালী চালায় কে। আমি কই নোয়াখালী চালাই আমি। নেত্রী কী আপনাকে না চালাতে বলছে। আমি বলি না। নেত্রী জানে যে আপনিই চালাবেন নোয়াখালী। আপনি যাই নোয়াখালী চালাতে থাকেন। তিনি আরও বলেন, যারা অর্থের বিনিময়ে নমিনেশনের আশা করতেছেন। বিএনপি যেহেতু ভোটে আসবে না। এদিক-ওদিক যদি নৌকা চলেও যায়। আমি কিন্তু বেঠিক লোককে আমার জনগণকে আমি ভোট দিতে দেব না। যারা সঠিক লোক তাদের পক্ষে আমার অবস্থান থাকবে। একদম খারাপ লোক অর্থের বিনিময়ে নমিনেশন পাবে, তাকে ভোট দিবে এরকম দরকার নেই। কারা মানুষের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছিল। এটা মানুষ ভুলে যায়নি। দুর্ব্যবহারকারীদের ভোট দেক, এটা এমপি হিসেবে আমি হতে দিতে পারি না। আমাদের দরকার জনগণের চেয়ারম্যান। আমাদের দরকার যে জনগণের পাশে থেকে আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করতে পারবে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীকে আপন করে নিতে পারবে। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ওমর ফারুক, চর আমান উল্যাহ ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক বেলায়েত হোসেন, চর ক্লার্ক ইউপি চেয়ারম্যান আবুল বাসার আজাদ, সুবর্ণচর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক আমিরুল ইসলাম রাজীব, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক আবদুল্লাহ আল মামুন জাবেদ প্রমুখ।
চাঁদপুরে কিশোর গ্যাংয়ের ৪৭ সদস্য আটক
৩,মার্চ,বুধবার,চাঁদপুর প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: চাঁদপুর শহরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে কিশোর গ্যাংয়ের ৪৭ জন সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২ মার্চ) বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশ কয়েকটি দলে বিভক্ত হয়ে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। চাঁদপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ আব্দুর রশিদের নেতৃত্বে শহরের চাঁদপুর প্রেসক্লাব ঘাট থেকে অভিযান শুরু হয়ে ৫ নম্বর কয়লা ঘাট, স্ট্যান্ড রোড, বেদে পল্লী, ছায়াবানী রোড, নতুন আলিম পাড়া, প্রতাপসাহা রোড, মিশন রোড বালুর মাঠ, ট্রাক রোড অভিযান চালানো হয়। ওসি আব্দুর রশিদ বলেন, সন্ধ্যার পর পাড়া-মহল্লার রাস্তায় কোনো শিক্ষার্থী পেলেই আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমাদের এ চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে। চাঁদপুরবাসীকে কিশোর গ্যাংমুক্ত একটি শহর উপহার দিতে চাই। তিনি আরও বলেন, আমরা মিডিয়ার মাধ্যমে অভিভাবকদের জানাতে চাই আপনার সন্তানের ওপর নজর রাখুন। কোনো অবস্থাতেই তারা যেন অকারণে সন্ধ্যার পর বাইরে বের না হয়। মাদক ও কিশোর গ্যাং বিষয়ে কোনো ধরনের অপরাধ সংগঠিত হওয়ার লক্ষণ দেখা মাত্রই চাঁদপুর সদর মডেল থানা পুলিশকে জানানোর অনুরোধ জানান তিনি। আটকদের যাচাই-বাছাইয়ের পর অভিবাবকদের থানায় ঢেকে এনে সতর্ক করে দেওয়া হবে। অভিযানকালে চাঁদপুর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (ইন্টিলিজেন্স) মনির আহম্মেদসহ পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
মাদারীপুরে জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা
২৫,ফেব্রুয়ারী,বৃহস্পতিবার,আব্দুল্লাহ আল,মামুন,মাদারীপুর,নিউজ একাত্তর ডট কম: মাদারীপুর পৌরসভার নির্বাচনের প্রচার প্রচারণা জমে উঠেছে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ভোটারদের ঘরে ঘরে যাচ্ছেন ও গণসংযোগ চালাচ্ছেন মেয়র প্রার্থী থেকে শুরু করে কাউন্সিলর পদপ্রার্থীরা। প্রতীক বরাদ্দ দেওয়ার পর থেকেই তারা প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। এসময় ভোটারদের মন জয় করতে দেওয়া হচ্ছে নানা প্রতিশ্রুতি। প্রার্থীদের প্রচারণার ব্যানার-পোস্টারে ছেয়ে গেছে শহরের অলি গলিতে। একইসঙ্গে বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি নিয়ে তৈরি গানে মাইকে চলছে প্রচারণা। বুহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারী) মাদারীপুর শহরের পৌরসভার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে এ চিত্র। পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ৪ জন প্রার্থী থাকলেও মূলত লড়াইটা হবে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জনাব খালিদ হোসেন ইয়াদ ও বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী জাহান্দার আলী জাহানের মাঝে এটাই বিরাজ করছে জনমনে । তবে সৎ, আদর্শবান ও উন্নয়নমুখী প্রার্থীকে বেঁছে নেয়ার লক্ষ্য ভোটারদের। এদিকে নির্বাচন অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে নানামুখী পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানায় রিটার্নিং কর্মকর্তা। শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টা থেকে মাইকিং ও রাত ১২টার পর থেকে ভোট প্রার্থনার সময় শেষ হচ্ছে। জেলা নির্বাচন কমিশন অফিস সূত্র জানায়, আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে মাদারীপুর