রবিবার, মে ৯, ২০২১
এলো মিউজিক্যাল ফিল্ম- আমারে দিয়া দিলাম তোমারে
১৩নভেম্বর,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সাব্বির নাসিরের গাওয়া, ওমর ফারুক বিশালের লেখা এবং মুরাদ নূরের সুরে সাড়া জাগানো গান আমারে দিয়া দিলাম তোমারে এবার মিউজিক্যাল ফিল্ম রূপে প্রকাশ পেয়েছে। এটি সাব্বির নাসিরের ইউটিউব চ্যানেলে শুক্রবার (১৩ নভেম্বর) প্রকাশ পায়। এর আগে গানটির স্টুডিও ভার্সন সাব্বির নাসিরের ফেসবুক পেজ, ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত হয়। সময়টা ১৯৪৬ সাল। একদিকে, ব্রিটিশ বিরোধী সশস্ত্র বিপ্লবী সংগ্রামের সময়, অন্যদিকে দাঙ্গা। এই আন্ডারগ্রাউন্ড আন্দোলনে জড়িয়ে পড়া ছেলেকে কলকাতা থেকে ফিরিয়ে এনেছে বাবা। বিয়ে দিয়ে দেবেন। ছেলের মাথায় তখন আন্দোলনের ভূত। বিয়ে হয়ে যায়। এই প্রেক্ষাপটে নির্মিত হয়েছে- আমারে দিয়া দিলাম তোমারে শিরোনামের গানটির অফিসিয়াল মিউজিক্যাল ফিল্ম। আলোচিত এ গানের কিছু অংশ আদা সমুদ্দুর নাটকে ব্যবহার করা হয়েছে। তখনই গানটি ব্যাপক শ্রোতাপ্রিয়তা পায়। এবার প্রকাশ পেল গানটির অফিসিয়াল মিউজিক্যাল ফিল্ম। গানের মডেল হিসেবে কাজ করেছেন আবু হুরায়রা তানভীর ও পুনম হাসান জুঁই। মানিকগঞ্জে এর দৃশ্যধারনের কাজ হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সাব্বির নাসির বলেন, গানটি শ্রোতারা আগেই শুনেছেন এবং প্রকাশের পর বেশ সাড়া পেয়েছি। তাই এবার শ্রোতাদর্শকের জন্য প্রকাশ করা হলো এই গানের অফিসিয়াল মিউজিক ভিডিওটি। শাহরিয়ার পলক সুন্দরভাবে এটি নির্মাণ করেছেন। আশা করি, সকলের পছন্দ হবে। গানটির অফিসিয়াল ভিডিও নির্মাতা শাহরিয়ার পলক বলেন, গানটি শোনার পরই মানব প্রেমের বিষয়টি খুঁজে পাই আমি। কমন কিছু বানাতে চাইনি। তাই ১৯৪৬ সালকে বেছে নেওয়া। এ সময়টা নোয়াখালী রায়টস-এর জন্য পরিচিত। আন্দোলনের সময় ছিল তখন। নিজের জমিদারি রক্ষা করা ও অন্যদিকে আন্দোলন, দাঙ্গা থেকে সন্তানকে রক্ষা করার জন্য জমিদার তার পুত্রকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনেন। এদিকে জমিদারপুত্র একটি মেয়ের প্রেমে পড়েন। প্রেম মানুষ হত্যাকেও থামিয়ে দিতে পারে। এটা এমনই একটি শক্তি। সে বিষয়গুলো এবং সেসময়ের কস্টিউমেও তার বহিঃপ্রকাশ ভিডিওচিত্রে তুলে আনার চেষ্টা করেছি।
মনোযোগী সারিকা
১২নভেম্বর,বৃহস্পতিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: জনপ্রিয় মডেল-অভিনেত্রী সারিকা সাবরিন। দীর্ঘদিন পর আবারো অভিনয়ে মনোযোগী হয়েছেন জানান তিনি। গেল কোরবানি ঈদের আগ থেকে নিয়মিত কাজ করছেন এই অভিনেত্রী। ঈদে বেশ কয়েকটি নাটকে দেখা গেছে তাকে। গতকাল এই অভিনেত্রী নির্মাতা দীপু হাজরার- গেইম অফ লাইফ শিরোনামের একটি খণ্ড নাটকের শুটিং করেন। এতে তিনি জুটি বাঁধেন সজলের বিপরীতে। সজলের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা