রবিবার, মে ৯, ২০২১
করোনার টিকা নিলেন জেমস
১০,ফেব্রুয়ারী,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: মহামারি করোনা ভাইরাসের টিকা নিয়েছেন রকস্টার জেমস। বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুর দেড়টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) টিকার প্রথম ডোজ নেন তিনি। জেমসের ম্যানেজার রুবাইয়াৎ ঠাকুর রবিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, জেমস নিজ উদ্যোগে টিকা নিয়েছেন। কোনো সংগঠন বা দলের পক্ষ থেকে না, একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে তিনি টিকা গ্রহণ করেছেন। রবিন বলেন, আজ দুপুর দেড়টার দিকে বিএসএমএমইউর স্বাস্থকর্মী সাদিয়া সুমি জেমস ভাইয়ের শরীরে টিকা পুশ করেন। টিকা গ্রহণের পর তিনি স্বাভাবিক ও সুস্থ আছেন। করোনার শুরু থেকেই তিনি সকল প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ ও সতর্কতা মেনে চলছেন।
রণবীরের- সার্কাস মুক্তি পাবে ডিসেম্বরে
৮,ফেব্রুয়ারী,সোমবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বলিউডের ব্যস্ততম পরিচালক রোহিত শেঠির সিনেমা সবসময় বিনোদনে ভরপুর থাকে। দর্শক তার কমেডি ও অ্যাকশন ধাঁচের সিনেমাগুলো বেশ পছন্দ করেন। রোহিত আবারও দর্শকদের জন্য চমক নিয়ে হাজির হতে যাচ্ছেন। এই নির্মাতার পরবর্তী সিনেমা- সার্কাস, আর এতে অভিনয় করতে করছেন সুপারস্টার রণবীর সিং। সিনেমাটি মুক্তি পাবে ডিসেম্বরে, বছরের শেষ সপ্তাহে। বর্তমানে মুম্বাইয়ের সিটি স্টুডিওতে সার্কাসর শুটিং শুরু চলছে বলে জানিয়েছেন ভারতীয় সংবাদমাধ্যম। এছাড়া সিনেমাটির আলাদা দুইটি দল গোয়া ও ওটিতে কিছু দৃশ্য ও গানের শুটিং করবে বলেও জানানো হয়েছে। রণবীর সিং ছাড়াও সিনেমাটি আরও অভিনয় করছেন জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ, পূজা হেগড়ে ও বরুণ শর্মা। এই সিনেমাটির গল্প নেওয়া হয়েছে কমেডি সিনেমা- এরোর থেকে। এদিকে রোহিতের পরিচালনায়- সূর্যবংশীতে দেখা যাবে রণবীর সিংকে। এতে সিনেমাটির কেন্দ্রীয় চরিত্রে রয়েছেন অক্ষয় কুমার। আগামী এপ্রিলে সূর্যবংশী মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এছাড়া তার আরেকটি প্রতীক্ষিত সিনেমা হচ্ছে- ৮৩। যদিও কবির খানের সিনেমাটির মুক্তি নির্ভর করছে- সার্কাস এর মুক্তির উপর।
বিবেকবোধের আলোকিত বিবর্তনে- ইত্যাদি
৩১,জানুয়ারী,রবিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: এই যুগটা বেশ প্রতিযোগিতামূলক। মুঠোফোনের কল্যাণে হাতের মুঠোয় বিনোদনের দুনিয়া। দর্শক সহজেই দেখতে পারেন বিশ্বের বাঘা বাঘা নির্মাতাদের নির্মাণ। তাই প্রতিযোগিতায় টিকতে হলে নির্মাতাদের মেধাবী হতে হয়। জানতে হয় কৌশল। থাকতে হয় বিষয় বৈচিত্র্য। আর দীর্ঘদিন ধরে এই কাজটি করে চলেছেন বরেণ্য নির্মাতা হানিফ সংকেত। কীভাবে দর্শকদের টিভি পর্দায় আটকে রাখা যায় এ কৌশলটা ভালোই জানেন তিনি। যে কারণে গত তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে টিআরপিসহ নানা