পৌরসভার নির্বাচন। নির্বাচনে ৯টি ভোটকেন্দ্রে ৫১ হাজার ৭৭৮ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। এর মধ্যে পুরুশ ভোটার ২৪ হাজার ৭২৩ জন ও নারী ভোটারের সংখ্যা ২৬ হাজার ৭৫৫ জন। মাদারীপুর পৌরসভার ৯ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ আজাদ খান বলেন, আমরা চাই সুন্দর একটা পৌরসভা। রাস্তার পাশে জমে থাকা কোন ময়লা আবর্জনা চাই না এবং পুরান বাজারের এলাকায় যানজট মুক্ত চাই । কথা হয় ৩ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা গিয়াস উদ্দিন হাওলাদার সঙ্গে। তিনি বলেন, যোগ্য ও সৎ প্রার্থীকেই আমরা ভোট দেবো। তাকেই আমরা নির্বাচিত করবো যে সুখে দুঃখে মানুষের পাশে থাকবেন। এছাড়া শহরের জনগনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। এদিকে আজ বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১ টায় আলীগের মনোনিত নৌকার প্রার্থী মোঃ খালিদ হোসেন ইয়াদ এর নিজ বাসভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করলেন সাংবাদিক ও নেতা-কর্মিদের উপস্থিতিতে। ইশতেহার অনুষ্ঠানে প্রধান আতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আলীগের কেন্দ্রিয় কমিটির যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক কৃষিবিদ আফম বাহাউদ্দিন নাসিম। অনুষ্ঠানে প্রার্থী মো.খালিদ হোসেন ইয়াদ বলেন, এই ইশতেহারে মাদারীপুর শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে টেকসই ও কার্যকরী ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও পানি সরবরাহ এবং আধুনিক ও টেকসই বর্জ্য অপসারণ ব্যাবস্থার উপরে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। বিগত দিনে সততা ও বিশ্বস্ততার সাথে মাদারীপুর পৌরসভাকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়েছি। আর এজন্য পৌর এলাকার সর্বস্থরের মানুষের আকুন্ঠ সমর্থন, অক্লান্ত শ্রম-ঘাম, মেধা, আন্তরিকতা এবং জনগণের সক্রিয় অংশগ্রহণের ফলেই তা সম্ভব হয়েছে। মাদারীপুর পৌরসভার উন্নয়নের রূপকল্পকে বাস্তবতায় রূপদানের লক্ষে তৃতীয় মেয়াদের জন্য সুনিদিষ্ট এ কর্মসূচি ঘোষণা করলাম। তিনি আরও বলেন, গত দুইবারে পৌরবাসীর যে সমর্থন পেয়ে আমি নির্বাচিত হয়েছি এবং পৌরসভার যে উন্নয়ন করেছি তাতে এবার আমি আপনাদের আরও বেশী সমর্থন নিয়ে মেয়র নির্বাচিত হব ইনশাল্লাহ। এসময় অন্যন্যদের মধ্যে আলীগের কেন্দ্রিয় নির্বাহী কমিটির সদস্য শাহাবুদ্দিন ফরাজী, জেলা আলীগের সাধারণ সম্পাদক বাবু কাজল কৃষ্ণ দে সহ জেলা, সদর উপজেলা ও মাদারীপুর পৌর আলীগের নেতৃবৃন্দ ও জেলার সাংবাদিক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। মাদারীপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান জানান, শুক্রবার মধ্যরাত থেকে নির্বাচনের প্রচারণা শেষ হচ্ছে। নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ করতে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রতিটি কেন্দ্রে বিপুলসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যদের সঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন। এ ছাড়া মোতায়েন থাকছে দুই প্লাটুন বিজিবি।
টিকা গ্রহণের আহ্বান শামীম ওসমানের
২৫,ফেব্রুয়ারী,বৃহস্পতিবার,মুশফিক চৌধুরী,নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনার ভ্যাকসিন সম্পূর্ণ নিরাপদ জানিয়ে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সবাইকে টিকা গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে নগরীর খানপুর এলাকায় করোনা ডেডিকেটেড ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিজের শরীরে ভ্যাকসিন গ্রহণ করে জেলাবাসীর উদ্দেশ্যে এ আহ্বান জানান তিনি। শামীম ওসমান বলেন, সারাবিশ্বে এখনো ১৩০টি দেশে করোনার ভ্যাকসিন পৌঁছায়নি। তবে ভ্যাকসিনপ্রাপ্ত মাত্র ২৫টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশও রয়েছে। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গৌরবের ব্যাপার। এটা আওয়ামী লীগ সরকারের বিরাট সাফল্য এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ অবদান। তিনি জানান, জেলায় এ পর্যন্ত ৪০ হাজার মানুষ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছেন এবং নারায়ণগঞ্জসহ সারা দেশের কোথাও কারো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হয়নি। তাই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সবাইকে এই টিকা গ্রহণ করার তাগিদ দিয়ে পাশাপাশি মাস্ক ব্যবহারসহ সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সবার প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। এছাড়া মহামারি করোনাকালীন সময় থেকে এখন পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের এই হাসপাতালে যেসব অস্থায়ী স্বাস্থ্যকর্মী জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবা প্রদান করে যাচ্ছেন তাদের চাকরি স্থায়ীকরণের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে সুপারিশ করবেন বলেও আশ্বাস দেন শামীম ওসমান।

সারা দেশ পাতার আরো খবর