বরাবরই ভালো উল্লেখ করে সারিকা এই নাটক প্রসঙ্গে বলেন, সজল আমার প্রিয় একজন সহশিল্পী। অন স্ক্রিনে আমাদের বোঝাপড়াটা খুব ভালো। কাজ করার সময়ও আমাদের কেমিস্ট্রি ভালো থাকে। এই কাজটাও ভালো হয়েছে। দীপু হাজরা ভাইয়ের সঙ্গে প্রথম কাজ। কাজটা করে ভালো লেগেছে। কারণ স্ক্রিপ্ট একটু ভিন্ন। গতানুগতিক প্রেমের গল্প যে রকম দেখি সে রকম না। দর্শকরা পছন্দ করবে আশা করছি। গেইম অফ লাইফর আগে বিইউ শুভর পরিচালনায়- পাসওয়ার্ড ফেরত চাই শিরোনামের একটি নাটকের শুটিং করেছেন সারিকা। এতে টমবয় টাইপের একটি মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। এ ধরনের চরিত্রে আগে কখনো কাজ করেননি জানান এই অভিনেত্রী। এদিকে খুব শিগগিরই সারিকার অভিনীত কিছু নাটক প্রচারিত হবে বলে। আর এখন থকে হুটহাট আড়ালে নয়। নিয়মিত কাজে থাকবেন বলেও প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। অভিনয়ের বাইরে প্রথমবারের মতো উপস্থাপনায় নাম লিখেছেন এই গ্ল্যামারকন্যা। সম্প্রতি বাংলাভিশনের আমার আমি অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা শুরু করেছেন তিনি। এর আগে এই অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেছেন মিথিলা। উপস্থাপনা নিয়ে সারিকার ভাষ্য, আমার আমি দিয়ে উপস্থাপনা শুরু করলাম। প্রথম সব কিছুরই অনুভূতি অন্যরকম। খুবই সম্মানিত বোধ করছি এই অনুষ্ঠানটি করে। যেহেতু এর আগে উপস্থাপনা করিনি খানিকটা নার্ভাস ছিলাম। একবারে সাবলীল উপস্থাপনা করতে আরো কিছুদিন সময় লাগবে। আশা করি সামনে আরো ভালো করবো। সবাই অনুষ্ঠানটি দেখবেন। তাহলে আমি আরো অনুপ্রাণিত হবো।
৩ গুণ পারিশ্রমিক বাড়িয়েছেন সাঈফ আলি খান
১১নভেম্বর,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: সময়টা গত কয়েক বছর ধরে বেশ ভালো যাচ্ছে। সিনেমা কিংবা অনলাইনে ওয়েব সিরিজ, সবখানেই সাইফ আলি খানের জয়জয়কার। তার কাজগুলো লুফে নিচ্ছেন দর্শক। নায়ক এবং খলনায়ক, সব রকম চরিত্রেই বলিউডের নবাবের প্রতি মুগ্ধ দর্শক। নিজেকে বদলে ফেলেছেন অনেকটাই। বাণিজ্যিক ধারার চিরচেনা সাইফ নিজেকে আগের অভিনয় ধারা থেকে বের করে নিয়ে এসেছেন। তার সর্বশেষ কিছু সিনেমা- কলাকান্দি, জওয়ানি জাওয়ানমন এবং- সেক্রেড গেমসর মতো ওয়েব সিরিজগুলো দর্শক প্রশংসা পেয়েছে। ভারতের একটি শীর্ষ দৈনিক তাদের খবরে প্রকাশ করে, চাহিদার কথা মাথায় রেখেই বর্তমানে সিনেমার জন্য নিজের পারিশ্রমিক প্রায় ৩ গুণ বাড়িয়ে দিয়েছেন সাইফ। আগে সিনেমা প্রতি ৩-৪ কোটি রুপি পারিশ্রমিক নিতেন। কিন্তু এখন থেকে সাইফ প্রতিটি সিনেমার জন্য নিবেন ১২-১৩ কোটি রুপি। শুধু তাই নয়, পরিচালক যদি সিনেমাটি ওটিটি প্লাটফর্মের জন্য নির্মাণ করে থাকেন তবে পারিশ্রমিক আরও বাড়িয়ে নেবেন তিনি। প্রসঙ্গত, সাইফ বর্তমানে ভূত পুলিশ- সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। সিনেমাটিতে তার সঙ্গে অভিনয় করবেন জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ, অর্জুন কাপুর ও ইয়ামি গৌতম। এরপর- ওম রাউতের আদিপুরুষ সিনেমায় রাবণ চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি।