জরিপে- ইত্যাদি সেরার আসনটি দখল করে আসছে। সমসাময়িক বিষয়ের ওপর এক ডজন মজার নাট্যাংশ, দুটি গান আর ৭টি প্রতিবেদন দিয়ে সাজানো হয়েছিল এবারের- ইত্যাদি। প্রতিটি পর্বই ছিল শিক্ষামূলক ও বক্তব্যধর্মী। নৌবাহিনী প্রতিষ্ঠার এত বছর পর দর্শক এই বাহিনী সম্পর্কে কিছু জানতে পারলো ইত্যাদির মাধ্যমে। বিশেষ করে সাবমেরিন, যুদ্ধ জাহাজ, জাহাজের অধিনায়কের সঙ্গে সাক্ষাৎকার ছিল রোমাঞ্চকর। বাংলাদেশ নেভাল একাডেমির এই সুন্দর রূপও দর্শকরা ইতিপূর্বে দেখেনি। এ ছাড়া রবি চৌধুরী ও লেফটেন্যান্ট সাদিয়ার দেশাত্মবোধক গানটিও ছিল উদ্দীপনামূলক। প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থীকে নিয়ে সাগর পাড়ে হানিফ সংকেতের নৃত্য চিত্রায়ণও ছিল শৈল্পিক। এবারের পর্বের প্রতিটি নাট্যাংশই ছিল বক্তব্যধর্মী। মাস্ক নিয়ে সমসাময়িক অসঙ্গতি, টিকটক না করে ঠিকটক করার যথার্থ বক্তব্য, পিঠা নিয়ে টকশো-পিঠা তুমি কোথায়? ২ শব্দটির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করে দুই নম্বর বলা, নানা-নাতির রসালো অথচ সামাজিক সচেতনতামূলক বক্তব্য, দেশের সংস্কৃতির ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কাসহ প্রতিটি নাট্যাংশই ছিল সরস অথচ বক্তব্যধর্মী। ভালো লেগেছে ৭১ বছর বয়স্ক হেলাল উদ্দিনের পর্বটি, যিনি প্রতিশ্রুতি দেন না, তার প্রতিশ্রুতি মানুষকে কর্মপ্রেরণা দেয়। অনেক সচল এবং সবল ব্যক্তিকেও যেভাবে অলস সময় কাটাতে দেখা যায় সেখানে দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে একটি বাজার একা নিজ হাতে পরিষ্কার করার বিষয়টি অনুসরণীয়। গ্রিসের প্রতিবেদনটি ছিল অসাধারণ। ইত্যাদির মাধ্যমে দর্শক দার্শনিক সক্রেটিসের সমাধিস্থল দেখতে পেলো। নৈতিক স্কুলও ছিল শিক্ষামূলক পর্ব। মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক সালেহউদ্দিনের দেখাদেখি অন্যরাও যদি নিজেদের নৈতিকতার আদর্শে শুধরে নেয় তবেই একটি সুন্দর সমাজ গড়ে তোলা যাবে। ইত্যাদির নিয়মিত শিল্পী প্রয়াত আবদুল কাদেরের স্মৃতিচারণ ছিল বেদনাদায়ক। দিনমজুর লেখক-প্রকাশক হাসান পারভেজের আন্ধারমানিক পত্রিকার প্রতিবেদনটি ছিল হৃদয়স্পর্শী। তার স্ত্রীর কথায় অনেকেরই চোখ ভিজে গেছে। হাতে লিখে সফলতার গল্প বলে তিনি মানুষকে ভালো কাজের চর্চা করতে উদ্বুদ্ধ করেন। হাসান পারভেজকে দুই লাখ টাকা প্রদান করে কেয়া কসমেটিকস। এমনই অনেক ভালো কাজের মাধ্যমে ইত্যাদি বছরের পর বছর বিবেকবোধের আলোকিত বিবর্তন করেই চলেছে।
ইন্দিরা গান্ধীর চরিত্রে কঙ্গনা
২৯,জানুয়ারী,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর চরিত্রে অভিনয় করবেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রাণৌত। জানা গেছে, নাম ঠিক না হওয়া এই সিনেমাটি পলিটিক্যাল-ড্রামা ঘরানার। কঙ্গনা ছাড়াও এতে বলিউডের অনেক নামি তারকাদের দেখা যাবে। তবে এটি কোনো বায়োপিক নয়। কঙ্গনা বলেন, হ্যাঁ, আমরা এই প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছি এবং চিত্রনাট্য চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এটি ইন্দিরা গান্ধীর বায়োপিক নয়। বর্তমান ভারতের সামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থান নিয়ে এই সিনেমার গল্প। সিনেমার চিত্রনাট্য লিখছেন সাই কবির। এর আগে কঙ্গনার সঙ্গে- রিভলবার রানি সিনেমা পরিচালনা করেছেন তিনি। সিনেমায় সঞ্জয় গান্ধী, মোরানি দেশাই এবং লাল বাহাদুর শাস্ত্রী চরিত্রে অনেক নামি অভিনেতাকে দেখা যাবে।
যে কোনো সময় টিকা নিতে প্রস্তুত হিরো আলম
২৭,জানুয়ারী,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনা টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ বুধবার (২৭ জানুয়ারি) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কুর্মিটোলা হাসপাতালে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। এর মাধ্যমে দেশে আনুষ্ঠানিকভাবে করোনা টিকাদান কার্যক্রম শুরু হলো। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের সঙ্গে সঙ্গে কুর্মিটোলা হাসপাতালে পাঁচজনকে টিকা দেয়া হয়। আজকের দিনটিকে বাংলাদেশের মানুষের জন্য বিশেষ আনন্দের বলে দাবি করলেন সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে ভাইরাল স্টার- হিরো আলম। তিনি যে কোনো সময় করোনার টিকা নিতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন। বুধবার দুপুরে এফডিসিতে অবস্থান করছিলেন হিরো আলম। সেখানে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, দেশে প্রথমবারের মতো টিকা দেয়া হচ্ছে। আমাদের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ দিন। দেশের যাদের আগে প্রয়োজন তাদের টিকা দেয়া হলেই ভালো। এরপর সাধারণ মানুষ যারা আগ্রহী তারা টিকা নেবে। আমি টিকা নিতে প্রস্তুত। যখন আমাকে বলা হবে অবশ্যই আমি টিকা নেব। সরকারকে ধন্যবাদ জানাই যে আমাদের দেশে এতো তাড়াতাড়ি টিকা নিয়ে আসা হয়েছে। বিশ্বের অনেক দেশ এখনো টিকার দেখা পায়নি। এটা অবশ্যই আমাদের গর্বের একটি ব্যাপার। কারণ করোনাভাইরাস আসার পর থেকেই আমরা প্রতিনিয়ত দোয়া করেছি কবে কখন টিকা আসবে। অবশেষে টিকা এসেছে- যোগ করেন আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম। ডিশ ব্যবসায়ী থেকে আলোচিত ব্যক্তিতে পরিণত হওয়া হিরো আলম ২০১৬ সালে ফেসবুক গ্রুপগুলোতে ট্রোলড হচ্ছিলেন। সেই সময় তিনি বগুড়ার প্রত্যন্ত অঞ্চল এরুলিয়া থেকে গণমাধ্যমে প্রথমবার জায়গা পান। হিরো আলম সম্পর্কে অবাক করা তথ্য গোগ্রাসে গিলতে শুরু করে নেটিজেনরা। আগ্রহ দেখায় শোবিজের মানুষরা। এমনকি চলচ্চিত্রেও নেয়া হয় হিরো আলমকে। পরে নিজের টাকা খরচ করে চলচ্চিত্র বানান হিরো আলম।
হতাশা থেকে আত্মহত্যা অভিনেত্রী জয়শ্রীর