আরো সচেতন হতে হবে: পূর্ণিমা
১০নভেম্বর,মঙ্গলবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: করোনার প্রথম কয়েক মাস ঘরবন্দি জীবন কাটিয়েছেন ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়িকা দিলারা হানিফ পূর্ণিমা। করোনা ভাইরাসের কারণে সে সময়ে মিডিয়ায় কোনো কাজেই অংশ নেননি। তবে এর মাঝেই করোনা আক্রান্ত হন পূর্ণিমা। আক্রান্ত হবার পরই চলে যান কোয়ারেন্টিনে। করোনা জয় করে ইতিমধ্যে কাজেও ফিরেছেন তিনি। অংশ নিয়েছেন নইম ইমতিয়াজ নেয়ামূলের জ্যাম শীর্ষক সিনেমায়। এখানে তার নায়ক ফেরদৌস। পূর্ণিমা বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণে অনেক দিন কাজ করিনি। তবে এবার কাজ শুরু করলাম। যতটুকু সচেতন থেকে কাজ করা যায় করছি। তারপরও ভয় ভয় লাগে। জ্যাম- ছবির গল্প ও তাতে আমার চরিত্র চমৎকার। খুব সুন্দর একটি ছবি পেতে যাচ্ছেন দর্শক। তাহলে কি নিয়মিত কাজ করবেন এখন? এ নায়িকা বলেন, আমি করোনার আগেও একেবারে নিয়মিত কাজ করিনি। আর এখন তো প্রশ্নই উঠে না। খুব বেছে কাজ করবো। সচেতনতা এবং নিরাপত্তাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ আমার কাছে। আর শীত চলে আসছে। করোনার সেকেন্ড ওয়েভ নাকি আসছে! তাই সবারই আরো সচেতন হতে হবে। কারণ নিজেকে এবং পরিবারকে নিরাপদে রাখাই সব থেকে জরুরি। সিনেমার এখনকার পরিস্থিতি নিয়ে পূর্ণিমা বলেন, চলচ্চিত্রের অবস্থা এমনিতেই তো ভালো ছিলো না। যদিও খুব ভালো ভালো সিনেমা হচ্ছে এখন। করোনার কারণে অবস্থা আরো খারাপ চলচ্চিত্রের। সব স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আসলে অবস্থা ঠিক তেমন হবে না। আর সব স্বাভাবিক কবে হবে সেটা অনিশ্চিত। এ নায়িকা যোগ করে বলেন, যেদিন থেকে সাধারণ ছুটি শুরু হয়েছিল তারপর আমি কোথাও যাইনি। বেরই হইনি। আর কাজ তো দূরের কথা। কিন্তু কতদিন আর বন্দি হয়ে থাকা যায়। তবে অবশ্যই সচেতন হয়ে কাজ করতে হবে। এর বিকল্প নেই। শত্রু ঘায়েল ছবিতে শিশুশিল্পী হিসেবে অভিনয় করলেও জাকির হোসেন রাজুর এ জীবন তোমার আমার ছবির মধ্য দিয়ে নায়িকা পূর্ণিমার যাত্রা শুরু হয়। ১৯৯৭ সালের এ ছবিতে তার নায়ক ছিলেন রিয়াজ। এরপর মনের মাঝে তুমি, হৃদয়ের কথা, প্রেমের নাম বেদনা, আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা, শাস্তি, শুভা, মেঘের পরে মেঘ, স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ সহ অনেক সিনেমায় অভিনয় করে দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করেন পূর্ণিমা। কাজি হায়াৎ পরিচালিত ওরা আমাকে ভালো হতে দিল না ছবির জন্য ২০১০ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও পান তিনি।
এবার তারিন ও বাঁধনকে নিয়ে নতুন সিনেমায় চঞ্চল
০৮নভেম্বর,রবিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: দেশের জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। দুর্দান্ত গানও করেন তিনি। তবে সিনেমায় চঞ্চলকে বলা হয়- লাকি অ্যাক্টর। দীর্ঘদিনের ক্যারিয়ারে কাজ করেছেন হাতে গোনা অল্প কয়টি সিনেমায়। তবে সেগুলোর সবই দর্শকের কাছে সমাদৃত হয়েছে। সেইসঙ্গে মনপুরা, টেলিভিশন, আয়নাবাজি সিনেমাগুলোতে চঞ্চল ব্যবসায়িকভাবেও নিজেকে সফল অভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। সেই ধারাবাহিকতায় আরও একটি চলচ্চিত্রে যোগ দিলেন তিনি। এর নাম- ডার্করুম। চঞ্চলের বন্ধু নির্মাতা গোলাম সোহরাব দোদুল এটি পরিচালনা করছেন। নাটকের জনপ্রিয় পরিচালক দোদুলের সিনেমায় আত্মপ্রকাশ হয়েছে গেল বছর- সাপলুডু সিনেমা দিয়ে। কথা ছিলো সেই ছবিতেই চঞ্চল অভিনয় করবেন। তবে শিডিউলজনিত জটিলতায় তা আর হয়নি। অবশেষে দুই বন্ধু এক হয়ে ডার্করুম-এ কাজ করতে যাচ্ছেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দোদুল। তবে সিনেমাটি মুক্তি পাবে কোনো একটি ওয়েব প্লাটফর্মে। আরও চমক হলো এই সিনেমায় চঞ্চলের সঙ্গে অভিনয় করবেন নন্দিত অভিনেত্রী তারিন জাহান ও লাক্স তারকা আজমেরী হক বাঁধন। রোববার (৮ নভেম্বর) সকালে এই তথ্য জানিয়ে গোলাম সোহরাব দোদুল বলেন, বেশকিছু দিন আগে ওয়েব ফিল্মটির শুটিং শেষ করেছি। প্যারাসাইকোলজি থ্রিলার গল্প নিয়ে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। বেশ দারুণ অভিনয় করেছেন চঞ্চল, তারিন ও বাঁধন। আমি প্রত্যাশা করছি দর্শক ডার্করুম উপভোগ করবেন। তিনি জানান, এ সিনেমায় ভিন্ন ভিন্ন চারটি চরিত্রে অভিনয় করবেন চঞ্চল চৌধুরী। চমক ও নতুনত্ব থাকবে তারিন-বাঁধনের চরিত্রগুলোতেও। খুব শিগগিরই ছবিটির ট্রেলার প্রকাশ হবে। আর এবারের শীতেই আসছে ডিসেম্বরে সিনেম্যাটিক অ্যাপে মুক্তি পাবে ওয়েব ফিল্মটি। প্রসঙ্গত, ডার্করুম ছাড়াও সম্প্রতি দোদুল ছক শিরোনামে একটি ৯০ মিনিটের একটি ওয়েব ফিল্ম নিমার্ণ করছেন। সেখানে জুটি হিসেবে দেখা যাবে অভিনেতা তাহসান খান ও অর্চিতা স্পর্শিয়াকে।
উচ্ছ্বসিত শার্লিন ফারজানা
০৭নভেম্বর,শনিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: শার্লিন ফারজানা ২০০৮ সালে ইউ গট দ্য লুক সুন্দরী প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন। এরপর বেশকিছু বিজ্ঞাপনে কাজ করে আলোচনায় আসেন তিনি। দীর্ঘদিন কাজ করেছেন নাটকে। সম্প্রতি এই অভিনেত্রীর- ঊনপঞ্চাশ বাতাস সিনেমাটি মুক্তি পেয়েছে। করোনকালীন এই সময়েও তার অভিনীত এই সিনেমাটি দর্শকমহলে ভালোই সাড়া পাচ্ছে। এখন অবধি কয়েকটি হলে চলছে সিনেমাটি। দশর্কদের কাছ থেকে আশানুরূপ সাড়া পেয়ে বেশ খুশি