২৬,জানুয়ারী,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে দক্ষিণী অভিনেত্রী জয়শ্রী রামাইয়ার। সোমবার দুপুরে বেঙ্গালুরুর একটি বৃদ্ধাশ্রমে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায় তাকে। ইতিমধ্যেই ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে দেহ। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলেই প্রাথমিক ভাবে অনুমান পুলিশের। সূত্রের খবর অনুযায়ী, সন্ধ্যা কিরণ নামে ওই বৃদ্ধাশ্রমে অবসাদের চিকিৎসা করাচ্ছিলেন তিনি। সূত্রের খবর, গত রবিবার রাতেই মৃত্যু হয় তার। কন্নড়- বিগ বস-এ অংশগ্রহণ করে মূলত পরিচিতি পেয়েছিলেন অভিনেত্রী। মনে করা হচ্ছে, মানসিক হতাশা থেকেই আত্মঘাতী হয়েছেন তিনি। ফেসবুকে ডিপ্রেশন নিয়ে পোস্ট করেছিলেন জয়শ্রী। গত বছরের ২২ জুলাই পৃথিবী ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা লিখেছিলেন তিনি। পরবর্তী সময় সেই পোস্ট মুছে দিয়েছিলেন। আরও একটি পোস্টের মাধ্যমে ভক্তদের জানিয়েছিলেন সুস্থ এবং ভাল রয়েছেন তিনি। আবার ২৫শে জুলাই ফেসবুক লাইভে তিনি জানিয়েছিলেন, ছোটবেলা থেকে তাকে বঞ্চিত করা হয়েছে। মানসিক হতাশার সঙ্গে লড়াইয়ের কথাও বলেছিলেন অভিনেত্রী। লাইভে তিনি বলেছিলেন, প্রচার পাওয়ার জন্য আমি এ সব করছি না। সুদীপ স্যারের থেকে আর্থিক সাহায্যও চাইছি না। আমি মৃত্যুর জন্য অপেক্ষা করছি কারণ আমি হতাশার সঙ্গে লড়াই করতে পারছি না। আমি আর্থিক ভাবে স্বচ্ছল কিন্তু মানসিক ভাবে হতাশ। অনেক ব্যক্তিগত সমস্যার মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে আমাকে। ছোটবেলা থেকে আমার সঙ্গে প্রতারণা করা হয়েছে। আমি সেগুলো কাটিয়ে উঠতে পারছি না। ২০১৭ সালে- উপ্পু হুলি খরা ছবির মাধ্যমে আত্মপ্রকাশ করেন জয়শ্রী। তার মৃত্যুর খবরে শোকস্তব্ধ দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি।
ইত্যাদি- এবার পতেঙ্গার নেভাল একাডেমিতে
২৪,জানুয়ারী,রবিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: আমাদের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, মুক্তিযুদ্ধ, প্রাচীন প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন, আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র ও জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানে গিয়ে ইত্যাদি- ধারণের ধারাবাহিকতায় এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় অবস্থিত বাংলাদেশ নেভাল একাডেমিতে। গত ১৬ই জানুয়ারি এই একাডেমির বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের সামনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত সংখ্যক দর্শক নিয়ে ধারণ করা হয় ইত্যাদি। এবারের অনুষ্ঠানে গান রয়েছে দুটি। বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে নিয়ে রচিত একটি গানের সঙ্গে নৃত্য পরিবেশন করেছেন বাংলাদেশ নৌবাহিনী স্কুল অ্যান্ড কলেজের শতাধিক শিক্ষার্থী। গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন নৌ-সদস্য সৌরভ, মেহেদী, পিয়াল ও আনুভা, নৃত্য পরিচালনা করেছেন মনিরুল ইসলাম মুকুল ও মামুন। মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার গৌরব নিয়ে আর একটি দেশের গান গেয়েছেন চট্টগ্রামের সন্তান জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী রবি চৌধুরী, আর নৌ-সদস্য লেফটেন্যান্ট সাদিয়া। দুটি গানেরই কথা লিখেছেন গীতিকবি মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, সুর করেছেন হানিফ সংকেত, সংগীতায়োজনে মেহেদী। এবারের ইত্যাদিতে বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও বাংলাদেশ নেভাল একাডেমির ইতিহাস, ঐতিহ্যের ওপর রয়েছে দুটি তথ্যভিত্তিক প্রতিবেদন। ঝরে পড়া শিশুদের নেশা থেকে বাঁচিয়ে জীবনের দিশা দেয়ার জন্য একটি নৈতিক স্কুল খুলেছেন মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক গাজী সালেহ উদ্দিন। তার উপর রয়েছে একটি শিক্ষামূলক প্রতিবেদন। গুড় একটি অত্যন্ত প্রাচীন মিষ্টি জাতীয় খাদ্য এবং বাঙালি সংস্কৃতির একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। সেই গুড় তৈরি, গুড়ের মান ও বিক্রির ওপর রয়েছে একটি প্রতিবেদন। চুয়াডাঙ্গা জেলার ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্ট মৃত্যুঞ্জয় বিশ্বাসের অনন্য পাখী প্রেমের ওপর রয়েছে প্রতিবেদন। পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার হাসান পারভেজ ও তার হাতে লেখা পত্রিকার উপর রয়েছে প্রতিবেদন। রয়েছে ঝিনাইদহ জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মহেশ্বরচাঁদা গ্রামের হেলালউদ্দিনের বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডের ওপর প্রতিবেদন। এবারের পর্বে রয়েছে এথেন্সের আগোরার ওপর একটি তথ্যভিত্তিক প্রতিবেদন। দর্শকপর্বের নিয়ম অনুযায়ী প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে উপস্থিত দর্শকের মাঝখান থেকে ৪ জন দর্শক নির্বাচন করা হয়। ২য় পর্বে নির্বাচিত দর্শকরা নাট্যাংশে অভিনয় করেন। নিয়মিত পর্বসহ এবারও রয়েছে বিভিন্ন সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে বেশকিছু সরস অথচ তীক্ষ্ণ নাট্যাংশ। বরাবরের মতো এবারও ইত্যাদির শিল্প নির্দেশনা ও মঞ্চ পরিকল্পনায় ছিলেন মুকিমুল আনোয়ার মুকিম। পরিচালকের সহকারী হিসেবে ছিলেন যথারীতি রানা ও মামুন। ইত্যাদির এই পর্বটি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে আগামী ২৯শে জানুয়ারি, শুক্রবার রাত ৮টা ৪০ মিনিটে। পুনঃপ্রচার হবে ৪ঠা ফেব্রুয়ারি রাত ৮টা ৪০ মিনিটে। ইত্যাদির রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন। ইত্যাদি- স্পন্সর করেছে যথারীতি কেয়া কসমেটিকস লিমিটেড।
মুম্বাইয়ে বঙ্গবন্ধু- বায়োপিকের মহরত অনুষ্ঠিত
২২,জানুয়ারী,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বায়োপিক- বঙ্গবন্ধু-এর শুভ মহরত ভারতের মুম্বাইতে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত বছরের মার্চে বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু সিনেমার শুটিং শুরুর কথা থাকলেও করোনা মহামারির কারণে তা পিছিয়ে যায়। এ বছর শুটিং শুরুর আগে পরিচালক শ্যাম বেনেগাল মুম্বাইয়ের একটি স্টুডিওতে বঙ্গবন্ধু বায়োপিকের মহরত অনুষ্ঠান করলেন। আগামী ২৫ জানুয়ারি থেকে টানা আড়াই