শার্লিন। কথায় কথায় তিনি জানান, ঊনপঞ্চাশ বাতাস এবার অস্ট্রেলিয়ার কুইন্স অঙ্গরাজ্যের রাজধানী ব্রিসবেনে ২৮শে নভেম্বর মুক্তি পেতে যাচ্ছে। এটাই ঊনপঞ্চাশ বাতাসর দেশের বাইরে প্রথম মুক্তি পাওয়া। অস্ট্রেলিয়ায় ছবিটি মুক্তির আয়োজন করেছে বাংলাদেশ কালচার ইন ব্রিসবেন। এ ছাড়া দেশে খুলনার লিবার্টি হল আর কক্সবাজার স্কাই মুভি থিয়েটারে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। আর এ মুহূর্তে ঊনপঞ্চাশ বাতাস চলছে স্টার সিনেপ্লেক্স বসুন্ধরা, সীমান্ত সম্ভার, মহাখালী এসকেএস সেন্টার, যমুনা ব্লকবাস্টার, নারায়ণগঞ্জের সিনেস্কোপ এবং চট্টগ্রামের সিলভারস্ক্রিনে। সবমিলিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত শার্লিন। বলেন, খুবই ভালো লাগছে ঊনপঞ্চাশ বাতাস এবার দেশের বাইরেও মুক্তি পাচ্ছে। সেখানেও সুবাতাস বইবে। অস্ট্রেলিয়ায় যারা প্রবাসী আছেন তারা এই সিনেমাটি দেখবে আশা করছি। ঊনপঞ্চাশ বাতাস ছবিতে জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন শার্লিন ফারজানা ও ইমতিয়াজ বর্ষণ। শুটিংয়ের শুরু থেকেই আলোচনায় রয়েছে এ ছবি। এটি ছোট পর্দার নির্মাতা মাসুদ হাসান উজ্জ্বলের প্রথম সিনেমা। ২৩শে অক্টোবর মুক্তি পেয়েছে ছবিটি।
শনিবার থেকে নতুন ধারাবাহিক নাটক- ফরেন ভিলেজ
০৬নভেম্বর,শুক্রবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: বরজাহান হোসেনের রচনায় ফরিদুল হাসানের পরিচালনায় নির্মিত হয়েছে নতুন ধারাবাহিক নাটক- ফরেন ভিলেজ। শনিবার (০৭ নভেম্বর) থেকে টেলিভিশনের পর্দায় নাটকটি প্রচার হতে যাচ্ছে। তারকাবহুল নাটকটিতে অভিনয় করেছেন মীর সাব্বির, নাদিয়া আহমেদ, চিত্রনায়িকা অরুণা বিশ্বাস, আলভী, ঊর্মিলা শ্রাবন্তী কর, দিলারা জামান, আরফান আহমেদ, সাজু খাদেম, ডা. এজাজ, জামিল হোসাইন, প্রাণ রায়, মাহমুদুল ইসলাম মিঠু, পূর্ণিমা বৃষ্টি, ফারজানা রিক্তা, আইরিন আফরোজ প্রমুখ। নাটকটির প্রসঙ্গে নির্মাতা জানান, প্রত্যন্ত অঞ্চলের গ্রাম উজানপুরের মেয়েরা বিদেশে চাকরি করেন। স্বামীরা তাদের টাকায় দাম্ভিকতা দেখায় এবং সংসারের কাজ করেন। হাস্যরসে ভরপুর ব্যতিক্রমী জমজমাট গল্প নিয়ে নাটকের গল্প এগিয়ে যাবে। নতুন ধারাবাহিক নাটক ফরেন ভিলেজ শনিবার থেকে বাংলাভিশন টেলিভিশনে প্রচার শুরু হচ্ছে। প্রতি সপ্তাহে শনি ও রোববার রাত ০৯টা ৪৫মিনিটে এটি প্রচার হবে।
করোনা আক্রান্ত অপূর্বর জন্য জরুরি প্লাজমা প্রয়োজন
০৫নভেম্বর,বৃহস্পতিবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ছোটপর্দার সুপারস্টার জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। রাজধানীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তার। গতকাল বুধবার (৪ নভেম্বর) থেকে খানিকটা উন্নতি হয়েছে তার শারীরিক অবস্থার। সেজন্য চিকিৎসকরা অপূর্বকে করোনার বিশেষ নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র