মাস মুম্বাইতে সিনেমাটির শুটিং হবে বলে জানা গেছে। মহরত অনুষ্ঠানে সিনেমাটির পরিচালক শ্যাম বেনেগাল, অভিনেতা আরিফিন শুভসহ অন্যান্য শিল্পী-কুশলীরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এই চলচ্চিত্রের মহরতে মুম্বাইয়ে বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসের দায়িত্বে থাকা ডেপুটি হাইকমিশনার মহম্মদ লুতফর রহমানও উপস্থিত ছিলেন। এদিকে ইতিমধ্যেই বাংলাদেশ থেকে একঝাঁক শিল্পী-অভিনেতা মুম্বইতে গিয়ে পৌঁছেছেন। জানা গেছে, টানা প্রায় আড়াই মাস মুম্বইতে সিনেমাটির শুটিং চলবে, তারপর পুরো ইউনিট ঢাকায় আসার কথা রয়েছে। প্রসঙ্গত, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ যে- মুজিব বর্ষ উদযাপন করছে তা চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত সম্প্রসারিত করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সিনেমার কাজ তার মধ্যেই শেষ করে সেটি মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে পরিচালক শ্যাম বেনেগালের।
প্রথমবার বই লিখলেন তাহসান, প্রকাশ হবে বইমেলায়
২০,জানুয়ারী,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: ক্যারিয়ারটা শুরু করেছিলেন গায়ক হিসেবে। গান গেয়ে আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা তিনি পেয়েছেন। এরপর তাকে পাওয়া গেছে সুরকার, গীতিকার হিসেবেও। তিনি মডেল হয়ে কিছু বিজ্ঞাপনে প্রশংসিত হন। এরপর বনে যান নিয়মিত অভিনেতা। অভিনয় করেছেন গান, নাটক ও সিনেমায়। এবার তিনি নতুন আরও এক পরিচয়ে হাজির হচ্ছেন। তাহসান খান এবার আত্মপ্রকাশ করছেন লেখক হিসেবে। তিনি নিশ্চিত করেন, প্রথমবারের মতো বই লিখেছেন। নাম- অনুভূতির অভিধান। আসছে বইমেলায় এটি অধ্যায়ন প্রকাশনী থেকে বের হবে। প্রথমবার বই লেখা নিয়ে তাহসান বলেন, অন্যরকম একটা অনুভূতি অবশ্যই। নিজের লেখা প্রথম বই। আবেগটা দারুণ। ২০-২৫টি গল্প নিয়ে বইটি তৈরি করা। আশা করছি পাঠক পড়ে আরাম পাবেন। মানুষের জীবনে বেড়ে ওঠার সময়ে অনেক কিছুই শেখা হয়। আমার মনে হয় আমাদের সমাজের প্রেক্ষাপটে একটা জিনিসই কম শিখছি, সেটা হচ্ছে অনুভূতি কীভাবে ধারণ করতে হয়; সেটাকে কীভাবে প্রক্ষেপণ করতে হয়, অনুভূতির চরাই উৎরাই কীভাবে পার করতে হয় সেটা। এটা আমরা শিখি না। কারণ স্কুল-কলেজে এটা শেখানো হয় না, পরিবারেও খুব একটা হয় না। যার কারণে টিনেজ বয়সে কিংবা তার পরবর্তী বয়সে বিভিন্ন সময়ে ফ্রাস্ট্রেশন বা ডিপ্রেশন চলে আসে। আমার বইটা হচ্ছে একটা- কনভার্সেশন স্টার্টার; যেন কথার শুরু হয়। আমি বলবো না যে এভাবেই শুরু করতে হবে! আমি আমার গল্পের মাধ্যমে বলতে চাই যে, এভাবে শুরুটা হতে পারে- যোগ করেন এই গায়ক-অভিনেতা। তাহসান বর্তমানে ভালোবাসা দিবসের নাটক নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। শিগগিরই তাকে দেখা যেতে পারে সিনেমায়ও। সম্প্রতি জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার (ইউএনএইচসিআর) শুভেচ্ছা দূত নির্বাচিত হয়েছেন তাহসান খান।