থেকে সাধারণ কেবিনে রেখে চিকিৎসা দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে দুশ্চিন্তা এখনো কাটেনি। এই অভিনেতার জ্বর এখনো কমছে না। অপূর্বর পরিবার সুত্রে জানা গেছে, জরুরি ভিত্তিতে অপূর্বর জন্য এ পজিটিভ প্লাজমার প্রযোজন। নাট্যনির্মাতা শিহাব শাহীন বেশ কয়েকবার ফেসবুকে পরিচিতদের অনুরোধ করেছেন, করোনাজয়ী কেউ থাকলে যেন অপূর্বর জন্য এগিয়ে আসেন। সেখানে তিনি জরুরি যোগাযোগ করতে 01707991331/01730611351 নাম্বারগুলোও শেয়ার করেছেন। আরও অনেকেই ফেসবুকে অপূর্বর জন্য প্লাজমা্ চেয়ে অনুরোধ করেছেন। তবে এখন পর্যন্ত প্লাজমা পাওয়া যায়নি বলে জানা গেছে। তাই অপূর্বর পরিবার প্লাজমার জন্য এ পজিটিভ গ্রুপের করোনাজয়ীদের কাছে অনুরোধ করেছেন। প্লাজমা দিতে আগ্রহীদের অবশ্যই ঢাকার মধ্যে হতে হবে। এর আগে গত ৩ নভেম্বর রাতে জিয়াউল ফারুক অপূর্বর শরীরের অবনতি ঘটলে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সঙ্গে সঙ্গে নেওয়া হয় আইসিইউতে। তারও একদিন আগে করোনা পজেটিভ ফল হাতে পান এই অভিনেতা। জ্বরে ভুগছিলেন তিনি গত পাঁচদিন ধরে। সূত্র: জাগো নিউজ
অন্যরকম অভিজ্ঞতায় পরীমনি
০৪নভেম্বর,বুধবার,বিনোদন ডেস্ক,নিউজ একাত্তর ডট কম: চলতি মাসের প্রথমদিন থেকে শুরু হয়েছে পরীমনি অভিনীত প্রীতিলতা চলচ্চিত্রের শুটিং। ঢাকার উত্তরার পর এখন এর শুটিং চলছে নিকেতন ও পুরান ঢাকার বিভিন্ন জায়গায়। ৬ই নভেম্বর পর্যন্ত টানা শুটিংয়ে পরী অংশ নিবেন এ ছবির। এ ছবিতে ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের প্রথম বিপ্লবী নারী শহীদ প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার চরিত্রে অভিনয় করছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত এই নায়িকা। পরীমনি বলেন, অনেক দিন পর শুটিং করছি। প্রীতিলতার- টিমটা চমৎকার। শুটিং করতে খুব ভালো লাগছে। তারুণ্যনির্ভর একটা টিম। আমার তো এখনই যুদ্ধ যুদ্ধ ফিল হচ্ছে। প্রীতিলতা- হওয়াটা কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়ও বটে। কারণ এটি ঐতিহাসিক একটি চরিত্র। তাই বেশ ভালো প্রস্তুতি নিতে হয়েছে। আর এই প্রস্তুতিতে সিনেমার পুরো টিমের শতভাগ সহায়তা পেয়েছি। এ চরিত্রে কাজ করতে গিয়ে অন্যরকম অভিজ্ঞতা হচ্ছে। চেষ্টা করছি শুটিংয়ে নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে কাজ করতে। প্রীতিলতার মধ্যেই যেন ডুব দিয়েছি এখন। আশা করছি খুব ভালো কিছু হবে। গোলাম রাব্বানীর চিত্রনাট্য ও সংলাপে ছবিটি পরিচালনা করছেন রাশিদ পলাশ। নির্মাতা রাশিদ পলাশ বলেন, প্রথম লটটা আমরা ঢাকাতেই শুট করবো। এরপর চট্টগ্রামে চলে যাবো। সেখানেই আমাদের মূল কাজ হবে। ইউফরসির ব্যানারে নির্মিত এ চলচ্চিত্রের কসটিউম ডিজাইনার হিসেবে কাজ করছেন বিবি রাসেল। এ ছবিতে গান করেছেন কলকাতার প্রখ্যাত সংগীতশিল্পী কবির সুমন।